খারিজ অনাস্থা, জয়ের হাসি মোদির ঠোঁটে।    ২১-র সভা থেকে মমতার অঙ্গীকার ১৯-এ ভারত দখল।    ২১ জুলাইয়ে সংখ্যালঘু উন্নয়ন নিয়ে নিশ্চুপ মমতা, ক্ষোভ মুসলিম মহলে।    মমতার প্রশ্নের উত্তরে মমতাকেই বিঁধলেন মুকুল।    “কৃষক বন্ধু প্রধানমন্ত্রী, অথচ বন্যায় কৃষকরাই মরছে”: মানস ভুঁইয়া।    মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবি দেওয়া দলীয় ঝাণ্ডার উপর তৃণমূল নেতার পা দেওয়া ছবি ভাইরাল পুরুলিয়ায়।    জেল থেকে বেরিয়ে আন্দোলন নিয়ে ফের বৈঠক অলীকের।    পর পর ১৯টি গুলি খেয়েও ভারতের পতাকা কার্গিলের পাহাড়ে উড়িয়েছিলেন ব্রিগেডিয়ার যোগেন্দ্র সিং যাদব।    আপনার দিনটি কেমন যাবে জেনে নিন আমাদের দৈনিক রাশিফল থেকে।    ২০ বছরে কাইলি বিশ্বের কমবয়সী ধনী মহিলা, কে এই যুবতী?    খোলামেলা পোশাকে উর্বশী রাউতেলা, সোশ্যাল মিডিয়ায় আলোড়ন।    প্রফুল্ল কন্যার বিবাহ-সঙ্গীত অনুষ্ঠানে উপস্থিত প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক ধোনি সহ পরিবার।     এশিয়া জুনিয়র ব্যাডমিন্টন চ্যাম্পিয়নশিপে ৫৩ বছর পর সোনা ভারতের।
BREAKING NEWS:
  • ২৩ আগস্ট ব্রিগেডে বিজেপির সভা।
  • ১৯ আগস্ট তৃণমূল ব্রিগেড সভা করবে
{"effect":"slide-h","fontstyle":"normal","autoplay":"true","timer":4000}


২ মে ও দুই ঠাকুরের প্রথম দেখা

অশোক সেনগুপ্ত,কলকাতা,১ মে:কলকাতা-সহ রাজ্যের বিভিন্ন ঐতিহাসিক বাড়িতে নানা সময়ে গিয়েছি। খোঁজ করেছি সংশ্লিষ্ট ঐতিহ্যের। কিন্তু এপিসি রোডের এই বাড়িতে যাওয়ার সুযোগ হল আজ ১ মে। ১৮৮৩ সালের ২ মে এই বাড়িতেই দেখা হরেছিল দুই ঠাকুরের। মানে, ঠাকুর শ্রীরামকৃষ্ণ এবং রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের।
প্রতি বছর ১ ও ২ মে ওঁরা শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করেন দুই ঠাকুরের সেই সাক্ষাৎপর্ব। ওঁরা মানে, ’শ্রী শ্রী রামকৃষ্ণ ভক্ত পরিষদ’। কথা হল পরিষদের সচিব আইনজীবী যামিনীরঞ্জন ঘোষ এবং মিত্রবাড়ির দুই বর্ষীয়ান শরিক প্রণব কুমার ও মানব কুমার মিত্র সঙ্গে।
প্রণববাবু জানালেন, আমার ঠাকুর্দা যজ্ঞনাথ মিত্রর সঙ্গে দেখা করতে এই বাড়িতে এসেছিলেন রবীন্দ্রনাথ। সেকালের অন্যতম প্রধান ব্রাহ্ম সেবক এবং সমাজসংস্কারক কাশীশ্বর মিত্রের দুই পুত্রের অন্যতম ছিলেন যজ্ঞনাথ। এই গোটা এলাকা ছিল গোবিন্দরাম মিত্রদের বাগানবাড়ি। তাই জায়গাটা চিহ্ণিত ছিল নন্দনকানন বলে।

শ্যামবাজার মোড়ের ঢিলছোঁড়া দূরত্বের এই বাড়ি থেকে নবাব সিরাজদৌল্লা রওনা হয়েছিলেন জাহাজঘাটায়। এ সব কথা এখন চাপা পড়ে গিয়েছে বিস্মৃতির ধারাপাতে। মিত্রবাবু জানান, কুমোরটুলির গোবিন্দরাম মিত্র ছিলেন আমাদের পূর্বপুরুষ।
যাই হোক, শ্রীরামকৃষ্ণের স্মরণে প্রতি শুক্রবার এখনও এই মিত্রবাড়িতে বসে ধর্মীয় আলোচনার আসর। লোক লস্কর ও অন্য কিছু অসুবিধায় বার্ষিক স্মরণসভাটা দু‘দিনের বদলে নেমে এসেছে এক দিনে। তা সত্বেও ২ মে-র উদযাপনে ব্যস্ত ভক্ত পরিষদ। ছবিতে ওঁদের আলোচনা, যজ্ঞনাথ মিত্রের ফটো, ঠাকুরঘর প্রভৃতি।

Leave a Reply

Be the First to Comment!

avatar
  Subscribe  
Notify of