বিজ্ঞাপনের জন্য আমাদের সঙ্গে যোগাযোগের মাধ্যম : amaderbharatdesk@gmail.com    “ওদেরকে শাস্তি দেওয়ার সময় এসে গেছে” কংগ্রেসকে তোপ যোগগুরু রামদেব বাবার।    রাত পোহালেই রাজ্যে দ্বিতীয় দফায় নির্বাচন।     দার্জিলিং, জলপাইগুড়ি ও রায়গঞ্জ লোকসভা কেন্দ্রে হবে ভোটগ্রহণ।    “টাকার থলি নিয়ে রাস্তায় রাস্তায় ঘুরছে আরএসএসের দালালরা” অভিযোগ মমতার।    সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেলে ছয় মাসের মধ্যেই বিধানসভা ভোট করাব বললেন আলুয়ালিয়া।    ঝাঁটা হাতে কেন্দ্রীয় বাহিনীকে এলাকা ছাড়া করার নিদান রাজ্যের মন্ত্রীর।    কান্দিতে অধীর গড়ে দাঁড়িয়ে কংগ্রেস ও বিজেপিকে তোপ মমতার।    নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার জন্য “ইউনিক কালার কোডিং” ব্যবস্থা।    আরও কড়া হল কমিশন, দুবের মাথায় বসল নতুন পর্যবেক্ষক।    অমিত, যোগীর জোড়া ফলায় মমতাকে ঘায়েলের চেষ্টা বিজেপির।    জয়ের প্রচারে আমতায় রাজনাথ সিং।    ঘাটালে একা কুম্ভ ভারতী।    আজ আপনার কেমন যাবে জেনে নিন।    ভোটের দিনগুলোয় কেন্দ্রীয় নেতাদের এনে কিস্তিমাত করতে কৌশল বিজেপির।


রাজ্যে ধর্মান্তরকরণ নিয়ে উদ্বিগ্ন ধর্ম জাগরণ সমন্বয়

আমাদের ভারত, বর্ধমান, ১ এপ্রিল: রাজ্যে ধর্মান্তরকরণ নিয়ে উদ্বিগ্ন আরএসএসের শাখা সংগঠন ধর্মজাগরণ সমন্বয়। পূর্ব বর্ধমানের বাগনাপাড়ায় তাদের দু’দিনের বিশেষ শিবিরে হিন্দু ধর্ম থেকে অন্য ধর্মে চলে যাওয়া নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন বিভিন্ন বক্তা।
শনিবার বাগনাপাড়ার গাঙ্গুলি ভবনে ধর্ম জাগরণ সমন্বয়ের দু’দিনের শিবির শুরু হয়। এই শিবিরে বাছাই করা ৩৫ জন সদস্য যোগ দিয়েছিলেন। শিবিরে বিভিন্ন বক্তা বলেন, এই রাজ্যে অনেকেই নানা প্রলোভনে ধর্মান্তরিত হচ্ছে। এর ফলে হিন্দুধর্ম একটা চ্যালেঞ্জের মুখে পড়েছে। অন্য ধর্মে চলে যাওয়া আটকাতে কী কী করণীয় তা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়েছে বলে বিশেষ সূত্রে জানা গিয়েছে। অন্য ধর্মে যাওয়া আটকাতে প্রচারের ওপর জোর দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি যারা অন্য ধর্ম গ্রহন করেছেন তাদের বুঝিয়ে কী ভাবে হিন্দু ধর্মে ফিরিয়ে আনা যায় তার রূপরেখাও তৈরি করা হয়েছে। এজন্য পরাবর্তন( ঘরওয়াপসি)-এর ওপর জোর দেওয়া হয়েছে।
দু’ দিনের এই শিবির রবিবার শেষ হয়। এই শিবিরে বেশ কিছু মঠমন্দিরের সাধুসন্ত বক্তব্য রাখেন। শিবিরে উপস্থিত ছিলেন, আরএসএসের শাখা সংগঠন প্রজ্ঞাভারতীর ক্ষেত্রীয় সংগঠন সম্পাদক অরবিন্দ দাস, ধর্ম জাগরণ সমন্বয়ের প্রান্তপ্রমূখ বিশ্বনাথ সাহা, ভান্ডারডিহি তপোবন আশ্রমের সন্ন্যাসী স্বামী সোমনাথ ব্রহ্মচারী, অগ্রদ্বীপের কপিলমুনি আশ্রমের সন্ন্যাসী হিরন্ময় ব্রহ্মচারী এবং বিশিষ্ট সমাজসেবী ননীগোপাল সিংহ।

Leave a Reply

avatar
  Subscribe  
Notify of