যেকোন রকম বিজ্ঞাপনের জন্য আমাদের সঙ্গে যোগাযোগের মাধ্যম : amaderbharatdesk@gmail.com    তেলেঙ্গানায় ক্ষমতায় আসতে চন্দ্রশেখরকে সমর্থনের প্রস্তাব বিজেপির, শর্ত একটাই ত্যাগ করতে হবে ওয়াইসিকে।    অধ্যাদেশ জারি করে রাম মন্দির নির্মাণের দাবিতে গেরুয়া স্রোত রাজধানীতে।    “সংখ্যালঘু ভোটের জন্য হিন্দু বিদ্বেষী বাংলাদেশি ধর্মগুরুকে সভা করার অনুমতি দিয়েছে রাজ্য”: দিলীপ।    প্রাক্তন কেএলও লিঙ্কম্যানদের তৃণমূলে যোগদান।    কেন চোলাই নিয়ন্ত্রণ করা যাচ্ছে না? মন্ত্রিসভার বৈঠকে ক্ষুব্ধ মমতা।    লোকসভার আগে রাজ্যে ৭ হাজার নতুন শিক্ষক পদে নিয়োগ সরকারের।    “বিজেপির রাজ্য গুজরাট, বিহারে মদ নিষিদ্ধ তবে এই বাংলায় কেন তা হচ্ছে না “: মুকুল।    ভুয়ো কল সেন্টার খুলে বিদেশে কোটি টাকার প্রতারণা, পাকড়াও ৪ যুবক।    “শাসক দলের রক্তক্ষয়ী রাজনীতি”: নদিয়ায় বিজেপির রক্তদান শিবির।    আইনজীবী খুনের ঘটনাতেও উঠে আসছে পরকীয়া তত্ত্ব, আটক স্ত্রী।    রোগীমৃত্যুর জেরে বাঙুর হাসপাতালে ভাঙচুর, মারধর চিকিৎসকদের, আটক ৮।    বাড়ি থেকে সংগ্রহশালা, পরিবর্তন হতে চলেছে রাজ কাপুরের জন্মভিটে।    আজ আপনার কেমন যাবে জেনে নিন।    বিয়ের পর প্রথম দীপিকা প্রসঙ্গে মুখ খুললেল রণবীর।


মোবাইল হাত ফস্কে জলে পড়লে কি করবেন, আর কি করবেন না! জেনে নিন

আমাদের ভারত ডেস্ক, ১৩ সেপ্টেম্বর: বাড়িতে বা অফিসে হয়তো কোনও গুরুত্বপূর্ণ কাজ করছেন। অসতর্কতায় রাখা মোবাইলটার কথা হয়তো মনে নেই। অাচমকাই মোবাইলটা হঠাৎ গিয়ে পড়ল জলে!

৯০ শতাংশ মানুষের মনের অবস্থা তখন হবে মাথায় বাজ ভেঙে পড়ার মতোই। মোবাইল যে অনেকের কাছে প্রাণের চেয়েও বেশি মূল্যবান।

সত্যি কথা বলতে গেলে, দুর্ঘটনাবশত বা বৃষ্টিতে কিংবা অন্য কোনভাবে মোবাইলটা একেবারে ভিজে যেতেই পারে। এক্ষেত্রে এত ঘাবড়াবার কিচ্ছু নেই। কিছু কাজ করলে আর কিছু কাজ অবশ্যই না করলে আপনার ফোনটা বেঁচে যেতে পারে। তাহলে এবার এখানে জেনে নিন সেইসব পরামর্শ।

যা করবেন না-

১. জলে পড়া মোবাইল নিয়ে নির্মাতার ওয়্যারেন্টির সুবিধার অপেক্ষায় থাকবেন না। কারণ, জলে পড়ার ওয়্যারেন্টি ওরা দেবে না। নির্মাতারা কেবল নির্মাণত্রুটি পেলেই সেবা দেবে। আর যদি সেখানে নিয়েই যান, তবে ঘটনা লুকানোর চেষ্টা করবেন না। এতে করে আপনি উপকার পেলেও পেতে পারেন।

২. হেয়ার ড্রায়ার দিয়ে ফোন শুকাবেন না। এতে করে স্পর্শকাতর ইলেকট্রনিক্স পার্টসগুলো ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে। আর ভুল করে জল শুকানোর জন্যে গরম কোনো যন্ত্রের মধ্যেও রাখবেন না। ওভেন বা রেডিয়েটরে তো রাখবেন না।

৩. কোনো সুইচ চাপবেন না। এতে করে জল আরো বেশি পরিমাণে ঢুকে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে। স্রেফ একটা সুইট চাপার কারণে শর্ট সার্কিট হযে পুরো ফোনটাই নষ্ট হয়ে যাবে। তাই কোনও সুইচ বা পোর্টে খোঁচাখুঁচি কোনভাবেই করবেন না।

যা করবেন-
১. আসলে প্রথমে যে কাজটা করা জরুরি তা হলো ফোনটাকে বন্ধ করে দেওয়া। কিন্তু আগেই বলা হয়েছে, সুইচ চাপা ঝুঁকিপূর্ণ। তাই অন-অফের সুইচ আর এর চারপাশে দ্রুত মুছে নিয়ে মোবাইলটা বন্ধ করে দিন। এতে করে আরো বেশি ক্ষতির হাত থেকে বাঁচতেও পারে যন্ত্রটি।

২. বন্ধ করার পর একটি শুকনো কাপড়ে মোবাইলটি ভালোমতো মুছে ফেলুন। এবার একটি টিস্যু বা পেপার তোয়ালেতে মুড়ে রেখে দিন। এতে বাড়তি জল শুষে নেওয়া যাবে। কোনও অ্যাক্সেসরিজ লাগানো থাকলে তা খুলে ফেলুন। সিমকার্ড, মেমোরি কার্ডও বের করে নিন। এবার বিভিন্ন কোণ থেকে মোবাইলটা ঝাঁকাতে থাকুন। এতে করে ভেতরে কোনো জল থাকলে বের হয়ে আসবে।

৩. এবার আসল কাজ। বাড়িতে যেখানে চাল রেখেছেন সেখানে মোবাইলটি রেখে দিন। সবচেয়ে ভালো হয় কোনো এয়ারটাইট বাক্সে চাল নিয়ে তার মধ্যে মোবাইলটি রাখতে পারলে। চালের ভেতরে স্মার্টফোনটি ডুবিয়ে দিন। চাল কিন্তু আর্দ্রতা দারুণভাবে শুষে নিতে পারে। এতে অবশ্য মোবাইলে চালের গুঁড়া লেগে যাবে। কিন্তু মোবাইল নিশ্চিত বাঁচবে। এভাবে ২৪-৪৮ ঘণ্টা মোবাইলটি রেখে দিতে হবে।

৪. কড়া সূর্যালোকেও মোবাইলটি রেখে দিতে পারেন। এতে জল শুকিয়ে যাবে। তবে এটা করতে গেলে মোবাইলে ব্যাক কভার এবং ব্যাটারি সব খুলে নিতে হবে। রোদে মোবাইলটাকে যতটা খোলামেলা রাখা যায় সেভাবেই রাখবেন।

৫. আশা করা যায়, মোবাইলটা ভালো হয়ে যাবে। খুব বড় দুর্ঘটনা না ঘটে গেলে অন্তত মোবাইলটা আবারও চালু হবে। আর চালু হওয়ামাত্র সব তথ্যের ব্যাকআপ নিয়ে নিন। ভাগ্য ভালো থাকলে মোবাইলটা আগের মতোই চলবে। কিন্তু তা সত্ত্বেও মোবাইল কোনও কারণে আগের মত না চললে অবিলম্বে দ্রুত মোবাইলের সার্ভিস সেন্টারে গিয়ে বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ নিন।

Leave a Reply

avatar
  Subscribe  
Notify of