যেকোন রকম বিজ্ঞাপনের জন্য আমাদের সঙ্গে যোগাযোগের মাধ্যম : amaderbharatdesk@gmail.com    ৩ হাজারের বেশি অ্যান্টি ট্যাংক মিসাইল কিনতে পারে ভারত ফ্রান্স থেকে।     কংগ্রেসের ইস্তেহারে রামমন্দির যুক্ত হলে আমরা তাদের সমর্থনের কথা ভাবতে পারি : ভিএইচপি।    বিজেপির বিরুদ্ধে কংগ্রেসের প্রার্থী হতে পারেন করিনা কাপুর।    মমতা নয় রাহুলকেই নেতা দেখতে চান তারা, ব্রিগেডের পরেই জানালেন তেজস্বী, স্টালিনরা।     একসময় কাগজ কুড়াতেন আজ চণ্ডীগড়ের মেয়র এই বিজেপি নেতা।    ব্রিগেডে খরচের উসুল তুলতে ব্যর্থ তৃণমূল, সোশ্যাল মিডিয়ায় মোদিকে হারিয়েই সন্তুষ্ট।    মালদায় অমিত শাহ-যোগীর সভা সফল করার জন্য বিজেপির তিন প্ল্যান।    ব্রিগেডের সভার বদলে আসানসোলে সভা করবে প্রধানমন্ত্রী, জানালেন দিলীপ ঘোষ।    জম্মু-কাশ্মীরে একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাবে বিজেপি , দাবি রাম মাধবের।    জয়নগরে অমিত শাহের সভার আগেই রাস্তাঘাট তৃণমূলের দখলে।    লোকসভা নির্বাচনকে মাথায় রেখে সফরে জিটিএর প্রতি মুক্তহস্ত মমতা।    ডুয়ার্সে চিতাবাঘের চামড়া সহ আটক পাঁচ চোরাচালানকারী।    আজ আপনার কেমন যাবে জেনে নিন।    বিজেপি নেতার মাতৃবিয়োগে সমবেদনা জানাতে দুর্গাপুরে রাজ্যপাল।


ঠান্ডা ও শৈতপ্রবাহে ক্ষতির মুখে মালদার পান চাষ

আমাদের ভারত, মালদা, ১১ জানুয়ারি : তীব্র ঠান্ডা ও শৈতপ্রবাহে ব্যাপক ক্ষতির মুখে মালদার পান চাষ। এখনো পর্যন্ত কয়েক লক্ষ টাকার ক্ষতি হয়ে গিয়েছে। মাথায় হাত পড়েছে চাষীদের। কিভাবে তারা চাষ করার জন্য নেওয়া ঋণ শোধ করবে তা বুঝতে পারছে না। বাধ্য হয়ে এবার প্রশাসনের দ্বারস্থ হয়েছে কয়েকশো পান চাষী। প্রশাসনের পক্ষ থেকেও ব্যবস্থা নেওয়ার আস্বাস দেওয়া হয়েছে।
মালদা জেলায় পুরাতন মালদার মুচিয়া, চাঁচোল, হরিশ্চন্দ্রপুর ব্লক গুলিতে পান চাষ হয়। এই বছর জেলার ১৮০ হেক্টর জমিতে পান চাষ হয়েছে। এই পান শিলিগুড়ি কলকাতা সহ অন্যান্য রাজ্য ও বাংলাদেশে রপ্তানী করা হয়। চাষীরা জানান, তীব্র ঠান্ডা তার সাথে পাল্লা দিয়ে শৈতপ্রবাহ ও কুয়াশার ফলে গাছ থেকে পাতা খসে পরছে। যতটুকু পান গাছে আছে তাও নষ্ট হয়ে গেছে। যা বাজারে বিক্রী হবে না। অনেক পানচাষী ব্যাঙ্ক থেকে ও স্থানীয় মহাজনদের কাছ থেকে চাষ করার জন্য ঋন নিয়েছেন। সেই ঋণ কিভাবে শোধ করবে ও আগামী দিনে এই ক্ষতির পর পান চাষ করবে কিনা তাই নিয়ে সংশয় প্রকাশ করেছে চাষীরা। এখনি যদি সরকার পাশে না দাঁড়ায় তাহলে এই চাষ বন্ধ করে চাষীদের ভিন রাজ্যে শ্রমিকের কাজ করতে যাওয়া ছাড়া উপায় থাকবে না বলে তাদের দাবি।
জেলা উদ্যানপালন বিভাগের আধিকারিক রাহুল চক্রবর্তী চাষীদের পাশে থাকা যাবতীয় যথাযোগ্য ব্যবস্থা নেওয়ার আস্বাস দিয়েছে।

Leave a Reply

avatar
  Subscribe  
Notify of