যেকোন রকম বিজ্ঞাপনের জন্য আমাদের সঙ্গে যোগাযোগের মাধ্যম : amaderbharatdesk@gmail.com    ৩ হাজারের বেশি অ্যান্টি ট্যাংক মিসাইল কিনতে পারে ভারত ফ্রান্স থেকে।     কংগ্রেসের ইস্তেহারে রামমন্দির যুক্ত হলে আমরা তাদের সমর্থনের কথা ভাবতে পারি : ভিএইচপি।    বিজেপির বিরুদ্ধে কংগ্রেসের প্রার্থী হতে পারেন করিনা কাপুর।    মমতা নয় রাহুলকেই নেতা দেখতে চান তারা, ব্রিগেডের পরেই জানালেন তেজস্বী, স্টালিনরা।     একসময় কাগজ কুড়াতেন আজ চণ্ডীগড়ের মেয়র এই বিজেপি নেতা।    ব্রিগেডে খরচের উসুল তুলতে ব্যর্থ তৃণমূল, সোশ্যাল মিডিয়ায় মোদিকে হারিয়েই সন্তুষ্ট।    মালদায় অমিত শাহ-যোগীর সভা সফল করার জন্য বিজেপির তিন প্ল্যান।    ব্রিগেডের সভার বদলে আসানসোলে সভা করবে প্রধানমন্ত্রী, জানালেন দিলীপ ঘোষ।    জম্মু-কাশ্মীরে একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাবে বিজেপি , দাবি রাম মাধবের।    জয়নগরে অমিত শাহের সভার আগেই রাস্তাঘাট তৃণমূলের দখলে।    লোকসভা নির্বাচনকে মাথায় রেখে সফরে জিটিএর প্রতি মুক্তহস্ত মমতা।    ডুয়ার্সে চিতাবাঘের চামড়া সহ আটক পাঁচ চোরাচালানকারী।    আজ আপনার কেমন যাবে জেনে নিন।    বিজেপি নেতার মাতৃবিয়োগে সমবেদনা জানাতে দুর্গাপুরে রাজ্যপাল।


জাতীয় স্তরের প্রাক্তন দাবাড়ুর বিরুদ্ধে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে সহবাসের অভিযোগ

আমাদের ভারত, গড়িয়া, ১৩ জুন: প্রতিশ্রুতি দিয়ে সহবাসের অভিযোগ উঠল জাতীয় স্তরের এক প্রাক্তন দাবাড়ুর বিরুদ্ধে। ঘটনাটি দক্ষিণ ২৪ পরগণার সোনারপুর থানা এলাকার। অভিযুক্ত যুবকের নাম তুহিন দত্ত। গড়িয়া শ্রীনগর এলাকার বাসিন্দা তুহিন। সোনারপুর থানায় তার বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ দায়েরের পর থেকেই পলাতক সে। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে সোনারপুর থানার পুলিশ।

কলেজে পড়ার সময় থেকে সোনারপুর থানা এলাকার এক তরুণীর সঙ্গে ভালবাসার সম্পর্ক গড়ে তোলে প্রাক্তন জাতীয় স্তরের দাবাড়ু তুহিন দত্ত। বিগত চার বছর ধরে তুহিন ওই তরুণীর সঙ্গে সম্পর্ক গড়ে তুলে তাকে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে সহবাসও করে বলে অভিযোগ। একাধিকবার গড়িয়া এলাকায় নিজের বাড়িতে নিয়ে গিয়েও তার সঙ্গে শারিরীক সম্পর্ক গড়ে তোলে। এরফলে ওই তরুণী অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়লে তাকে বালিগঞ্জের একটি নার্সিংহোমে নিয়ে গিয়ে গর্ভপাত করায় বলে অভিযোগ। কিন্তু কিছুদিন আগে তুহিন দত্ত ওই তরুণীকে বিয়ে করতে অস্বীকার করে। তার সাথে সম্পর্ক ও ছিন্ন করে দেয়। দিন দুয়েক আগে, কেন এরকম সে করছে তা জানতে তুহিনের বাড়িতে গেলে তুহিনের মা ও পরিবারের বাকি সদস্যরা ওই তরুণীকে বেধড়ক মারধর করে। এরপরই বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে সহবাস ও ধর্ষণের অভিযোগের পাশাপাশি তাকে মারধরের অভিযোগ সোনারপুর থানায় অভিযোগ দায়ের করেন ওই তরুণী। ঘটনার পর থেকেই বেপাত্তা অভিযুক্ত প্রাক্তন দাবাড়ু। ওই তরুণীর অভিযোগের ভিত্তিতে ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে সোনারপুর থানার পুলিশ। কিন্তু ঘটনার পর অনেকখানি সময় কেটে গেলেও এ বিষয়ে কাউকে আটক বা গ্রেফতার করেনি সোনারপুর থানার পুলিশ। 

Leave a Reply

avatar
  Subscribe  
Notify of