বিজ্ঞাপনের জন্য আমাদের সঙ্গে যোগাযোগের মাধ্যম : amaderbharatdesk@gmail.com    “ওদেরকে শাস্তি দেওয়ার সময় এসে গেছে” কংগ্রেসকে তোপ যোগগুরু রামদেব বাবার।    রাত পোহালেই রাজ্যে দ্বিতীয় দফায় নির্বাচন।     দার্জিলিং, জলপাইগুড়ি ও রায়গঞ্জ লোকসভা কেন্দ্রে হবে ভোটগ্রহণ।    “টাকার থলি নিয়ে রাস্তায় রাস্তায় ঘুরছে আরএসএসের দালালরা” অভিযোগ মমতার।    সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেলে ছয় মাসের মধ্যেই বিধানসভা ভোট করাব বললেন আলুয়ালিয়া।    ঝাঁটা হাতে কেন্দ্রীয় বাহিনীকে এলাকা ছাড়া করার নিদান রাজ্যের মন্ত্রীর।    কান্দিতে অধীর গড়ে দাঁড়িয়ে কংগ্রেস ও বিজেপিকে তোপ মমতার।    নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার জন্য “ইউনিক কালার কোডিং” ব্যবস্থা।    আরও কড়া হল কমিশন, দুবের মাথায় বসল নতুন পর্যবেক্ষক।    অমিত, যোগীর জোড়া ফলায় মমতাকে ঘায়েলের চেষ্টা বিজেপির।    জয়ের প্রচারে আমতায় রাজনাথ সিং।    ঘাটালে একা কুম্ভ ভারতী।    আজ আপনার কেমন যাবে জেনে নিন।    ভোটের দিনগুলোয় কেন্দ্রীয় নেতাদের এনে কিস্তিমাত করতে কৌশল বিজেপির।


লাইভ অনুষ্ঠানে গিয়ে চরম হেনস্থার শিকার গায়িকা ইমন, জানালেন ফেসবুকে

আমাদের ভারত ডেস্ক, ৭ ফেব্রুয়ারি: লাইভ গানের অনুষ্ঠান এ রাজ্যে যথেষ্ট জনপ্রিয়। বিশেষ করে শীতকাল এলেই এর চাহিদা বাড়ে। আর এই শো করতে গিয়েই রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্ত হেনস্থার শিকার হচ্ছেন গায়িকারা। সেই তালিকাও নেহাত কম নয়। এবার দুর্ব্যবহারের শিকার হলেন জাতীয় পুরস্কার প্রাপ্ত গায়িকা ইমন চক্রবর্তী।

রবিবার রাতে কৃষ্ণনগরে অনুষ্ঠান শেষে রীতিমত ইমন ও তাঁর সহ শিল্পীদের গেট বন্ধ করে আটকে রাখা হল। হুমকি দেওয়া হল, “যেতে দেব না কি করবি কর”। রাতে পুরো ঘটনা ফেসবুক লাইভে নিজেই তুলে ধরলেন গায়িকা। এমনকি কলকাতা ফেরার সময় দ্বিতীয়বার ফেসবুক লাইভে এসে কৃষ্ণনগর পুরসভার বিরুদ্ধেও হেনস্থার অভিযোগ তোলেন ইমন। যদিও অভিযোগ অস্বীকার করেছেন পুরসভার প্রাক্তন চেয়ারম্যান অসীম সাহা। পরে ঘটনার তদন্তের আশ্বাস দিয়েছেন মহকুমা শাসক।

প্রসঙ্গত, এর আগে সোমলতা আচার্য, মেখলা দাশগুপ্তের মতো গায়িকাদের সঙ্গেও অভব্য আচরণ করা হয়েছে।অনুষ্ঠান করতে গিয়ে বারবার এমন হেনস্থার শিকার হতে হওয়ায় ইমনের প্রশ্ন “তাঁরা পেশাদার গায়িকা, টাকার বিনিময় বিভিন্ন জায়গায় গান করেন। কিন্তু টাকা নেন বলে কি শিল্পীর ন্যূনতম সম্মান থাকতে নেই? ” তিনি আরও বলেন “শুধু টাকা নিচ্ছেন বলেই কি গায়িকাদের সঙ্গে যা খুশি করা যায়?”

প্রতিবছর শীতে কৃষ্ণনগর পাবলিক লাইব্রেরির মাঠে জলসার আয়োজন করা হয়। এবার সেই অনুষ্ঠানে ইমন ও তাঁর সহশিল্পীরা পৌঁছলে কোনও আয়োজকই তাঁদের সঙ্গে দেখা করেনি। সামান্য চা জলটুকুও পাননি বলে অভিযোগ গায়িকার।

Leave a Reply

avatar
  Subscribe  
Notify of