বিজ্ঞাপনের জন্য আমাদের সঙ্গে যোগাযোগের মাধ্যম : amaderbharatdesk@gmail.com    “ওদেরকে শাস্তি দেওয়ার সময় এসে গেছে” কংগ্রেসকে তোপ যোগগুরু রামদেব বাবার।    রাত পোহালেই রাজ্যে দ্বিতীয় দফায় নির্বাচন।     দার্জিলিং, জলপাইগুড়ি ও রায়গঞ্জ লোকসভা কেন্দ্রে হবে ভোটগ্রহণ।    “টাকার থলি নিয়ে রাস্তায় রাস্তায় ঘুরছে আরএসএসের দালালরা” অভিযোগ মমতার।    সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেলে ছয় মাসের মধ্যেই বিধানসভা ভোট করাব বললেন আলুয়ালিয়া।    ঝাঁটা হাতে কেন্দ্রীয় বাহিনীকে এলাকা ছাড়া করার নিদান রাজ্যের মন্ত্রীর।    কান্দিতে অধীর গড়ে দাঁড়িয়ে কংগ্রেস ও বিজেপিকে তোপ মমতার।    নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার জন্য “ইউনিক কালার কোডিং” ব্যবস্থা।    আরও কড়া হল কমিশন, দুবের মাথায় বসল নতুন পর্যবেক্ষক।    অমিত, যোগীর জোড়া ফলায় মমতাকে ঘায়েলের চেষ্টা বিজেপির।    জয়ের প্রচারে আমতায় রাজনাথ সিং।    ঘাটালে একা কুম্ভ ভারতী।    আজ আপনার কেমন যাবে জেনে নিন।    ভোটের দিনগুলোয় কেন্দ্রীয় নেতাদের এনে কিস্তিমাত করতে কৌশল বিজেপির।


সংখ্যালঘু তোষনই কি রাজ্য-রাজনীতির মূলধন !

মধুকল্পিতা চৌধুরী দাস :

রাজনীতি-ধর্ম, এই শব্দ দুটি প্রায় সমান ভাবেই উচ্চারিত হয়। দশকের পর দশক সমান ভাবেই উচ্চারিত হচ্ছে। এরাজেও তার ব্যতিক্রম নয়। রাজনীতির স্বার্থে একটি বিশেষ ধর্ম বা সম্প্রদায়কে ব্যবহার করার প্রবণতা এরাজ্যেও কম নয়। সম্প্রতি যাদবপুর লোকসভা কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী মিমি চক্রবর্তী বলেন, ভোটের দিন তিনি রমজানের উপোস রাখবেন। এ প্রসঙ্গে রাজনৈতিক বিশ্লেষক রাজ মিত্র বলেন, ‘ধর্ম নিয়ে রাজনীতি এ দেশে প্রথম নয়। কেউ খোলাখুলি করত, আবার কেউ রাখঢাক রেখে করত। এর সব থেকে বড় উদাহরণ।’
এ প্রসঙ্গে বিশিষ্ট সাংবাদিক সুজিত রায় বলেন, ‘ভারতবর্ষ ভাগ হয়েছিল ধর্মের ভিত্তিতে। ভারতবর্ষ ভাগ হয়েই ভারত ও পাকিস্থান হয়েছিল।’
ধর্মের ওপর ভর করে যে এ দেশে রাজনীতি চলছে তা আমি বা আপনি নয় তা বলছে ইতিহাস।
একটি বিশেষ ধর্ম বা সম্প্রদায়কে নিয়ে রাজনীতি সাধারণ মানুষের ওপর কতটা প্রভাব ফেলবে তা তো ‘ভোটের রেজাল্টেই’ বোঝা যাবে।

Leave a Reply

avatar
  Subscribe  
Notify of