১৩ শিশুর মৃত্যুর কারণ মোবাইল ফোন।    কাশ্মীরের মুখ‍্যমন্ত্রীকে জেহাদি বললেন কাঠুয়াকান্ডে অভিযুক্তদের আইনজীবী।    ১৪ মে বাংলায় পঞ্চায়েত নির্বাচন, ১৭ মে গণনা! অবশেষে দিন ঘোষণা নির্বাচন কমিশনের।    টিকিট দেয়নি দল, তৃণমূল ছেড়ে কংগ্রেসে যোগ দুবারের বিজয়ী লড়াকু প্রার্থীর।    ‘গণতন্ত্রকে বলি দিয়ে, সংবিধানকে কচু কাটা করে কী প্রয়োজন এই ভোটের?’ প্রশ্ন তুললেন প্রাক্তন বিচারপতি অশোক গঙ্গোপাধ্যায়।    পঞ্চায়েত ভোটে ‘বিজেপির জয়ের কলঙ্ক’ থেকে পশ্চিমবঙ্গকে মুক্ত রাখার ডাক বুদ্ধের।    চার্জ দেওয়া অবস্থায় মোবাইল ফোনে কথা বলতে গিয়ে মৃত্যু কিশোরের।     পঞ্চায়েত নির্বাচনের দিন ঘোষনা হওয়ার খুশি মুখ্যমন্ত্রী।    একদফা ভোট নিয়ে বিজেপির কোনও আপত্তি নেই।    অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনের দাবিতে অবস্থানে বসবে বামেরা : বিমান বসু।    নারকেলডাঙার রাজাবাজারে মিলল ২০ হাজার কেজি ভাগাড়ের মাংস, শহর জুড়ে তল্লাশি।    আপনার এ সপ্তাহ কেমন যাবে জেনে নিন আমাদের সাপ্তাহিক রাশিফল থেকে।
BREAKING NEWS:
  • ভোটের দিন ঘোষনা হল।
  • সারা রাজ্যে 14 মে একদফায় ভোট।
  • ভোটে নিরাপত্তা নিয়ে প্রশ্ন বিরোধীদের।
  • পঞ্চায়েত ভোট গননা 17 মে।
{"effect":"slide-h","fontstyle":"normal","autoplay":"true","timer":4000}


বিজেপি যুবমোর্চার মিছিলে হামলার ঘটনায় প্রভাব  রাজ্যের শিল্প সন্মেলনে, বয়কট কেন্দ্রের

আমাদের ভারত, কলকাতা, ১২ জানুয়ারি: বিজেপি যুব মোর্চার মিছিলে হামলার প্রভাব পড়ল রাজ্যের শিল্প সন্মেলনে। রাজ্যের ডাকা শিল্প সন্মেলনকে বয়কট করল কেন্দ্রীয় সরকার।
এই শিল্প সন্মেলনে আসার কথা ছিল কেন্দ্রীয় মন্ত্রী নিতীন গড়করির। তিনি জানিয়েছেন, রাজ্যের ডাকা শিল্প সন্মেলনে তাঁর অাসা সম্ভব নয়। দলের কর্মীরা শাসক দলের হাতে অাক্রান্ত হচ্ছেন। পুলিশ নীরব দর্শকের মতো সবকিছু দেখছে। রাজ্যে গণতন্ত্র বলে কিছু নেই। গণতন্ত্রের পরিবেশ অাগে রাজ্য ফেরাক, তারপর না হয় রাজ্যের ডাকা অনুষ্ঠানে অাসব, বলে জানান কেন্দ্রীয় সড়ক মন্ত্রী। বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষকে রাজ্য সরকারের অনুষ্ঠান বয়কটের কথা জানিয়েছেন তিনি।
বাইক মিছিল নিয়ে গোটা ঘটনার কথা জানতে চেয়ে সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ ফোন করেন দিলীপ ঘোষকে। তাদের মধ্যে দশ মিনিট কথা হয়। বিজেপির রাজ্য সভাপতি জানান, কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব রাজ্য বিজেপির পাশে অাছে বলে অমিত শাহ জানিয়েছেন। এমনকি দলের অাহত কর্মীদের পাশে থাকবার কথা জানিয়েছেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি। দলের কর্মীদের উপর হামলার প্রতিবাদে বিজেপি নেতৃত্ব গান্ধীমূর্তির পাদদেশে বসেন। মুখে কালো কাপড় বেঁধে বিজেপি প্রতিবাদ জানান। বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ, কেন্দ্রীয় মন্ত্রী অর্জুনরাম মেঘাওয়াল, মুকুল রায় উপস্থিত ছিলেন।

loading...

Leave a Reply

Be the First to Comment!

avatar
  Subscribe  
Notify of