বিজ্ঞাপনের জন্য আমাদের সঙ্গে যোগাযোগের মাধ্যম : amaderbharatdesk@gmail.com    “ওদেরকে শাস্তি দেওয়ার সময় এসে গেছে” কংগ্রেসকে তোপ যোগগুরু রামদেব বাবার।    রাত পোহালেই রাজ্যে দ্বিতীয় দফায় নির্বাচন।     দার্জিলিং, জলপাইগুড়ি ও রায়গঞ্জ লোকসভা কেন্দ্রে হবে ভোটগ্রহণ।    “টাকার থলি নিয়ে রাস্তায় রাস্তায় ঘুরছে আরএসএসের দালালরা” অভিযোগ মমতার।    সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেলে ছয় মাসের মধ্যেই বিধানসভা ভোট করাব বললেন আলুয়ালিয়া।    ঝাঁটা হাতে কেন্দ্রীয় বাহিনীকে এলাকা ছাড়া করার নিদান রাজ্যের মন্ত্রীর।    কান্দিতে অধীর গড়ে দাঁড়িয়ে কংগ্রেস ও বিজেপিকে তোপ মমতার।    নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার জন্য “ইউনিক কালার কোডিং” ব্যবস্থা।    আরও কড়া হল কমিশন, দুবের মাথায় বসল নতুন পর্যবেক্ষক।    অমিত, যোগীর জোড়া ফলায় মমতাকে ঘায়েলের চেষ্টা বিজেপির।    জয়ের প্রচারে আমতায় রাজনাথ সিং।    ঘাটালে একা কুম্ভ ভারতী।    আজ আপনার কেমন যাবে জেনে নিন।    ভোটের দিনগুলোয় কেন্দ্রীয় নেতাদের এনে কিস্তিমাত করতে কৌশল বিজেপির।


তপন দাস তাঁর মাতৃ শ্রাদ্ধে বন্যার্তদের দিলেন ১০ হাজার টাকা

আমাদের ভারত, ১৬ সেপ্টেম্বর: কলকাতার নিমতা নিবাসী শিক্ষক তপন দাস তার পরলোকগতা মা বাসন্তীদেবীর শ্রাদ্ধানুষ্ঠানে ‘দেশের মাটি’ এবং ‘হিউম্যান রাইটস’ হোয়াটস অ্যাপ গ্রুপ দ্বারা পরিচালিত দক্ষিণ দিনাজপুরের তপনে বন্যাত্রাণে ১০,০০১ টাকার চেক দান করেছেন। ওই অনুষ্ঠানে তারই আত্মীয় সুশান্ত দাস ৫০০১ টাকা দিয়েছেন সেবা ভারতীর সহযোগী সংস্থা ‘কর্মযোগী’ হোয়াটস অ্যাপ গ্রুপকে, যারা মহালয়ার পুণ্যদিনে খড়দহ কর্ণমাধবপুরের বিবেকানন্দ সেবা কেন্দ্রের সহায়তায় পরিচালিত দুঃস্থ পরিবারে নববস্ত্র দানের জন্য খরচ করবেন। এই দুটি দান তপনবাবুর পুত্র তুলে দিয়েছেন সংস্থাগুলির সেবাকাজে যুক্ত অধ্যাপক ড. কল্যাণ চক্রবর্তীর হাতে। শ্রাদ্ধদিবসে উপস্থিত অভ্যাগত সমাবেশে অধ্যাপক চক্রবর্তী বলেন, আত্মা অবিনশ্বর, তাকে সৃষ্টি বা ধ্বংস করা যায় না। এটি ভারতীয় শাস্ত্রের খুব গভীর চিন্তন। মৃতের শুভ আত্মা শুভঙ্করী শক্তির সহায়ক। বাসন্তীদেবীর আত্মার শান্তি কামনা করে তিনি বলেন এই মহার্ঘ দান তপনে ডাক্তার শুভদীপ চ্যাটার্জির তত্ত্বাবধানে পরিচালিত বন্যাত্রাণে ব্যয় করা হবে। পূর্বে বহু অর্থ ও ত্রাণ সামগ্রী সংগ্রহ করে সেখানে পাঠানো গেছে। এই কাজে ‘ভারত বিকাশ পরিষদ’ ও ‘সমস্ত মহাজন’ গোষ্ঠী থেকে পাওয়া টাকা দিয়ে ‘দেশের মাটি’ ও ‘হিউমান রাইটস’ গ্রুপ বানভাসিদের খাবার ও জল সরবরাহ করেছিল। স্বামী বিবেকানন্দের আদর্শেই সেবাকাজে এগিয়ে এসেছেন হোয়াটস অ্যাপ গ্রুপ দু’টির অনেক সদস্য। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন উত্তর চব্বিশ পরগণার বহু দেশাত্মবোধী সমাজসেবী মানুষ। তারা এই উদ্যোগের ভূয়সী প্রশংসা করেছেন।

Leave a Reply

avatar
  Subscribe  
Notify of