যেকোন খবরের জন্য আমাদের সঙ্গে যোগাযোগের মাধ্যম : amaderbharatnews@gmail.com    এই বছরই দ্বিতীয় বার লালকেল্লায় জাতীয় পতাকা উত্তোলন করতে চলেছেন মোদী, জানেন কি কেন।    আদিবাসী শিশুদের নতুন জামাকাপড় দিল হিন্দু সংহতি।    ধুনুচি নাচ থেকে পেটপুরে ভুরিভোজ, পুজোয় মেতে উঠেছে আট থেকে আশি।    “লোকসভা নির্বাচনের আগে চালু হবে ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রো”: বাবুল সুপ্রিয়।    পুজো স্পেশাল শপিং অফার চালু করল স্টেট ব্যাংক অফ ইন্ডিয়া।    পুজোর মধ্যেও রাজনৈতিক সংঘর্ষ, গুড়াপে আক্রান্ত বিজেপি, বাড়ি ভাঙ্গচুর, আগুন।    ট্যাংরার গুদামে ভয়াবহ অাগুন, ঘটনাস্থলে দমকলের ৫টি ইঞ্জিন।    কল্যাণী হাইওয়েতে বেপরোয়া গতির বলি বাইক আরোহী।    ট্রেনে এবার ঝাঁকুনি ফ্রি সফর।    মেদিনীপুরে শিল্পের উন্নত পরিকাঠামো গড়তে মুখ্যমন্ত্রীর উদ্যোগ।    র‍্যাফটিং করতে গিয়ে তিস্তার জলে তলিয়ে মৃত্যু ভিন রাজ্যের মহিলার।    ভাড়াটিয়ার পরকীয়ায় বাধা দিয়ে সোনারপুরে খুন বাড়ির মালিক।    আজ আপনার কেমন যাবে জেনে নিন।    পুজোর মরসুমে বালুরঘাটে জমে উঠেছে রমরমা জুয়ার আসর।
BREAKING NEWS:
  • আজ মহানবমী।
  • সকাল থেকেই মন্ডপে মন্ডপে ভীড়।
{"effect":"slide-h","fontstyle":"normal","autoplay":"true","timer":4000}


আর্থিক বাধা কাটিয়ে কলেজে ভর্তি হওয়াই দায় অধ্যাপক হতে চাওয়া দীপঙ্করের

আমাদের ভারত, গোসাবা, ১৩ জুন: নুন আনতে পান্তা ফুরানো পরিবার। দক্ষিণ ২৪ পরগণার সুন্দরবনের গোসাবা তিন নম্বর গ্রামের বাসিন্দা কিঙ্কর কামিলার বড় ছেলে দীপঙ্কর সেই দারিদ্রতাকে উপেক্ষা করে এবারের উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় সমগ্র গোসাবা ব্লকের মধ্যে সেরা নম্বর পেয়ে সকলকে তাক লাগিয়ে দিয়েছে। এবারের উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় গোসাবা আর আর ইন্সটিটিউশানের ছাত্র দীপঙ্কর কামিলা ৪৪৭ নম্বর পেয়েছে। ইংরেজি বাদ দিয়ে সমস্ত বিষয়েই লেটার মার্কস পেয়েছে কলা বিভাগের এই ছাত্র। দীপঙ্করের স্বপ্ন বড় হয়ে কলেজের অধ্যাপক হয়ে শিক্ষকতা করার। কিন্তু এই প্রবল দারিদ্রতার মধ্যে সেটা কিভাবে সম্ভব তা জানেন না কেউ। কলেজে ভর্তির জন্য এখনো প্রয়োজনীয় অর্থ যোগাড় হয়নি। তাই পরিবার চাইছে কোন এক হ্যামলিনের বাঁশিওয়ালাকে।

দক্ষিণ ২৪ পরগণার গোসাবা থানার অন্তর্গত তিন নম্বর গ্রামে নদীর পাড়ে মাটির বাড়িতে বাস করে দীপঙ্কর। বাবা কিঙ্কর কামিলা সারাদিন সাইকেল ভ্যান চালিয়ে কখনো মাটি কেটে কোন রকমে সংসার চালান। কিঙ্কর বাবু অসুস্থ হলে বা অন্য কোথাও গেলে সংসারের হাল ধরতে দীপঙ্করকেও মাঝে মধ্যে ভ্যান চালাতে হয়। এত সব প্রতিবন্ধকতা কাটিয়েও এবারের উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় সুন্দরবন এলাকার মধ্যে সেরা রেজাল্ট করেছে সে। প্রায় নব্বই শতাংশ নম্বর পেয়েছে সে। কোন গৃহশিক্ষক ছাড়াই ছেলে উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় এত ভালো রেজাল্ট করায় খুশি কিঙ্কর বাবু। দীপঙ্করের ভালো রেজাল্টে খুশি এলাকার সাধারণ মানুষজনও। খুশি তার স্কুলের শিক্ষকরাও। কিন্তু বড় হয়ে কলেজে অধ্যাপনা করার যে স্বপ্ন দীপঙ্কর দেখছে তা আদৌও পূরণ হবে কিনা তা জানেন না কেউই।  

Leave a Reply

avatar
  Subscribe  
Notify of