যেকোন রকম বিজ্ঞাপনের জন্য আমাদের সঙ্গে যোগাযোগের মাধ্যম : amaderbharatdesk@gmail.com    ৩ হাজারের বেশি অ্যান্টি ট্যাংক মিসাইল কিনতে পারে ভারত ফ্রান্স থেকে।     কংগ্রেসের ইস্তেহারে রামমন্দির যুক্ত হলে আমরা তাদের সমর্থনের কথা ভাবতে পারি : ভিএইচপি।    বিজেপির বিরুদ্ধে কংগ্রেসের প্রার্থী হতে পারেন করিনা কাপুর।    মমতা নয় রাহুলকেই নেতা দেখতে চান তারা, ব্রিগেডের পরেই জানালেন তেজস্বী, স্টালিনরা।     একসময় কাগজ কুড়াতেন আজ চণ্ডীগড়ের মেয়র এই বিজেপি নেতা।    ব্রিগেডে খরচের উসুল তুলতে ব্যর্থ তৃণমূল, সোশ্যাল মিডিয়ায় মোদিকে হারিয়েই সন্তুষ্ট।    মালদায় অমিত শাহ-যোগীর সভা সফল করার জন্য বিজেপির তিন প্ল্যান।    ব্রিগেডের সভার বদলে আসানসোলে সভা করবে প্রধানমন্ত্রী, জানালেন দিলীপ ঘোষ।    জম্মু-কাশ্মীরে একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাবে বিজেপি , দাবি রাম মাধবের।    জয়নগরে অমিত শাহের সভার আগেই রাস্তাঘাট তৃণমূলের দখলে।    লোকসভা নির্বাচনকে মাথায় রেখে সফরে জিটিএর প্রতি মুক্তহস্ত মমতা।    ডুয়ার্সে চিতাবাঘের চামড়া সহ আটক পাঁচ চোরাচালানকারী।    আজ আপনার কেমন যাবে জেনে নিন।    বিজেপি নেতার মাতৃবিয়োগে সমবেদনা জানাতে দুর্গাপুরে রাজ্যপাল।


তথ্য প্রযুক্তির যুগে প্রযুক্তি শিক্ষায় অনবদ্য নাম বাঁকুড়া উন্নয়িনী ইনস্টিটিউট অফ ইঞ্জিনিয়ারিং

আমাদের ভারত, বাঁকুড়া, ১১ জুন: উচ্চ মাধ্যমিকের পর ছেলে মেয়েদের উচ্চ শিক্ষার সঠিক পথে চালিত করা অভিভাবকদের কাছে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। বিভিন্ন অপপ্রচার সত্ত্বেও প্রযুক্তিবিদের জীবিকা প্রাপ্তি তুলনামূলক সহজলভ্য হওয়ায় উচ্চশিক্ষার ক্ষেত্রে প্রযুক্তিবিদ্যা আজও অতি পছন্দের বিষয়। শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বাছার ক্ষেত্রে যে বিষয় গুলি দেখে নেওয়া আবশ্যিক সেগুলি হল-
১। প্রতিষ্ঠানের অনুমোদন।
২। উপযুক্ত পরিকাঠামো।
৩। উপযুক্ত শিক্ষকের উপস্থিতি ও পঠনপাঠনের সামগ্রিক পরিবেশ।
৪। প্লেসমেন্ট।
বাঁকুড়া উন্নয়িনী ইনস্টিটিউট অফ ইঞ্জিনিয়ারিং মৌলানা আবুল কালাম আজাদ ইউনিভার্সিটি অফ টেকনোলজি ( MAKAUT ) দ্বারা স্বীকৃত ও AICTE কর্তৃক অনুমোদিত। ১৯৯৮ সালে স্থাপিত এবং উত্তীর্ণ হওয়া সতেরো টি ব্যাচ আজ দেশ-বিদেশে সুপ্রতিষ্ঠিত। বিগত ১৯ বছর ধরে পরিকাঠামোগত সংযোজনের মাধ্যমে এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠান আজ প্রথম সারিতে উন্নীত। উচ্চ শিক্ষিত ও অভিজ্ঞতাসম্পন্ন শতাধিক শিক্ষক ও শিক্ষাকর্মীর আন্তরিক প্রচেষ্টায় তথাকথিত ব্যক্তিমালিকানাধীন ব্যবসা ভিত্তিক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান না হওয়া সত্ত্বেও প্রযুক্তিবিদ্যা দানের ক্ষেত্রে এটি এক সুপরিচিত নাম। বিভিন্ন সময়ে সরকারি সাহায্যপ্রাপ্ত ও সর্বশেষ TEQIP-র মতো সর্বভারতীয় একটি প্রজেক্ট ( যেটি কেন্দ্রীয় সরকার, রাজ্য সরকার ও বিশ্বব্যাংকের সম্মিলিত আর্থিক সহায়তায় প্রযুক্তি শিক্ষার মান উন্নয়নের একটি প্রকল্প ) সফলতার সঙ্গে এখানে রূপায়িত হয়েছে। শিক্ষার উন্নয়নের জন্য পঠন-পাঠনের অনুকূল পরিবেশ গড়ে তোলার উদ্দেশ্যে Interactive Audio-Visual Smart Classrooms, অত্যাধুনিক যন্ত্রপাতি সমৃদ্ধ ল্যাব, চল্লিশ হাজারেরও বেশি বই সম্বলিত Central Library , পুরাতন পাঠক্রমের দুর্বলতা দূরীকরণের জন্য Remedial Class, IIT দ্বারা পরিচালিত QEEE ক্লাস যেখানে IIT-র অধ্যাপকরা সরাসরি ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ক্লাস করান, ৩০০ -র অধিক LAN সংযুক্ত কম্পিউটার সমন্বিত Computer Centre, Communication Skill-র উন্নতিসাধনের জন্য Language Lab যেখানে প্রত্যেক ছাত্রছাত্রী শিক্ষকদের সঙ্গে পৃথকভাবে Communicate করতে পারে। এছাড়া ছাত্রছাত্রীদের পৃথক হোস্টেল, ২৪ ঘন্টার ইন্টারনেট পরিষেবা ,Wi-Fi সম্বলিত কলেজে ক্যাম্পাস , ব্যাংক ও এটিএম পরিষেবা , ২৪ ঘন্টা CCTV তত্ত্বাবধান, ডাক্তার ও এম্বুলেন্স সম্বলিত স্বাস্থ্যপরিষেবা, সংস্কৃতি মনস্কতার বিকাশের জন্য রবীন্দ্রজয়ন্তী, Cultural Fest, প্রযুক্তিশিক্ষার উৎসব Tech-Fest ও জনকল্যাণ মূলক কাজের সঙ্গে সংযুক্তকরণের জন্য NSS প্রভৃতি জীবনধারণের সার্বিক মান উন্নয়নের জন্য উপলব্ধ।

Leave a Reply

avatar
  Subscribe  
Notify of