কুমারস্বামী রাজনীতির মিলিন্দ সুমন।    পাকসেনার গুলিতে সাতদিনে নিহত ৪২ ভারতীয়।    বিশ্বভারতীর সমাবর্তন অনুষ্ঠানে মোদী হাসিনার দ্বিপাক্ষিক বৈঠকই গুরুত্বপূর্ণ।    কর্নাটকে আবার আস্থা ভোট বৃহস্পতিবার, টিকবে তো জোট সরকার।    প্রয়োজন মিটে গেলে ছুড়ে ফেলে দেন মমতা : মুকুল রায়।    বিরাটির খোলা রাস্তায় তৃণমূল পুরপ্রধান-উপ পুরপ্রধানের লড়াই, থামাতে গিয়ে রীতিমতো হেনস্থা সাংসদ সৌগত রায়ের।    হৃদযন্ত্র প্রতিস্থাপনের পর ভালোই আছেন দিলচাঁদ, খুশি চিকিৎসকরা।    তারাপীঠে পুজো দিতে এসে হাতাহাতিতে জড়ালেন ঝাড়খণ্ডের মুখ্যমন্ত্রীর উপদেষ্টা।    শাসক দলের অত্যাচারে ভিটেমাটি ছাড়লেন রাজগঞ্জের কয়েকটি পরিবার।    শতাব্দী এক্সপ্রেসের খাবার খেয়ে অসুস্থ ২০ জন যাত্রী।    আরামবাগে বিভিন্ন হোটেলে মধুচক্রের রমরমা, আটক বাংলাদেশি তরুণী।    আপনার এ সপ্তাহ কেমন যাবে জেনে নিন আমাদের সাপ্তাহিক রাশিফল থেকে।
BREAKING NEWS:
  • রাজ্য জয়েন্ট এনট্রান্সের ফল প্রকাশ।
  • জয়েন্টে প্রথম অভিনন্দন বোস।
{"effect":"slide-h","fontstyle":"normal","autoplay":"true","timer":4000}


এতদিন চুপ করে থাকলেও এবার কি মোদীর টার্গেট মমতা?

আমাদের ভারত ডেস্ক,১৬ মে: রাজ‍্যের পঞ্চায়েত নির্বাচনকে এককথায “গণতন্ত্রের হত‍্যা ” বললেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। অন্যদিকে কর্নাটকের ফলাফলের পর দেবেগৌড়াকে ফোন করে কংগ্রেসকে সমর্থনের অনুরোধ করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এই দুই কারণেই কি রাজ‍্যের মুখ‍্যমন্ত্রীর প্রতি চটলেন নরেন্দ্র মোদী। তাহলে কি এবার মোদীর টার্গেট মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়? এই প্রশ্ন এখন ঘোরাঘুরি করছে রাজনৈতিক মহলে। “পঞ্চায়েত নির্বাচনে রাজ‍্যের গণতন্ত্র ভূলুন্ঠিত। মনোনয়ন দাখিল থেকে ভোটদান সর্বত্র গনতন্ত্রের হত‍্যা করা হয়েছে। একের পর এক বলি হয়েছেন রাজনৈতিক দলের কর্মীদের। খুন,ব‍্যালেট বক্স ছিনতাই থেকে শুরু করে ছাপ্পা ভোট। গর্বের বঙ্গভুমিতে সন্ত্রাসের আবহ। গনতন্ত্রের হত‍্যা।” এভাবেই এদিন রাজ‍্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দিকে তোপ দাগেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। দলীয় কর্মীদের সভাতে তিনি আক্রমনাত্মক হয়ে ওঠেন মমতা সরকারের বিরুদ্ধে। এর আগে অবশ্য রাজ‍্যে বিজেপি কর্মী সমর্থকদের প্রতিনিয়ত শাসকদলের হাতে কি ভাবে হেনস্থা হতে হচ্ছে তার পুঙ্খানুপুঙ্খ বিবরণ বিজেপি কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের কাছে জানিয়েছেন রাজ‍্য নেতৃত্ব। তার পরিপ্রেক্ষিতে এই তোপ দাগেন প্রধানমন্ত্রী। অন্যদিকে কর্নাটকের ফলাফলের পর বিজেপিকে আটকাতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দেবেগৌড়াকে অনুরোধ জানান কংগ্রেসকে সমর্থন করতে। এতেই সম্ভবত বেশি চটেছেন মোদী। কারণ এতদিন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের তৃতীয় ফ্রন্টের জল্পনা নিয়ে মুখ খুলতে শোনা যায় নি মোদীকে। কিন্তু কংগ্রেস সমর্থনের প্রশ্নের মোদী আর চুপ করে থাকলেন না। এবার সরাসরি মমতার বিরুদ্ধে লড়াইয়ের ময়দানে নেমেছেন প্রধানমন্ত্রী। এদিন তার বক্তব্যে স্পষ্ট এবার তার টার্গেট মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এতদিন চুপ করে থাকলেও মোদী এবার আর রেয়াত করবেন না মুখ্যমন্ত্রীকে। তার প্রথম ঝলক দেখা গেল দলীয় নেতা কর্মীদের সভায় বক্তব্য রাখার সময়।

loading...

Leave a Reply

Be the First to Comment!

avatar
  Subscribe  
Notify of