যেকোন রকম বিজ্ঞাপনের জন্য আমাদের সঙ্গে যোগাযোগের মাধ্যম : amaderbharatdesk@gmail.com    ৩ হাজারের বেশি অ্যান্টি ট্যাংক মিসাইল কিনতে পারে ভারত ফ্রান্স থেকে।     কংগ্রেসের ইস্তেহারে রামমন্দির যুক্ত হলে আমরা তাদের সমর্থনের কথা ভাবতে পারি : ভিএইচপি।    বিজেপির বিরুদ্ধে কংগ্রেসের প্রার্থী হতে পারেন করিনা কাপুর।    মমতা নয় রাহুলকেই নেতা দেখতে চান তারা, ব্রিগেডের পরেই জানালেন তেজস্বী, স্টালিনরা।     একসময় কাগজ কুড়াতেন আজ চণ্ডীগড়ের মেয়র এই বিজেপি নেতা।    ব্রিগেডে খরচের উসুল তুলতে ব্যর্থ তৃণমূল, সোশ্যাল মিডিয়ায় মোদিকে হারিয়েই সন্তুষ্ট।    মালদায় অমিত শাহ-যোগীর সভা সফল করার জন্য বিজেপির তিন প্ল্যান।    ব্রিগেডের সভার বদলে আসানসোলে সভা করবে প্রধানমন্ত্রী, জানালেন দিলীপ ঘোষ।    জম্মু-কাশ্মীরে একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাবে বিজেপি , দাবি রাম মাধবের।    জয়নগরে অমিত শাহের সভার আগেই রাস্তাঘাট তৃণমূলের দখলে।    লোকসভা নির্বাচনকে মাথায় রেখে সফরে জিটিএর প্রতি মুক্তহস্ত মমতা।    ডুয়ার্সে চিতাবাঘের চামড়া সহ আটক পাঁচ চোরাচালানকারী।    আজ আপনার কেমন যাবে জেনে নিন।    বিজেপি নেতার মাতৃবিয়োগে সমবেদনা জানাতে দুর্গাপুরে রাজ্যপাল।


অকংগ্রেসি তৃতীয় ফ্রন্ট সত‍্যিই কি মমতা চান?কেন তাহলে জেডিএস কংগ্রেস জোটের প্রস্তাব তাঁর

আমাদের ভারত ডেস্ক,১৬ মে: আঞ্চলিক দলগুলি নিয়ে তৃতীয় ফ্রন্ট গড়ার তোড়জোড় শুরু হয়েছে বেশকিছু দিন। আর এই তৃতীয় ফ্রন্ট গঠনের ক্ষেত্রে বারবার বলা হয়েছিল অকংগ্রেসি অবিজেপি তৃতীয় ফ্রন্ট গঠন করা হবে। আর এই তৃতীয় ফ্রন্ট গঠনের অন‍্যতম কান্ডারী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আগে কংগ্রেসের সঙ্গে হাত মেলালেও এবার আর তিনি তৃতীয় ফ্রন্টের মধ্যে কংগ্রেসকে চান না। তাই তিনি সোনিয়ার নৈশভোজেও উপস্থিত হন নি। কংগ্রেসের তরফে তাকে একাধিক বার বলা হয়েছে একছাতার তলায় জোট গড়তে? তখন কোন সদুত্তর পাওয়া যায় নি তৃণসুপ্রিমোর কাছ থেকে। কিন্ত কর্নাটক নির্বাচনে দেখা যাচ্ছে অঙ্ক পাল্টে গেছে অনেকটাই। হয়ত কংগ্রেসকে সঙ্গে নিয়ে এক ছাতার তলায় আসতে চলেছেন তৃণমূলের সর্বেসর্বা। কারণ হিসেবে রাজনৈতিক মহলের একাংশের ধারণা রাজ‍্যসভা নির্বাচনে সময় আঞ্চলিক দলগুলিকে একসঙ্গে ধরে রাখা যায় নি। মায়াবতী অখিলেশ জোট ভেঙে নির্বাচনে অংশ গ্রহন করেন। আর তাঁর ফায়দা হয় বিজেপির। তারপর থেকেই আবার দেখা যাচ্ছে মমতা সোনিয়া সক্ষতা বাড়তে শুরু করেছে। সূত্রের খবর কর্নাটকের ফলাফলের পরেই তৃণমূল সুপ্রিমো ফোন করেন সোনিয়াকে আর পরামর্শ দেন গোয়া ,মেঘালয়ের ভুল যেন কংগ্রেস আর না করে। জেডিএসকে সমর্থন করে। অন্যদিকে দেবেগৌড়াকেও তিনি ফোনে কংগ্রেসের সঙ্গে জোট করার অনুরোধ করেন। এককথায় বিজেপিকে আটকাতে তিনি কংগ্রেসের সহায় হন। অন্যদিকে টুইটারে একথাও তিনি বলেন ভোটের আগে জেডিএস কংগ্রেস জোট হলে নির্বাচনের ফলাফল অন‍্যরকম হতো। বিজেপি ৫০ এর বেশি আসন পেত না। এথেকে স্পষ্ট তৃতীয় ফ্রন্ট অবিজেপি অবশ‍্যই হবে কিন্তু অকংগ্রেসি নয়। তাহলে কি ইউ পি এ থ্রি তৈরির পথ প্রশস্থ করল কর্নাটক নির্বাচনে। সময় তার উত্তর দেবে।

Leave a Reply

avatar
  Subscribe  
Notify of