যেকোন রকম বিজ্ঞাপনের জন্য আমাদের সঙ্গে যোগাযোগের মাধ্যম : amaderbharatdesk@gmail.com    ৩ হাজারের বেশি অ্যান্টি ট্যাংক মিসাইল কিনতে পারে ভারত ফ্রান্স থেকে।     কংগ্রেসের ইস্তেহারে রামমন্দির যুক্ত হলে আমরা তাদের সমর্থনের কথা ভাবতে পারি : ভিএইচপি।    বিজেপির বিরুদ্ধে কংগ্রেসের প্রার্থী হতে পারেন করিনা কাপুর।    মমতা নয় রাহুলকেই নেতা দেখতে চান তারা, ব্রিগেডের পরেই জানালেন তেজস্বী, স্টালিনরা।     একসময় কাগজ কুড়াতেন আজ চণ্ডীগড়ের মেয়র এই বিজেপি নেতা।    ব্রিগেডে খরচের উসুল তুলতে ব্যর্থ তৃণমূল, সোশ্যাল মিডিয়ায় মোদিকে হারিয়েই সন্তুষ্ট।    মালদায় অমিত শাহ-যোগীর সভা সফল করার জন্য বিজেপির তিন প্ল্যান।    ব্রিগেডের সভার বদলে আসানসোলে সভা করবে প্রধানমন্ত্রী, জানালেন দিলীপ ঘোষ।    জম্মু-কাশ্মীরে একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাবে বিজেপি , দাবি রাম মাধবের।    জয়নগরে অমিত শাহের সভার আগেই রাস্তাঘাট তৃণমূলের দখলে।    লোকসভা নির্বাচনকে মাথায় রেখে সফরে জিটিএর প্রতি মুক্তহস্ত মমতা।    ডুয়ার্সে চিতাবাঘের চামড়া সহ আটক পাঁচ চোরাচালানকারী।    আজ আপনার কেমন যাবে জেনে নিন।    বিজেপি নেতার মাতৃবিয়োগে সমবেদনা জানাতে দুর্গাপুরে রাজ্যপাল।


এতদিন চুপ করে থাকলেও এবার কি মোদীর টার্গেট মমতা?

আমাদের ভারত ডেস্ক,১৬ মে: রাজ‍্যের পঞ্চায়েত নির্বাচনকে এককথায “গণতন্ত্রের হত‍্যা ” বললেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। অন্যদিকে কর্নাটকের ফলাফলের পর দেবেগৌড়াকে ফোন করে কংগ্রেসকে সমর্থনের অনুরোধ করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এই দুই কারণেই কি রাজ‍্যের মুখ‍্যমন্ত্রীর প্রতি চটলেন নরেন্দ্র মোদী। তাহলে কি এবার মোদীর টার্গেট মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়? এই প্রশ্ন এখন ঘোরাঘুরি করছে রাজনৈতিক মহলে। “পঞ্চায়েত নির্বাচনে রাজ‍্যের গণতন্ত্র ভূলুন্ঠিত। মনোনয়ন দাখিল থেকে ভোটদান সর্বত্র গনতন্ত্রের হত‍্যা করা হয়েছে। একের পর এক বলি হয়েছেন রাজনৈতিক দলের কর্মীদের। খুন,ব‍্যালেট বক্স ছিনতাই থেকে শুরু করে ছাপ্পা ভোট। গর্বের বঙ্গভুমিতে সন্ত্রাসের আবহ। গনতন্ত্রের হত‍্যা।” এভাবেই এদিন রাজ‍্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দিকে তোপ দাগেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। দলীয় কর্মীদের সভাতে তিনি আক্রমনাত্মক হয়ে ওঠেন মমতা সরকারের বিরুদ্ধে। এর আগে অবশ্য রাজ‍্যে বিজেপি কর্মী সমর্থকদের প্রতিনিয়ত শাসকদলের হাতে কি ভাবে হেনস্থা হতে হচ্ছে তার পুঙ্খানুপুঙ্খ বিবরণ বিজেপি কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের কাছে জানিয়েছেন রাজ‍্য নেতৃত্ব। তার পরিপ্রেক্ষিতে এই তোপ দাগেন প্রধানমন্ত্রী। অন্যদিকে কর্নাটকের ফলাফলের পর বিজেপিকে আটকাতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দেবেগৌড়াকে অনুরোধ জানান কংগ্রেসকে সমর্থন করতে। এতেই সম্ভবত বেশি চটেছেন মোদী। কারণ এতদিন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের তৃতীয় ফ্রন্টের জল্পনা নিয়ে মুখ খুলতে শোনা যায় নি মোদীকে। কিন্তু কংগ্রেস সমর্থনের প্রশ্নের মোদী আর চুপ করে থাকলেন না। এবার সরাসরি মমতার বিরুদ্ধে লড়াইয়ের ময়দানে নেমেছেন প্রধানমন্ত্রী। এদিন তার বক্তব্যে স্পষ্ট এবার তার টার্গেট মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এতদিন চুপ করে থাকলেও মোদী এবার আর রেয়াত করবেন না মুখ্যমন্ত্রীকে। তার প্রথম ঝলক দেখা গেল দলীয় নেতা কর্মীদের সভায় বক্তব্য রাখার সময়।

Leave a Reply

avatar
  Subscribe  
Notify of