বিজ্ঞাপনের জন্য আমাদের সঙ্গে যোগাযোগের মাধ্যম : amaderbharatdesk@gmail.com    ১৯শেই সাফ তৃণমূল : মোদী।    চিটফান্ড কেলেঙ্কারিতে জেলে যাবেন পার্থ : কৈলাশ বিজয়বর্গীয়    আমি বিজেপির ভয়ানক বিরোধী, কিন্তু এটা উকিলের চোখে ধরা পড়ছে মূর্তি টিএমসিপি ভেঙেছে : অরুণাভ ঘোষ।    মুখ্যমন্ত্রীর প্ররোচনায় নরসংহার শুরু করতে পারে তৃণমূল, রাজ্যে কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েনের দাবি বিজেপির।    তৃণমূল বিদ্যাসাগরের মূর্তি যে ভেঙ্গেছে সেখানে পঞ্চ ধাতুর মূর্তি বানিয়ে দেব : ঘোষণা মোদীর।    সারদা নরদা নিয়ে বড় বড় কথা আর চিটফান্ডের মালিকের মাঠে সভা করছে প্রধানমন্ত্রী : মমতা।    কমিশনের নির্দেশ অমান্য ! স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকে গরহাজির রাজীব কুমার।    এবার লালবাজারে ডাকা হতে পারেন অমিত শাহকে!    ক্ষুব্ধ ঝাড়গ্রামের নীরব অপেক্ষা ফলাফলের জন্য।    “নারী শিক্ষার দিশারীকে ভূ-লুন্ঠিত হতে হল বাঙালীদের হাতে, এর থেকে লজ্জা কি আছে?”: ক্ষোভ বীরসিংহবাসীর।    রানাঘাটের মত নিশ্চিত আসনেও সিঁদুরে মেঘ দেখছে তৃণমূল।    মহামিছিল করে ভাটপাড়ায় প্রচার শেষ করতে চান মদন।    আজ আপনার কেমন যাবে জেনে নিন।    নির্বাচনের আগে ভোট পরিস্থিতি খতিয়ে দেখলেন বিশেষ পুলিশ পর্যবেক্ষক বিবেক দুবে।


মীরা কুণ্ডু স্মৃতিরক্ষা কমিটির দু’দিনের রক্তদান শিবির

চিন্ময় ভট্টাচার্য

আমাদের ভারত, ৫ মে: মাত্র পাঁচ ঘণ্টা। তার মধ্যেই ঘোলা মীরা কুণ্ডু স্মৃতিরক্ষা কমিটির শিবিরে রক্তদান করলেন ১১৬ জন। দেড় দিন শেষে রক্তদাতার সংখ্যাটা দাঁড়াল পাঁচশোর কাছাকাছি। তা-ও কোনও উপহার ছাড়াই। নানা উপহার দিয়েও বিভিন্ন সংগঠন যখন রক্তদাতা জোগাড় করতে হিমশিম খায়, তখন ঘোলা মীরা কুণ্ডু স্মৃতিরক্ষা কমিটির এই সাফল্য রীতিমতো নজর কেড়েছে সব মহলের।

সংস্থার প্রাণপুরুষ দীপককুমার কুণ্ডু জানিয়েছেন, রক্তদান জীবনদান। এই ব্রতকে সামনে রেখেই এগিয়ে চলেছে এই সংগঠন। তাতেই মিলেছে সাফল্য। গত ২৭ বছরের অক্লান্ত চেষ্টায় এই সংগঠনের সদস্যরা রক্তদানকে এক উৎসবে পরিণত করেছেন। রক্তদান সম্পর্কে সচেতনতা গড়ে তোলার পাশাপাশি, সেবাকাজ এই সংস্থাকে শুধু ঘোলা নয়, গোটা রাজ্যে এক অনন্য স্থানে তুলে ধরেছে।

প্রতি রবিবার এই সংস্থা চিকিৎসা শিবিরের আয়োজন করে। চিকিৎসকরা দেখার পর, তাঁদের লেখা প্রেসক্রিপশন অনুযায়ী ওষুধ এখান থেকেই দেওয়া হয়। এই সব কিছুর জন্য রোগীদের জনপ্রতি মাত্র ১০ টাকা করে দিতে হয়। প্রতি রবিবার এই সুবিধায় চিকিৎসককে দেখাতে এবং ওষুধ নিতে এখানে ৬০ থেকে ৭০ জন রোগী আসেন। আর এসব, এই সংগঠনকে অনন্য করে তুলেছে।

Leave a Reply

avatar
  Subscribe  
Notify of