বিজ্ঞাপনের জন্য আমাদের সঙ্গে যোগাযোগের মাধ্যম : amaderbharatdesk@gmail.com    ১৯শেই সাফ তৃণমূল : মোদী।    চিটফান্ড কেলেঙ্কারিতে জেলে যাবেন পার্থ : কৈলাশ বিজয়বর্গীয়    আমি বিজেপির ভয়ানক বিরোধী, কিন্তু এটা উকিলের চোখে ধরা পড়ছে মূর্তি টিএমসিপি ভেঙেছে : অরুণাভ ঘোষ।    মুখ্যমন্ত্রীর প্ররোচনায় নরসংহার শুরু করতে পারে তৃণমূল, রাজ্যে কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েনের দাবি বিজেপির।    তৃণমূল বিদ্যাসাগরের মূর্তি যে ভেঙ্গেছে সেখানে পঞ্চ ধাতুর মূর্তি বানিয়ে দেব : ঘোষণা মোদীর।    সারদা নরদা নিয়ে বড় বড় কথা আর চিটফান্ডের মালিকের মাঠে সভা করছে প্রধানমন্ত্রী : মমতা।    কমিশনের নির্দেশ অমান্য ! স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকে গরহাজির রাজীব কুমার।    এবার লালবাজারে ডাকা হতে পারেন অমিত শাহকে!    ক্ষুব্ধ ঝাড়গ্রামের নীরব অপেক্ষা ফলাফলের জন্য।    “নারী শিক্ষার দিশারীকে ভূ-লুন্ঠিত হতে হল বাঙালীদের হাতে, এর থেকে লজ্জা কি আছে?”: ক্ষোভ বীরসিংহবাসীর।    রানাঘাটের মত নিশ্চিত আসনেও সিঁদুরে মেঘ দেখছে তৃণমূল।    মহামিছিল করে ভাটপাড়ায় প্রচার শেষ করতে চান মদন।    আজ আপনার কেমন যাবে জেনে নিন।    নির্বাচনের আগে ভোট পরিস্থিতি খতিয়ে দেখলেন বিশেষ পুলিশ পর্যবেক্ষক বিবেক দুবে।


কলকাতার রাস্তায় গেরুয়া প্লাবন! অমিত শাহের রোড-শোতে উন্মাদনা তুঙ্গে

আমাদের ভারত, কলকাতা,১৪ মে: গেরুয়া প্লাবন দেখল আজ কলকাতা। চারিদিকে গেরুয়া হয়ে গেল আজ কলকাতার রাস্তা। অমিত শাহের রোড- শোকে কেন্দ্র করে কলকাতা কার্যত চলে গেল বিজেপির দখলে। জন প্লাবনে তিল ধারণের জায়গা ছিল না । রাস্তা জুড়ে শুধুই গেরুয়া মিছিল। রাস্তার দুধারেও দাঁড়িয়ে ছিল মানুষ। শহর কলকাতা এই প্রথম দেখল গেরুয়া উত্থান। মিছিলের গর্ভ থেকে মুহুর্মুহু উঠল “জয় শ্রী রাম” ধ্বনি।


রাস্তার দুধারে গেরুয়া বেলুন, সঙ্গে ঢাকের তালে লোকনৃত্য থেকে রণ-পা নৃত্য। এছাড়াও এই রোড শোতে দেশের ঐতিহ্যবাহী একাধিক নৃত্যের উপস্থাপনায় কার্যত ভারতবর্ষ উঠে এসেছিল কলকাতার বুকে। গেরুয়া রঙে রঙিন হয়ে উঠেছিল মঙ্গলবার ধর্মতলা, লেনিন স্মরণী, ওয়েলিংটন স্টিট, কলেজ স্কোয়ার।

শহীদ মিনার থেকে সিমলা স্ট্রীট পর্যন্ত এই রোড- শো হয়। বাগনান থেকে আনা ১০ হাজার কেজি গাঁদাফুলের পাঁপড়ির পুষ্পবৃষ্টি করে স্বাগত জানান হয় অমিত শাহকে। বিজেপি সভাপতিও নিজে পাল্টা ফুলের পাপড়ি ছোঁড়েন কর্মী সমর্থকদের উদ্দেশ্যে। প্রত্যন্ত জেলা থেকে কেউ গদা হাতে বজরং বলি সেজে কেউ বা দলীয় পতাকা হাতে গেরুয়া পাগড়ি বেঁধে মিছিল সামিল হয়েছেন। এমনকি মহিলাদের মাথাতেও ছিল গেরুয়া পাগড়ি। রোড-শোতে পা মেলান বাবুল সুপ্রিয়,লকেট চট্টোপাধ্যায়, সৌমিত্র খাঁ, আলুওয়ালিয়ার মত বেশিরভাগ বিজেপির প্রার্থীরাও। ছিলেন দলের রাজ্যসভায় সভা সদস্যা রূপা গাঙ্গুলি।

উদ্দীপ্ত হাজার হাজার বিজেপি কর্মী সমর্থকদের পায়ে পায়ে দীর্ঘ থেকে দীর্ঘতর হয়েছে গেরুয়া মিছিল। দীর্ঘ ক্ষণ অবরুদ্ধ থেকেছে মধ্য কলকাতা গেরুয়া জনস্রোতের কারণে।

তবে রোড- শো শুরু অনেক আগেই কার্যত স্তব্ধ হয়ে যায় ধর্মতলা চত্বর। চারিদিকে ভোট ফর মোদীর স্লোগান। এককথায় বড়োসড়ো রোড- শো করে বিজেপি নিজের সংগঠনকে এরাজ্যে শক্তি শালী করার দিকে এগিয়ে গেল বলে মনে করছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা।

অন্যদিকে অমিত শাহ রোড-শো থেকে দাবি করেছেন আজকের জনপ্লাবন প্রমাণ করে দিচ্ছে যে পশ্চিমবঙ্গে বিজেপি ২৩ এর বেশি আসন পেতে চলেছে। এরাজ্যে পরিবর্তন হতে চলেছে। মানুষের সমর্থনে বিজেপির হাত ধরে বাংলায় পরিবর্তন আসতে চলেছে বলে দাবি করেছেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি।

Leave a Reply

avatar
  Subscribe  
Notify of