যেকোন রকম বিজ্ঞাপনের জন্য আমাদের সঙ্গে যোগাযোগের মাধ্যম : amaderbharatdesk@gmail.com    ৩ হাজারের বেশি অ্যান্টি ট্যাংক মিসাইল কিনতে পারে ভারত ফ্রান্স থেকে।     কংগ্রেসের ইস্তেহারে রামমন্দির যুক্ত হলে আমরা তাদের সমর্থনের কথা ভাবতে পারি : ভিএইচপি।    বিজেপির বিরুদ্ধে কংগ্রেসের প্রার্থী হতে পারেন করিনা কাপুর।    মমতা নয় রাহুলকেই নেতা দেখতে চান তারা, ব্রিগেডের পরেই জানালেন তেজস্বী, স্টালিনরা।     একসময় কাগজ কুড়াতেন আজ চণ্ডীগড়ের মেয়র এই বিজেপি নেতা।    ব্রিগেডে খরচের উসুল তুলতে ব্যর্থ তৃণমূল, সোশ্যাল মিডিয়ায় মোদিকে হারিয়েই সন্তুষ্ট।    মালদায় অমিত শাহ-যোগীর সভা সফল করার জন্য বিজেপির তিন প্ল্যান।    ব্রিগেডের সভার বদলে আসানসোলে সভা করবে প্রধানমন্ত্রী, জানালেন দিলীপ ঘোষ।    জম্মু-কাশ্মীরে একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাবে বিজেপি , দাবি রাম মাধবের।    জয়নগরে অমিত শাহের সভার আগেই রাস্তাঘাট তৃণমূলের দখলে।    লোকসভা নির্বাচনকে মাথায় রেখে সফরে জিটিএর প্রতি মুক্তহস্ত মমতা।    ডুয়ার্সে চিতাবাঘের চামড়া সহ আটক পাঁচ চোরাচালানকারী।    আজ আপনার কেমন যাবে জেনে নিন।    বিজেপি নেতার মাতৃবিয়োগে সমবেদনা জানাতে দুর্গাপুরে রাজ্যপাল।


বিজেপি যুবমোর্চার মিছিলে হামলার ঘটনায় প্রভাব  রাজ্যের শিল্প সন্মেলনে, বয়কট কেন্দ্রের

আমাদের ভারত, কলকাতা, ১২ জানুয়ারি: বিজেপি যুব মোর্চার মিছিলে হামলার প্রভাব পড়ল রাজ্যের শিল্প সন্মেলনে। রাজ্যের ডাকা শিল্প সন্মেলনকে বয়কট করল কেন্দ্রীয় সরকার।
এই শিল্প সন্মেলনে আসার কথা ছিল কেন্দ্রীয় মন্ত্রী নিতীন গড়করির। তিনি জানিয়েছেন, রাজ্যের ডাকা শিল্প সন্মেলনে তাঁর অাসা সম্ভব নয়। দলের কর্মীরা শাসক দলের হাতে অাক্রান্ত হচ্ছেন। পুলিশ নীরব দর্শকের মতো সবকিছু দেখছে। রাজ্যে গণতন্ত্র বলে কিছু নেই। গণতন্ত্রের পরিবেশ অাগে রাজ্য ফেরাক, তারপর না হয় রাজ্যের ডাকা অনুষ্ঠানে অাসব, বলে জানান কেন্দ্রীয় সড়ক মন্ত্রী। বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষকে রাজ্য সরকারের অনুষ্ঠান বয়কটের কথা জানিয়েছেন তিনি।
বাইক মিছিল নিয়ে গোটা ঘটনার কথা জানতে চেয়ে সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ ফোন করেন দিলীপ ঘোষকে। তাদের মধ্যে দশ মিনিট কথা হয়। বিজেপির রাজ্য সভাপতি জানান, কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব রাজ্য বিজেপির পাশে অাছে বলে অমিত শাহ জানিয়েছেন। এমনকি দলের অাহত কর্মীদের পাশে থাকবার কথা জানিয়েছেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি। দলের কর্মীদের উপর হামলার প্রতিবাদে বিজেপি নেতৃত্ব গান্ধীমূর্তির পাদদেশে বসেন। মুখে কালো কাপড় বেঁধে বিজেপি প্রতিবাদ জানান। বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ, কেন্দ্রীয় মন্ত্রী অর্জুনরাম মেঘাওয়াল, মুকুল রায় উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

avatar
  Subscribe  
Notify of