যেকোন খবরের জন্য আমাদের সঙ্গে যোগাযোগের মাধ্যম : amaderbharatnews@gmail.com    ফ্রিতে ৫০ লাখ স্মার্টফোন আর জিও সিম।    ফেসবুকে মুখ্যমন্ত্রীর অশালীন ছবি প্রচার,  গ্রেফতার শালবনীর যুবক।    “তৃণমূল বিরোধী শূন্য পঞ্চায়েত গড়তে চাইছে বলেই এত গণ্ডগোল”, বললেন দিলীপ ঘোষ।    আমডাঙা কাণ্ডে রাজস্থান থেকে গ্রেফতার সিপিএম নেতা জাকির।    এবার ভেঙে খসে পড়তে শুরু করল জ্বলন্ত বাগরি মার্কেট।    বীরভূমে আদিবাসী ছাত্রীর ধর্ষণের ঘটনায় ধর্ষকের দ্রুত বিচার চাইলেন লকেট।    তিন সপ্তাহের মধ্যে এসএসসির সম্পূর্ণ মেধাতালিকা প্রকাশের নির্দেশ হাইকোর্টের।    সারদা মামলায় বিধাননগরের প্রাক্তন গোয়েন্দা কর্তা অর্ণব ঘোষকে তলব সিবিআইয়ের।    বাগরি মার্কেটের সিঁড়ি, বাথরুমও ব্যবসায় লিজ, জার্মানি থেকেও ক্ষোভ মুখ্যমন্ত্রীর।    বালুরঘাটে কাজের দিনেও সরকারি অফিসে মদ-মাংসের আসর, আতঙ্কিত দপ্তরের এক মহিলা কর্মী।    হিলিতে ভোগের খিচুড়ির ভাগাভাগি নিয়ে সিভিক ভলান্টিয়ারকে বেধড়ক মার এনভিএফের।    কুলতলিতে রোগী মৃত্যুকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা, প্রহৃত চিকিৎসক।    আজ আপনার কেমন যাবে জেনে নিন।    দেড়বছর পর জামিন পেলেন উদ্বাস্তু আন্দোলনের নেতা সুবোধ বিশ্বাস।    ডিভোর্স না দেওয়ায় স্ত্রীকে খুনের চেষ্টা চিকিৎসক স্বামীর, গ্রেফতার অভিযুক্ত।    গোর্খাল্যান্ডের দাবিতে পাহাড়ে ফের পোস্টার, সিঁদুরে মেঘ দেখছে পাহাড়বাসী।    দিলীপ ঘোষের উপর হামলার প্রতিবাদে রাজ্যজুড়ে পথ অবরোধ কর্মসূচি বিজেপির।    হোয়াটসঅ্যাপে খুব গুরুত্বপূর্ণ তিনটি পরিবর্তন হতে চলেছে।    এবার ভাঁজ করে রাখতে পারবেন আপনার স্মার্টফোন।
BREAKING NEWS:
  • বিজেপি রাজ্যসভাপতি দিলীপ ঘোষ
  • আক্রান্ত। গাড়ি ভাঙচুর।
  • কর্মী সহ বিজেপি ছাড়লেন লক্ষ্মণ শেঠ
  • কলকাতার বাগরি মার্কেটে আগুন
  • দীর্ঘ সময় পরও জ্বলছে আগুন
  • দমকলের ৩০টি ইঞ্জিন আগুন নেভাচ্ছে
{"effect":"slide-h","fontstyle":"normal","autoplay":"true","timer":4000}


গঙ্গাজল বোতলে করে বৈতরণী পার করছে ডাক বিভাগ

আমাদের ভারত ডেস্ক,৮সেপ্টম্বর : পুজো করতে বসেছেন আর দেখলেন গঙ্গাজল নেই। ভাবছেন কি করবেন। চিন্তা নেই কাছের পোস্ট অফিসে পেয়ে যাবেন গঙ্গাজল। ৫০০ মিলি গঙ্গাজলের বোতলের দাম মাত্র ২২ টাকা। হৃষিকেশ কিংবা গঙ্গোত্রীর এই ‘পবিত্র গঙ্গাজল’ বিক্রি করে লাভের মুখ দেখছে ভারতীয় ডাক বিভাগ। বিক্রিও হচ্ছে ভাল। এমনকি চাইলে এখন থেকে গঙ্গাজল ডাকযোগে বাড়ি বসে কেনা যাচ্ছে, যা ভারতের যে কোনো জায়গায় ঘরেও পৌঁছে যাবে।

প্রসঙ্গত, গঙ্গা নদী হিন্দুদের কাছে অত্যন্ত পবিত্র। পূজো তবে ডাকযোগে শুধু গঙ্গাজলই নয়, সারাদেশের বিখ্যাত মন্দিরগুলোর পূজার প্রসাদও এখন থেকে কেনা যাচ্ছে। প্রতিযোগিতার মুখে পড়ে ডাকবিভাগকে তুলে ধরতে নানা পদক্ষেপ করছে নিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। তারই সংযোজন পোস্ট অফিসে গঙ্গাজল বিক্রি। ফলে গঙ্গাজলের খোঁজে দৌড়ঝাঁপ, পাড়া-প্রতিবেশীর উপরে নির্ভর করার দিন শেষ। আপাতত, এলাকার পোস্ট অফিসে গেলেই পাবেন হৃষিকেশের বিশুদ্ধ গঙ্গাজল।
সামনেই পুজোর মরসুম। দশ দিন ধরে চলবে দেবী দুর্গার আরাধনা। তাঁর পর কালী পুজো, কোজাগরী লক্ষী পুজো, ছট পুজো। সব পুজোরই অবিচ্ছেদ্য অঙ্গ গঙ্গা জল। ফলে পুজো মরসুমে গঙ্গা জল বিক্রি করে ভালই লাভের আশায় রয়েছে ডাক বিভাগ। এমনিতেই প্রতিদিন দুই থেকে তিন বোতল  বিক্রি করে ডাকঘর। ভারতে ১লক্ষ‍ ৫৪ হাজার  ৮৮২ ডাকঘর। প্রতিটি ডাকঘর পিছু মাত্র দুটি বোতল দিনে বিক্রি হলেও সেই অঙ্ক দাঁড়ায় ৬৮ লক্ষ ১৪ হাজার ৮০৮ টাকা দৈনিক। ফলে এই বিপুল লাভে উচ্ছ্বসিত খোদ ডাক বিভাগ।

Leave a Reply

avatar
  Subscribe  
Notify of