১৩ শিশুর মৃত্যুর কারণ মোবাইল ফোন।    কাশ্মীরের মুখ‍্যমন্ত্রীকে জেহাদি বললেন কাঠুয়াকান্ডে অভিযুক্তদের আইনজীবী।    ১৪ মে বাংলায় পঞ্চায়েত নির্বাচন, ১৭ মে গণনা! অবশেষে দিন ঘোষণা নির্বাচন কমিশনের।    টিকিট দেয়নি দল, তৃণমূল ছেড়ে কংগ্রেসে যোগ দুবারের বিজয়ী লড়াকু প্রার্থীর।    ‘গণতন্ত্রকে বলি দিয়ে, সংবিধানকে কচু কাটা করে কী প্রয়োজন এই ভোটের?’ প্রশ্ন তুললেন প্রাক্তন বিচারপতি অশোক গঙ্গোপাধ্যায়।    পঞ্চায়েত ভোটে ‘বিজেপির জয়ের কলঙ্ক’ থেকে পশ্চিমবঙ্গকে মুক্ত রাখার ডাক বুদ্ধের।    চার্জ দেওয়া অবস্থায় মোবাইল ফোনে কথা বলতে গিয়ে মৃত্যু কিশোরের।     পঞ্চায়েত নির্বাচনের দিন ঘোষনা হওয়ার খুশি মুখ্যমন্ত্রী।    একদফা ভোট নিয়ে বিজেপির কোনও আপত্তি নেই।    অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনের দাবিতে অবস্থানে বসবে বামেরা : বিমান বসু।    নারকেলডাঙার রাজাবাজারে মিলল ২০ হাজার কেজি ভাগাড়ের মাংস, শহর জুড়ে তল্লাশি।    আপনার এ সপ্তাহ কেমন যাবে জেনে নিন আমাদের সাপ্তাহিক রাশিফল থেকে।
BREAKING NEWS:
  • ভোটের দিন ঘোষনা হল।
  • সারা রাজ্যে 14 মে একদফায় ভোট।
  • ভোটে নিরাপত্তা নিয়ে প্রশ্ন বিরোধীদের।
  • পঞ্চায়েত ভোট গননা 17 মে।
{"effect":"slide-h","fontstyle":"normal","autoplay":"true","timer":4000}


ঠান্ডা ও শৈতপ্রবাহে ক্ষতির মুখে মালদার পান চাষ

আমাদের ভারত, মালদা, ১১ জানুয়ারি : তীব্র ঠান্ডা ও শৈতপ্রবাহে ব্যাপক ক্ষতির মুখে মালদার পান চাষ। এখনো পর্যন্ত কয়েক লক্ষ টাকার ক্ষতি হয়ে গিয়েছে। মাথায় হাত পড়েছে চাষীদের। কিভাবে তারা চাষ করার জন্য নেওয়া ঋণ শোধ করবে তা বুঝতে পারছে না। বাধ্য হয়ে এবার প্রশাসনের দ্বারস্থ হয়েছে কয়েকশো পান চাষী। প্রশাসনের পক্ষ থেকেও ব্যবস্থা নেওয়ার আস্বাস দেওয়া হয়েছে।
মালদা জেলায় পুরাতন মালদার মুচিয়া, চাঁচোল, হরিশ্চন্দ্রপুর ব্লক গুলিতে পান চাষ হয়। এই বছর জেলার ১৮০ হেক্টর জমিতে পান চাষ হয়েছে। এই পান শিলিগুড়ি কলকাতা সহ অন্যান্য রাজ্য ও বাংলাদেশে রপ্তানী করা হয়। চাষীরা জানান, তীব্র ঠান্ডা তার সাথে পাল্লা দিয়ে শৈতপ্রবাহ ও কুয়াশার ফলে গাছ থেকে পাতা খসে পরছে। যতটুকু পান গাছে আছে তাও নষ্ট হয়ে গেছে। যা বাজারে বিক্রী হবে না। অনেক পানচাষী ব্যাঙ্ক থেকে ও স্থানীয় মহাজনদের কাছ থেকে চাষ করার জন্য ঋন নিয়েছেন। সেই ঋণ কিভাবে শোধ করবে ও আগামী দিনে এই ক্ষতির পর পান চাষ করবে কিনা তাই নিয়ে সংশয় প্রকাশ করেছে চাষীরা। এখনি যদি সরকার পাশে না দাঁড়ায় তাহলে এই চাষ বন্ধ করে চাষীদের ভিন রাজ্যে শ্রমিকের কাজ করতে যাওয়া ছাড়া উপায় থাকবে না বলে তাদের দাবি।
জেলা উদ্যানপালন বিভাগের আধিকারিক রাহুল চক্রবর্তী চাষীদের পাশে থাকা যাবতীয় যথাযোগ্য ব্যবস্থা নেওয়ার আস্বাস দিয়েছে।

loading...

Leave a Reply

Be the First to Comment!

avatar
  Subscribe  
Notify of