আর্জেন্টিনাকে দ্বিতীয় রাউন্ডে যেতে হলে যা যা করতে হবে।    ২০১৯-এ তিনশোর বেশি আসন পাবে বিজেপি!    নির্বংশ তৃণমূলে ২০১৯ এর পর বাতি দেওয়ার লোক থাকবে না : রাহুল সিনহা।    উস্কানিমূলক মন্তব্য ! সায়ন্তন বসুর বিরুদ্ধে মামলা রুজু করলো পুলিশ।    রাজ্য সরকারের নয়, কেন্দ্রের নিরাপত্তা রক্ষী নিতেই ইচ্ছুক মুকুল রায়।    আগেরবারের মত এবারেও শেষ মুহূর্তে বাতিল মুখ‍্যমন্ত্রীর চিন সফর, তবে কারণটা অদ্ভুত।     কোচবিহারে এলে দিলীপ ঘোষকে সাগরদিঘীর জলে দাঁড় করিয়ে রাখার হুঁশিয়ারি মন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষের।    তৃণমূল কংগ্রেস যে-ভাষা বোঝে আমরাও সেই ভাষায় বোঝাব : আবদুল মান্নান।    বধূ নির্যাতনের শিকার খোদ আলিপুরের মহিলা আইনজীবী ! গ্রেফতার স্বামী।    ২০১৯ সালে তৃণমূল দল আর বাংলায় থাকবে না : মুকুল রায়।    ঘি এর নামে কি খাচ্ছেন আপনারা ? জানতে দেখুন।     আপনার এ সপ্তাহ কেমন যাবে জেনে নিন আমাদের সাপ্তাহিক রাশিফল থেকে।
BREAKING NEWS:
  • আজকের বিশ্বকাপ ফুটবলের ফলাফল
  • ৬টার খেলায় ব্রাজিল- ২কোস্টারিকা_0
  • ৯টায় নাইজেরিয়া-২ আইসল্যান্ড-০
  • রাত ১২ টায় সার্বিয়া-১সুইজারল্যান্ড-২
{"effect":"slide-h","fontstyle":"normal","autoplay":"true","timer":4000}


আর্থিক বাধা কাটিয়ে কলেজে ভর্তি হওয়াই দায় অধ্যাপক হতে চাওয়া দীপঙ্করের

আমাদের ভারত, গোসাবা, ১৩ জুন: নুন আনতে পান্তা ফুরানো পরিবার। দক্ষিণ ২৪ পরগণার সুন্দরবনের গোসাবা তিন নম্বর গ্রামের বাসিন্দা কিঙ্কর কামিলার বড় ছেলে দীপঙ্কর সেই দারিদ্রতাকে উপেক্ষা করে এবারের উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় সমগ্র গোসাবা ব্লকের মধ্যে সেরা নম্বর পেয়ে সকলকে তাক লাগিয়ে দিয়েছে। এবারের উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় গোসাবা আর আর ইন্সটিটিউশানের ছাত্র দীপঙ্কর কামিলা ৪৪৭ নম্বর পেয়েছে। ইংরেজি বাদ দিয়ে সমস্ত বিষয়েই লেটার মার্কস পেয়েছে কলা বিভাগের এই ছাত্র। দীপঙ্করের স্বপ্ন বড় হয়ে কলেজের অধ্যাপক হয়ে শিক্ষকতা করার। কিন্তু এই প্রবল দারিদ্রতার মধ্যে সেটা কিভাবে সম্ভব তা জানেন না কেউ। কলেজে ভর্তির জন্য এখনো প্রয়োজনীয় অর্থ যোগাড় হয়নি। তাই পরিবার চাইছে কোন এক হ্যামলিনের বাঁশিওয়ালাকে।

দক্ষিণ ২৪ পরগণার গোসাবা থানার অন্তর্গত তিন নম্বর গ্রামে নদীর পাড়ে মাটির বাড়িতে বাস করে দীপঙ্কর। বাবা কিঙ্কর কামিলা সারাদিন সাইকেল ভ্যান চালিয়ে কখনো মাটি কেটে কোন রকমে সংসার চালান। কিঙ্কর বাবু অসুস্থ হলে বা অন্য কোথাও গেলে সংসারের হাল ধরতে দীপঙ্করকেও মাঝে মধ্যে ভ্যান চালাতে হয়। এত সব প্রতিবন্ধকতা কাটিয়েও এবারের উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় সুন্দরবন এলাকার মধ্যে সেরা রেজাল্ট করেছে সে। প্রায় নব্বই শতাংশ নম্বর পেয়েছে সে। কোন গৃহশিক্ষক ছাড়াই ছেলে উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় এত ভালো রেজাল্ট করায় খুশি কিঙ্কর বাবু। দীপঙ্করের ভালো রেজাল্টে খুশি এলাকার সাধারণ মানুষজনও। খুশি তার স্কুলের শিক্ষকরাও। কিন্তু বড় হয়ে কলেজে অধ্যাপনা করার যে স্বপ্ন দীপঙ্কর দেখছে তা আদৌও পূরণ হবে কিনা তা জানেন না কেউই।  

loading...

Leave a Reply

Be the First to Comment!

avatar
  Subscribe  
Notify of