১৩ শিশুর মৃত্যুর কারণ মোবাইল ফোন।    কাশ্মীরের মুখ‍্যমন্ত্রীকে জেহাদি বললেন কাঠুয়াকান্ডে অভিযুক্তদের আইনজীবী।    ১৪ মে বাংলায় পঞ্চায়েত নির্বাচন, ১৭ মে গণনা! অবশেষে দিন ঘোষণা নির্বাচন কমিশনের।    টিকিট দেয়নি দল, তৃণমূল ছেড়ে কংগ্রেসে যোগ দুবারের বিজয়ী লড়াকু প্রার্থীর।    ‘গণতন্ত্রকে বলি দিয়ে, সংবিধানকে কচু কাটা করে কী প্রয়োজন এই ভোটের?’ প্রশ্ন তুললেন প্রাক্তন বিচারপতি অশোক গঙ্গোপাধ্যায়।    পঞ্চায়েত ভোটে ‘বিজেপির জয়ের কলঙ্ক’ থেকে পশ্চিমবঙ্গকে মুক্ত রাখার ডাক বুদ্ধের।    চার্জ দেওয়া অবস্থায় মোবাইল ফোনে কথা বলতে গিয়ে মৃত্যু কিশোরের।     পঞ্চায়েত নির্বাচনের দিন ঘোষনা হওয়ার খুশি মুখ্যমন্ত্রী।    একদফা ভোট নিয়ে বিজেপির কোনও আপত্তি নেই।    অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনের দাবিতে অবস্থানে বসবে বামেরা : বিমান বসু।    নারকেলডাঙার রাজাবাজারে মিলল ২০ হাজার কেজি ভাগাড়ের মাংস, শহর জুড়ে তল্লাশি।    আপনার এ সপ্তাহ কেমন যাবে জেনে নিন আমাদের সাপ্তাহিক রাশিফল থেকে।
BREAKING NEWS:
  • ভোটের দিন ঘোষনা হল।
  • সারা রাজ্যে 14 মে একদফায় ভোট।
  • ভোটে নিরাপত্তা নিয়ে প্রশ্ন বিরোধীদের।
  • পঞ্চায়েত ভোট গননা 17 মে।
{"effect":"slide-h","fontstyle":"normal","autoplay":"true","timer":4000}


বালুরঘাটের কৃষকের মেয়ে জাতীয় হকিতে যোগ দিতে পৌঁছাল ছত্রিশগড়, আশায় ভাটরা গ্রাম ও তার পরিবার

আমাদের ভারত ডেস্ক, বালুরঘাট, ৭ নভেম্বর : হকিতে জাতীয় স্তরে জেলার নাম উজ্জ্বল করতে ছত্রিশগড় পাড়ি দিল কৃষকের মেয়ে। বালুরঘাটের নদীপার বালিকা বিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেনীর ছাত্রী মল্লিকা পাহান সোমবার বাবা মদন পাহানকে নিয়ে রওনা হন জাতীয় পর্যায়ে অংশগ্রহণ করতে। শোরগোল গোটা দক্ষিণ দিনাজপুর জেলাজুড়ে। এদিকে ছোট্ট মল্লিকার সফলতার আশায় এখন দিন গুনছেন বালুরঘাটের বোয়ালদাড় গ্রাম পঞ্চায়েতের ভাটরা গ্রামের বাসিন্দারা। বিগত দুবছরে স্কুল লেবেলে জেলা থেকে রাজ্য এবং তারপর জাতীয় পর্যায়ে পৌছানোর গতিতে অবাক স্কুলের শিক্ষক-শিক্ষিকারা। আগামী ১০ থেকে ১৭ নভেম্বর ছত্তিসগড়ে স্কুল পর্যায়ের ওই হকিতে অংশ নেবে বালুরঘাটের মল্লিকা। দেশের হয়ে খেলে সকলের মুখ উজ্জ্বল করতে চায় মল্লিকা। ভাটরার বাসিন্দা পেশায় কৃষক মদন পাহান এর বড় মেয়ে মল্লিকা পাহান। পরিবারে স্ত্রী ছাড়াও আর এক ছেলে রয়েছে। মেয়ে মল্লিকার খেলার প্রতি আগ্রহ থাকলেও আর্থিক অনটনের কারনে কিছুটা গুটিয়ে ছিলেন তিনি বলে জানান বাবা মদন। তবে স্কুলের উদ্যোগে তাদের অনেকটাই স্বপ্ন পুরন হয়েছে। তাদের আশা হকিতে মল্লিকা দেশের মুখ উজ্জ্বল করবেই।
নদীপার বালিকা বিদ্যালয়ের গেম বিষয়ক শিক্ষিকা নিভা মন্ডল জানিয়েছেন, ক্লাস ফাইভ থেকেই হকি খেলায় দুর্দান্ত ছিল মল্লিকা। স্কুল ও তার নিজের প্রচেষ্টাই ভালো খেলে জেলা থেকে রাজ্য এবং সেখান থেকে আজ জাতীয়স্তরে ডাক পেয়েছে। তার সাফল্যে সকলেই খুশি। তারা আশাবাদী ভবিষ্যৎ এ মল্লিকা শুধু স্কুল বা জেলার নয়,গোটা দেশের মুখ উজ্জ্বল করবে।

loading...

Leave a Reply

Be the First to Comment!

avatar
  Subscribe  
Notify of