বিশ্বকাপে ফুটবল মাঠে বরাবর‌ই স্বপ্রতিভ ছিলেন ক্রোট প্রসিডেন্ট।    ফরাসীদের বিশ্বকাপ জয়, আনন্দে মাতল চন্দননগর।    বিশ্বকাপের মহারণে মাঠে সাক্ষী থাকলেন মহারাজ।    সমুদ্রে মাছ ধরতে গিয়ে নিখোঁজ তিনটি ট্রলার সহ ১৯ মৎস্যজীবী।    মা মাটি মানুষের সরকার সিন্ডিকেটের ইচ্ছাতেই চলছে : মোদী।    কৃষকদের উন্নতির জন্য বিজেপির অাগে কেউ এত ভাবেনি : মোদী।    মেটিয়াবুরুজে দুর্ঘটনায় মৃত বাবা-মেয়ে, প্রতিবাদে ১০টি গাড়িতে ভাঙচুর ক্ষুব্ধ জনতার।    তৃণমূলের জুলুম থেকে আর কয়েক মাসের মধ্যেই মিলবে মুক্তি : মোদী।     হাতজোড় করে স্বাগত জানালেন মমতা! ধন্যবাদ জানালেন মোদী।    মোদীর সভায় চাঁদোয়া ভেঙ্গে অাহত ৩০।    পুলিশের বাধায় প্রধানমন্ত্রীর সভায় যেতে পারলেন না অনেকে, খড়্গপুরে বিজেপি কর্মীদের হাতে আক্রান্ত পুলিশ।    বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে কিশোরীকে ধর্ষণ, গ্রেপ্তার সিভিক ভলান্টিয়ার।    বজবজে ভাইস চেয়ারম্যান অনুগামীদের বিরুদ্ধে বিজেপি কর্মীদের মারধর,বাড়ি ভাঙ্গচুরের অভিযোগ।    আপনার দিনটি কেমন যাবে জেনে নিন আমাদের দৈনিক রাশিফল থেকে।    চিৎপুরের যাত্রাপাড়ায় বিশেষ গিমিক টেলিভিশন সিরিয়ালের জুটি।    মস্তিষ্কের পুষ্টিতে সুপ অপরিহার্য, বলছেন খাদ্য বিশেষজ্ঞরা।
BREAKING NEWS:
  • ২০১৮ বিশ্বকাপ ফুটবলে জয়ী ফ্রান্স।
  • ফাইনালে ফ্রান্স-৪ ক্রোয়েশিয়া-২
  • তৃতীয় স্থানের খেলায় বেলজিয়াম জয়ী
{"effect":"slide-h","fontstyle":"normal","autoplay":"true","timer":4000}


প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনায় তিন বছরে ৫১ লক্ষ বাসস্থান মঞ্জুর

আমাদের ভারত ১১জুলাই:প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা শহরাঞ্চলের প্রকল্পে এখনও পর্যন্ত ৫১ লক্ষ বাসস্থান মঞ্জুর করা হয়েছে। যেখানে গত তিন বছরে রূপায়ণের জন্য ১ কোটি বাসস্থানের চাহিদা ছিল। গতবারের আবাসন প্রকল্পের অনুপাতে এটি বড়সড় পদক্ষেপ বলেই দাবি কেন্দ্রের।

এর আগে এই প্রকল্পের আওতায় দীর্ঘ ৯ বছরে মাত্র ১২.৪ লক্ষ বাসস্থান অনুমোদিত হয়েছিল।

গত তিনবছরে ৫১ লক্ষ অনুমোদিত গৃহের মধ্যে ইতিমধ্যেই ৮ লক্ষ বাড়ি নির্মাণের কাজ সম্পূর্ণ হয়েছে। সেই বাড়ি গুলিতে বাসিন্দারাও চলে এসেছেন।
অন‍্যদিকে ২৮ লক্ষেরও বেশি বাড়ি তৈরির কাজ ইতিমধ্যেই শুরু হয়েছে। সেগুলো নির্মাণের বিভিন্ন স্তরে রয়েছে।

কিন্তু একটি ইংরেজি দৈনিকের প্রতিবেদনে এই প্রকল্পের সম্পর্কে কিছু ভুল তথ্য পরিবেশিত হয়েছে বলে দাবি করেছে কেন্দ্র সরকারের প্রেস ইনফরমেশন ব‍্যুরো।

দৈনিকটিতে বলা হয়েছে, আবাসন নির্মাণের বড়সড় ফাঁক রয়েছে। সেটা পূরণ করতেই প্রস্তাবিত গ্লোবাল হাউসিং কনস্ট্রাকশন টেকনোলজি চ্যালেঞ্জ বা বিশ্বব্যাপী আবাসন নির্মাণ প্রযুক্তি সংক্রান্ত চ্যালেঞ্জটি আনা হয় ।

কিন্তু প্রেস ইনফরমেশন ব‍্যুরো জানিয়েছে এই চ্যালেঞ্জের প্রস্তাব আনার কারণ প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার শহরাঞ্চলের প্রকল্পের অধীনে বড় আকারে নির্মাণের সুযোগ কাজে লাগানো যায়। এর ফলে ন্যূনতম খরচে বাড়িগুলি নির্মাণ করা যায়। একই সঙ্গে খুবকম সময়ে সর্বাধিক সংখ্যক বাড়ি একটি স্বীকৃত এলাকায় গড়ে উঠবে। এটি প্রযুক্তি হস্তান্তরেও সাহায্য করবে আমাদের দেশে। এই নির্মাণ প্রযুক্তি ও নকশা কাজে লাগিয়ে দেশের নির্মাণ শিল্পের বড় ধরণের বিকাশ ঘটানো সম্ভব।

loading...

Leave a Reply

Be the First to Comment!

avatar
  Subscribe  
Notify of