যেকোন রকম বিজ্ঞাপনের জন্য আমাদের সঙ্গে যোগাযোগের মাধ্যম : amaderbharatdesk@gmail.com    ৩ হাজারের বেশি অ্যান্টি ট্যাংক মিসাইল কিনতে পারে ভারত ফ্রান্স থেকে।     কংগ্রেসের ইস্তেহারে রামমন্দির যুক্ত হলে আমরা তাদের সমর্থনের কথা ভাবতে পারি : ভিএইচপি।    বিজেপির বিরুদ্ধে কংগ্রেসের প্রার্থী হতে পারেন করিনা কাপুর।    মমতা নয় রাহুলকেই নেতা দেখতে চান তারা, ব্রিগেডের পরেই জানালেন তেজস্বী, স্টালিনরা।     একসময় কাগজ কুড়াতেন আজ চণ্ডীগড়ের মেয়র এই বিজেপি নেতা।    ব্রিগেডে খরচের উসুল তুলতে ব্যর্থ তৃণমূল, সোশ্যাল মিডিয়ায় মোদিকে হারিয়েই সন্তুষ্ট।    মালদায় অমিত শাহ-যোগীর সভা সফল করার জন্য বিজেপির তিন প্ল্যান।    ব্রিগেডের সভার বদলে আসানসোলে সভা করবে প্রধানমন্ত্রী, জানালেন দিলীপ ঘোষ।    জম্মু-কাশ্মীরে একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাবে বিজেপি , দাবি রাম মাধবের।    জয়নগরে অমিত শাহের সভার আগেই রাস্তাঘাট তৃণমূলের দখলে।    লোকসভা নির্বাচনকে মাথায় রেখে সফরে জিটিএর প্রতি মুক্তহস্ত মমতা।    ডুয়ার্সে চিতাবাঘের চামড়া সহ আটক পাঁচ চোরাচালানকারী।    আজ আপনার কেমন যাবে জেনে নিন।    বিজেপি নেতার মাতৃবিয়োগে সমবেদনা জানাতে দুর্গাপুরে রাজ্যপাল।


ফের নাকচ হল আরাবুলের জামিন  

আমাদের ভারত, বারুইপুর, ১৩ জুন: আবারও আরাবুলের জামিনের আবেদন নাকচ করে দিল, বারুইপুর আদালত। পঞ্চায়েত ভোটের আগে ভাঙড়ে জমি কমিটির মিছিলে হামলা ও গুলি চালানোর অভিযোগ ওঠে ভাঙড়ের প্রাক্তন তৃণমূল বিধায়ক আরাবুল ইসলাম ও তার অনুগামীদের বিরুদ্ধে। ঘটনার দিন হাফিজুর মোল্লা নামে এক জমি কমিটির সদস্যের মৃত্যু হয় গুলিবিদ্ধ হয়ে। সেই ঘটনায় আরাবুল ইসলামের বিরুদ্ধে অভিযোগ ওঠে। ঘটনায় ক্ষুব্ধ রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী তথা পুলিশ মন্ত্রীর নির্দেশে আরাবুল ইসলামকে গ্রেফতার করে বারুইপুর জেলা পুলিশ। সেই ঘটনার পর একাধিকবার বারুইপুর মহকুমা আদালতে তোলা হলে বিচারক আরাবুল ইসলামের জামিনের আবেদন বার বার খারিজ করে দেন। কিন্তু গত ৭ই জুন নিহত হাফিজুরের স্ত্রী সাবিরা বিবি বারুইপুর মহকুমা আদালতের অতিরিক্ত জেলা দায়রা জজ পরেশচন্দ্র কর্মকারের এজলাসে এভিডেভিট জমা দিয়ে জানান তার স্বামীর খুনের ঘটনায় আরাবুল ইসলাম জড়িত নয়। নিহতের স্ত্রীর এই ধরনের স্বীকারোক্তির পরেও বিচারক আরাবুলের জামিন মঞ্জুর না করে এ বিষয়ে পুলিশকে আরও ভাল করে তদন্তের নির্দেশ দেন ও সাত দিনের মধ্যে এই বিষয়ে রিপোর্ট জমা দিতে বলেন।

সেই মোতাবেক বুধবার আরাবুল ইসলামের জামিনের বিষয়ে শুনানি শুরু হয় বারুইপুর মহকুমা আদালতে। যদিও অসুস্থতার কারণে এদিন আরাবুল ইসলাম আদালতে আসতে পারেননি। আরাবুল ইসলামের পক্ষে তার আইনজীবী জয়িস্নু বাসু বিচারকের কাছে জামিনের আবেদন জানিয়ে বলেন, “ আমার মক্কেল ভীষণ অসুস্থ, তার সুগার ও প্রেসার অত্যন্ত ভাবে বেড়েছে। তাছাড়া সামনেই খুশির ইদ। নিহতের স্ত্রী ও আদালতের কাছে জানিয়েছেন আরাবুল বাবু ঐ ঘটনায় দোষী নন”। একথা শুনে সরকারি আইনজীবীকে বিচারক জিজ্ঞাসা করেন আরাবুল বাবুকে জামিন দেওয়া হলে তার কোন আপত্তি আছে কিনা? উত্তরে সরকারি আইনজীবী জানান তার কোন আপত্তি নেই। যদিও অপরপক্ষ অর্থাৎ ভাঙড়ের জমি কমিটির তরফ থেকে দাঁড়ানো আইনজীবী কল্যান চ্যাটার্জি ও সোমনাথ মিস্ত্রী জোর সাওয়াল করেন আরাবুলের জামিনের বিপক্ষে। তারা দাবি করেন, জামিন পেলে আরাবুল তার প্রভাব খাঁটিয়ে এই মামলার গতি প্রকৃতি বদলাতে পারেন। পাশাপাশি তারা আরও বলেন, ইতিমধ্যেই আরাবুলের লোকজন নিহতের স্ত্রীকে কব্জা করে কোর্টে আরাবুলের পক্ষে এভিডেবিট জমা দিতে বাধ্য করিয়েছেন। তাছাড়া এই মামলায় অন্যন্য অভিযুক্তরা এখনো প্রকাশ্যে বাইরে ঘুরলেও তাদের পুলিশ গ্রেফতার করছে না। আরাবুল ইসলামের বিপক্ষের এই আইনজীবীদের সাওয়াল শুনে খানিকক্ষণ আদালত মুলতুবি রেখে বিচারক বেড়িয়ে যান। কিছুক্ষণ বাদে তিনি আদালতে এসে আরাবুল ইসলামের জামিন খারিজ করে দেন। আর এ বিষয়ে আরও ভালো করে তদন্ত করে আদালতে রিপোর্ট জমা দেওয়ার নির্দেশ দেন।   

  

Leave a Reply

avatar
  Subscribe  
Notify of