আর্জেন্টিনাকে দ্বিতীয় রাউন্ডে যেতে হলে যা যা করতে হবে।    ২০১৯-এ তিনশোর বেশি আসন পাবে বিজেপি!    নির্বংশ তৃণমূলে ২০১৯ এর পর বাতি দেওয়ার লোক থাকবে না : রাহুল সিনহা।    উস্কানিমূলক মন্তব্য ! সায়ন্তন বসুর বিরুদ্ধে মামলা রুজু করলো পুলিশ।    রাজ্য সরকারের নয়, কেন্দ্রের নিরাপত্তা রক্ষী নিতেই ইচ্ছুক মুকুল রায়।    আগেরবারের মত এবারেও শেষ মুহূর্তে বাতিল মুখ‍্যমন্ত্রীর চিন সফর, তবে কারণটা অদ্ভুত।     কোচবিহারে এলে দিলীপ ঘোষকে সাগরদিঘীর জলে দাঁড় করিয়ে রাখার হুঁশিয়ারি মন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষের।    তৃণমূল কংগ্রেস যে-ভাষা বোঝে আমরাও সেই ভাষায় বোঝাব : আবদুল মান্নান।    বধূ নির্যাতনের শিকার খোদ আলিপুরের মহিলা আইনজীবী ! গ্রেফতার স্বামী।    ২০১৯ সালে তৃণমূল দল আর বাংলায় থাকবে না : মুকুল রায়।    ঘি এর নামে কি খাচ্ছেন আপনারা ? জানতে দেখুন।     আপনার এ সপ্তাহ কেমন যাবে জেনে নিন আমাদের সাপ্তাহিক রাশিফল থেকে।
BREAKING NEWS:
  • আজকের বিশ্বকাপ ফুটবলের ফলাফল
  • ৬টার খেলায় ব্রাজিল- ২কোস্টারিকা_0
  • ৯টায় নাইজেরিয়া-২ আইসল্যান্ড-০
  • রাত ১২ টায় সার্বিয়া-১সুইজারল্যান্ড-২
{"effect":"slide-h","fontstyle":"normal","autoplay":"true","timer":4000}


ঘরেতে অভাব, তবুও শিক্ষক হওয়ার স্বপ্ন দেখছে সৌকত

আমাদের ভারত, আউশগ্রাম, বর্ধমান, ১৩জুন:
অনটনের সঙ্গে লড়েই সফল সৌকত পাল। সব প্রতিবন্ধকতাই হার মেনেছে উচ্চ মাধ্যমিকের এই কৃতীর কাছে। সৌকত ভেদিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের বিজ্ঞান বিভাগের ছাত্র। এবার তার প্রাপ্ত নম্বর ৪৩৬। বাবা বিভাষ পাল মৃৎ শিল্পীর কাজ করেন। মা সুলেখাদেবী গৃহবধূ। আর অন্যের বাড়িতে মুড়ি ভাজার কাজ করে উপার্জিত অর্থ সৌকতের পড়াশোনা কাজে লাগান ঠাকুমা হাসিদেবী। সৌকতের এই রেজাল্টে খুশি স্কুলের পড়ুয়া থেকে শিক্ষকরা।
স্কুলের শিক্ষক উত্তম দেবাংশী বলেন, সৌকত বরাবর মেধাবী হিসেবে পরিচিত। শুধু এ বছর নয়, মাধ্যমিক পরীক্ষাতেও সে স্কুলের সর্ব্বোচ্চ নম্বর পেয়েছিল। ফলে বাড়তি আনন্দ, গর্ব হচ্ছে। আমরা ওকে সর্বোতভাবে সাহায্য করার চেষ্টা করি। ছেলের এই সাফল্যে খুবই খুশি সৌকতের পরিবার।

সৌকতের জানিয়েছে, তার পছন্দের বিষয় হল ফিজিক্স। বিশ্বভারতীতে ফিজিক্স অনার্সে ভর্তি হওয়ায় তার ইচ্ছা। আর পরবর্তীতে পিএচডি করে শিক্ষকতা করাই তার স্বপ্ন, যাতে ভবিষ্যতে দরিদ্র পড়ুয়াদের পাশে থাকতে পারে। এবার সৌকতের প্রাপ্ত নম্বর ফিজিক্সে ৮৫, অঙ্কে ৯৬, কেমেষ্ট্রিতে ৮২, ইংরেজিতে ৯০ ও বায়োলজিতে ৮৩। এই রেজাল্টের জন্য শিক্ষকদের ভূমিকা অতুলনীয় বলেই জানিয়েছে সৌকত। তার গৃহশিক্ষকরাও বেতন না নিয়ে পাশে দাঁড়িয়েছেন। তবে হতদরিদ্র পরিবারের সন্তান সৌকতের উচ্চ শিক্ষায় যাতে সমস্যা না হয়, সেটা দেখার আশ্বাস দিয়েছেন আউসগ্রাম ২নং পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি। পরিবারের একমাত্র রোজগেরে সৌতকের বাবা প্রশাসনিক সহযোগিতার আবেদন জানিয়েছেন। যাতে সৌকতকে উচ্চ শিক্ষিত করা যায়। এখন দেখার সৌকতের উচ্চশিক্ষায় কি অন্তরায় হয়ে দাড়াবে দারিদ্রতা ?

loading...

Leave a Reply

Be the First to Comment!

avatar
  Subscribe  
Notify of