বিজ্ঞাপনের জন্য আমাদের সঙ্গে যোগাযোগের মাধ্যম : amaderbharatdesk@gmail.com    ১৯শেই সাফ তৃণমূল : মোদী।    চিটফান্ড কেলেঙ্কারিতে জেলে যাবেন পার্থ : কৈলাশ বিজয়বর্গীয়    আমি বিজেপির ভয়ানক বিরোধী, কিন্তু এটা উকিলের চোখে ধরা পড়ছে মূর্তি টিএমসিপি ভেঙেছে : অরুণাভ ঘোষ।    মুখ্যমন্ত্রীর প্ররোচনায় নরসংহার শুরু করতে পারে তৃণমূল, রাজ্যে কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েনের দাবি বিজেপির।    তৃণমূল বিদ্যাসাগরের মূর্তি যে ভেঙ্গেছে সেখানে পঞ্চ ধাতুর মূর্তি বানিয়ে দেব : ঘোষণা মোদীর।    সারদা নরদা নিয়ে বড় বড় কথা আর চিটফান্ডের মালিকের মাঠে সভা করছে প্রধানমন্ত্রী : মমতা।    কমিশনের নির্দেশ অমান্য ! স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকে গরহাজির রাজীব কুমার।    এবার লালবাজারে ডাকা হতে পারেন অমিত শাহকে!    ক্ষুব্ধ ঝাড়গ্রামের নীরব অপেক্ষা ফলাফলের জন্য।    “নারী শিক্ষার দিশারীকে ভূ-লুন্ঠিত হতে হল বাঙালীদের হাতে, এর থেকে লজ্জা কি আছে?”: ক্ষোভ বীরসিংহবাসীর।    রানাঘাটের মত নিশ্চিত আসনেও সিঁদুরে মেঘ দেখছে তৃণমূল।    মহামিছিল করে ভাটপাড়ায় প্রচার শেষ করতে চান মদন।    আজ আপনার কেমন যাবে জেনে নিন।    নির্বাচনের আগে ভোট পরিস্থিতি খতিয়ে দেখলেন বিশেষ পুলিশ পর্যবেক্ষক বিবেক দুবে।


দূষণ রোধে ভোট প্রচার, অভিনব উদ্যোগ শ্রীরামপুরের যুককের

আমাদের ভারত, হুগলী, ৫ মে: ভোট প্রচারেও এবার দূষণ রোধের কৌশল। হ্যাঁ এমনই উদ্যোগ নিয়েছেন শ্রীরামপুরের এক যুবক।
হুগলী জেলার বেশ কয়েকটি পুরসভা ইতিমধ্যেই প্লাস্টিক ব্যাগ নিষিদ্ধ করেছে পুর এলাকায়। বৈদ্যবাটী, বাঁশবেড়িয়া পুরসভা প্লাস্টিকের ক্যারি ব্যাগ বন্ধের জন্য প্রচার, ধরপাকড় এমনকি বিকল্প হিসাবে পাট এবং কাপড়ের ব্যাগের পরিকল্পনা তুলে এনছে। সেই ধারনাকে সামনে রেখে শহরের বেশ কিছু ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান প্লাস্টিকের ক্যারিব্যাগ বন্ধও করেছেন। কিন্তু একশো শতাংশ কাজ এখনও হয়নি। তাই ভোট বাজারে সেই উদ্যোগকে কাজে লাগাতে টিস্যু ব্যাগের উপর দলীয় প্রতীক ছেপে ভোট প্রচারের ধারনা সামনে আনলেন শ্রীরামপুর এর এই তরুন।

ফ্লেক্স,ব্যানার, পতাকা থেকে হালের সোশাল সাইট তো আছেই। কিন্তু নিত্যদিনের বাজারের সময় যদি প্লাস্টিক বন্ধে এই ব্যাগের ব্যবহার করা যায় ক্ষতি কি? রাজনৈতিক দলগুলি তাদের প্রচারও যেমন করবেন তেমনি সাধারন মানুষও সচেতন হবেন প্লাস্টিক বন্ধে।

তৃণমূলের ঘাসফুল, বিজেপির পদ্ম, সিপিএমের কাস্তে হাতুড়ি বা কংগ্রেসের হাত সব প্রতীকের সঙ্গে রয়েছে তাদের প্রার্থীদের ভোট দেওয়ার আবেদন, আর শেষে প্লাস্টিক বন্ধে সবিনয় আবেদন।
দেশের সরকার গড়তে আর বেশীদিন বাকি নেই তাই প্রতি কেজি ওজন দরে এই ব্যাগের অর্ডার দিলেই খুব তাড়াতাড়ি তা পৌছে দেওয়ার ব্যবস্থা করছেন উদ্যোক্তারা। দাম তাও সাধ্যের মধ্যেই। তাই দূষণ রোধের ভোট প্রচার যে ২০১৯ স্পেশাল তা বলাই যায়।

Leave a Reply

avatar
  Subscribe  
Notify of