যেকোন রকম বিজ্ঞাপনের জন্য আমাদের সঙ্গে যোগাযোগের মাধ্যম : amaderbharatdesk@gmail.com    ৩ হাজারের বেশি অ্যান্টি ট্যাংক মিসাইল কিনতে পারে ভারত ফ্রান্স থেকে।     কংগ্রেসের ইস্তেহারে রামমন্দির যুক্ত হলে আমরা তাদের সমর্থনের কথা ভাবতে পারি : ভিএইচপি।    বিজেপির বিরুদ্ধে কংগ্রেসের প্রার্থী হতে পারেন করিনা কাপুর।    মমতা নয় রাহুলকেই নেতা দেখতে চান তারা, ব্রিগেডের পরেই জানালেন তেজস্বী, স্টালিনরা।     একসময় কাগজ কুড়াতেন আজ চণ্ডীগড়ের মেয়র এই বিজেপি নেতা।    ব্রিগেডে খরচের উসুল তুলতে ব্যর্থ তৃণমূল, সোশ্যাল মিডিয়ায় মোদিকে হারিয়েই সন্তুষ্ট।    মালদায় অমিত শাহ-যোগীর সভা সফল করার জন্য বিজেপির তিন প্ল্যান।    ব্রিগেডের সভার বদলে আসানসোলে সভা করবে প্রধানমন্ত্রী, জানালেন দিলীপ ঘোষ।    জম্মু-কাশ্মীরে একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাবে বিজেপি , দাবি রাম মাধবের।    জয়নগরে অমিত শাহের সভার আগেই রাস্তাঘাট তৃণমূলের দখলে।    লোকসভা নির্বাচনকে মাথায় রেখে সফরে জিটিএর প্রতি মুক্তহস্ত মমতা।    ডুয়ার্সে চিতাবাঘের চামড়া সহ আটক পাঁচ চোরাচালানকারী।    আজ আপনার কেমন যাবে জেনে নিন।    বিজেপি নেতার মাতৃবিয়োগে সমবেদনা জানাতে দুর্গাপুরে রাজ্যপাল।


ভোট এগিয়ে এনে বাজপেয়ীর মতই ভুল করতে পারেন মোদী, তাই সময়ের আগের ভোটের জন্য প্রস্তুত ঘাসফুল

আমাদের ভারত ডেস্ক,১৩ জুন: ২০০৪-এ সাইনিং ইন্ডিয়া দেখিয়ে বাজপেয়ী লোকসভা ভোট এগিয়ে এনেছিল। এবার মোদীও ডিজিটাল ইন্ডিয়া দেখিয়ে বাজপেয়ীর পদাঙ্ক অনুসরণ করে লোকসভা ভোট এগিয়ে আনতে পারে। এমনটাই অনুমান করছেন ঘাসফুল শিবির। ডিসেম্বর বা পরেই ভোট এগিয়ে আসতে পারে। ফলে সেই অনুযায়ী নিজেদের গুছিয়ে নিতে শুরু করেছে তৃণমূল নেতৃত্বরা। ‌ লোকসভা ভোটের ঘুঁটি সাজাতেই ডাকা হয়েছে কোর কমিটির বৈঠক। সেখানেই চুড়ান্ত হবে লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূল কংগ্রেসের পরিকল্পনার ছক। কোন পথে এগিয়ে বিজেপিকে ক্ষমতা চ‍্যুত করা যাবে সেই পথের সন্ধান ইতিমধ্যেই পাওয়া হয়ে গেছে বাংলার দিদির। ‌‌‌‌ একনজরে দেখে নেওয়া যাক বিজেপিকে হটাতে কি কি পরিকল্পনা নিয়েছে তৃণমূল শিবির। ১. রাজ‍্যমন্ত্রিসভায় রদবদল,২.সাংগঠনিক স্তরে রদবদল,৩.নির্ভুল ভোটার তালিকা তৈরিতে নজর,৪. ডিসেম্বরে ভোট হলে তার জন‍্য পরিকল্পনা মাফিক ব্লকস্তর পর্যন্ত নির্দেশ,৫. বাড়ি প্রচারে জোর ৬.দলের বিধায়কদের টার্গেট নির্দিষ্ট করা,৭.সাংসদদের উন্নয়নের খতিয়ান জানাতে বলা। সর্বশেষ তথা গুরুত্বপূর্ণ ৮. রাজ‍্যে বিজেপির ক্ষমতা কোথায় কোথায় বাড়ছে সেটার দিকে নজর দেওয়া। এখন এই পরিকল্পনাকে বাস্তবায়ন করতে গিয়ে নির্বাচন যদি এগিয়ে আসে তবে তা অবশ‍্যই হবে বড় চ্যালেঞ্জ।
তবে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেছেন,যদি ভোট এগিয়ে আসে তবে সেটা বিজেপির জন্য বুমেরাং হয়ে যেতে পারে। ২০০৪ সালে সাইনিং ইন্ডিয়া দেখিয়ে বাজপেয়ী প্রতিষ্ঠান বিরোধী হাওয়া আটকাতে তড়িঘড়ি নির্বাচন এগিয়ে এনেছিলেন। আত্মবিশ্বাসের ভোটে ভরাডুবি হয়েছিল বিজেপির। তাই ডিজিটাল ইন্ডিয়া দেখিয়ে আত্মবিশ্বাসী মোদীও ভোট এগিয়ে আনতে চান তাহলে বাজপেয়ীর মত মোদীকে অতিআত্মবিশ্বাসের ফল ভোগ করতে হবে। সেই সময় বাজপেয়ী ক্ষমতাচ‍্যুত হয়েছিলেন। একই পথে হেঁটে মোদীও একভুল করতে পারেন বলে মনে করছেন তৃণমূল সুপ্রিমো। তাই সরকারের গতিবিধি দেখে ভোটের জন্য প্রস্তুতি শুরু করে দিল তৃণমূল কংগ্রেস। আগেই তৃণমূল শিবির জানিয়েছেন যেকোনো সময় ভোটের জন্য তারা প্রস্তুত। সমস্ত আঞ্চলিক শক্তিকে একত্রিত করে ইতিমধ্যেই যুদ্ধের ডঙ্কা বাজিয়ে দিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এবার দেখার লড়াইয়ের দিন কবে ধার্য হয়।

Leave a Reply

avatar
  Subscribe  
Notify of