যেকোন খবরের জন্য আমাদের সঙ্গে যোগাযোগের মাধ্যম : amaderbharatnews@gmail.com    ফ্রিতে ৫০ লাখ স্মার্টফোন আর জিও সিম।    ফেসবুকে মুখ্যমন্ত্রীর অশালীন ছবি প্রচার,  গ্রেফতার শালবনীর যুবক।    “তৃণমূল বিরোধী শূন্য পঞ্চায়েত গড়তে চাইছে বলেই এত গণ্ডগোল”, বললেন দিলীপ ঘোষ।    আমডাঙা কাণ্ডে রাজস্থান থেকে গ্রেফতার সিপিএম নেতা জাকির।    এবার ভেঙে খসে পড়তে শুরু করল জ্বলন্ত বাগরি মার্কেট।    বীরভূমে আদিবাসী ছাত্রীর ধর্ষণের ঘটনায় ধর্ষকের দ্রুত বিচার চাইলেন লকেট।    তিন সপ্তাহের মধ্যে এসএসসির সম্পূর্ণ মেধাতালিকা প্রকাশের নির্দেশ হাইকোর্টের।    সারদা মামলায় বিধাননগরের প্রাক্তন গোয়েন্দা কর্তা অর্ণব ঘোষকে তলব সিবিআইয়ের।    বাগরি মার্কেটের সিঁড়ি, বাথরুমও ব্যবসায় লিজ, জার্মানি থেকেও ক্ষোভ মুখ্যমন্ত্রীর।    বালুরঘাটে কাজের দিনেও সরকারি অফিসে মদ-মাংসের আসর, আতঙ্কিত দপ্তরের এক মহিলা কর্মী।    হিলিতে ভোগের খিচুড়ির ভাগাভাগি নিয়ে সিভিক ভলান্টিয়ারকে বেধড়ক মার এনভিএফের।    কুলতলিতে রোগী মৃত্যুকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা, প্রহৃত চিকিৎসক।    আজ আপনার কেমন যাবে জেনে নিন।    দেড়বছর পর জামিন পেলেন উদ্বাস্তু আন্দোলনের নেতা সুবোধ বিশ্বাস।    ডিভোর্স না দেওয়ায় স্ত্রীকে খুনের চেষ্টা চিকিৎসক স্বামীর, গ্রেফতার অভিযুক্ত।    গোর্খাল্যান্ডের দাবিতে পাহাড়ে ফের পোস্টার, সিঁদুরে মেঘ দেখছে পাহাড়বাসী।    দিলীপ ঘোষের উপর হামলার প্রতিবাদে রাজ্যজুড়ে পথ অবরোধ কর্মসূচি বিজেপির।    হোয়াটসঅ্যাপে খুব গুরুত্বপূর্ণ তিনটি পরিবর্তন হতে চলেছে।    এবার ভাঁজ করে রাখতে পারবেন আপনার স্মার্টফোন।
BREAKING NEWS:
  • বিজেপি রাজ্যসভাপতি দিলীপ ঘোষ
  • আক্রান্ত। গাড়ি ভাঙচুর।
  • কর্মী সহ বিজেপি ছাড়লেন লক্ষ্মণ শেঠ
  • কলকাতার বাগরি মার্কেটে আগুন
  • দীর্ঘ সময় পরও জ্বলছে আগুন
  • দমকলের ৩০টি ইঞ্জিন আগুন নেভাচ্ছে
{"effect":"slide-h","fontstyle":"normal","autoplay":"true","timer":4000}


প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনায় তিন বছরে ৫১ লক্ষ বাসস্থান মঞ্জুর

আমাদের ভারত ১১জুলাই:প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা শহরাঞ্চলের প্রকল্পে এখনও পর্যন্ত ৫১ লক্ষ বাসস্থান মঞ্জুর করা হয়েছে। যেখানে গত তিন বছরে রূপায়ণের জন্য ১ কোটি বাসস্থানের চাহিদা ছিল। গতবারের আবাসন প্রকল্পের অনুপাতে এটি বড়সড় পদক্ষেপ বলেই দাবি কেন্দ্রের।

এর আগে এই প্রকল্পের আওতায় দীর্ঘ ৯ বছরে মাত্র ১২.৪ লক্ষ বাসস্থান অনুমোদিত হয়েছিল।

গত তিনবছরে ৫১ লক্ষ অনুমোদিত গৃহের মধ্যে ইতিমধ্যেই ৮ লক্ষ বাড়ি নির্মাণের কাজ সম্পূর্ণ হয়েছে। সেই বাড়ি গুলিতে বাসিন্দারাও চলে এসেছেন।
অন‍্যদিকে ২৮ লক্ষেরও বেশি বাড়ি তৈরির কাজ ইতিমধ্যেই শুরু হয়েছে। সেগুলো নির্মাণের বিভিন্ন স্তরে রয়েছে।

কিন্তু একটি ইংরেজি দৈনিকের প্রতিবেদনে এই প্রকল্পের সম্পর্কে কিছু ভুল তথ্য পরিবেশিত হয়েছে বলে দাবি করেছে কেন্দ্র সরকারের প্রেস ইনফরমেশন ব‍্যুরো।

দৈনিকটিতে বলা হয়েছে, আবাসন নির্মাণের বড়সড় ফাঁক রয়েছে। সেটা পূরণ করতেই প্রস্তাবিত গ্লোবাল হাউসিং কনস্ট্রাকশন টেকনোলজি চ্যালেঞ্জ বা বিশ্বব্যাপী আবাসন নির্মাণ প্রযুক্তি সংক্রান্ত চ্যালেঞ্জটি আনা হয় ।

কিন্তু প্রেস ইনফরমেশন ব‍্যুরো জানিয়েছে এই চ্যালেঞ্জের প্রস্তাব আনার কারণ প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার শহরাঞ্চলের প্রকল্পের অধীনে বড় আকারে নির্মাণের সুযোগ কাজে লাগানো যায়। এর ফলে ন্যূনতম খরচে বাড়িগুলি নির্মাণ করা যায়। একই সঙ্গে খুবকম সময়ে সর্বাধিক সংখ্যক বাড়ি একটি স্বীকৃত এলাকায় গড়ে উঠবে। এটি প্রযুক্তি হস্তান্তরেও সাহায্য করবে আমাদের দেশে। এই নির্মাণ প্রযুক্তি ও নকশা কাজে লাগিয়ে দেশের নির্মাণ শিল্পের বড় ধরণের বিকাশ ঘটানো সম্ভব।

Leave a Reply

avatar
  Subscribe  
Notify of