বিশ্বকাপে ফুটবল মাঠে বরাবর‌ই স্বপ্রতিভ ছিলেন ক্রোট প্রসিডেন্ট।    ফরাসীদের বিশ্বকাপ জয়, আনন্দে মাতল চন্দননগর।    বিশ্বকাপের মহারণে মাঠে সাক্ষী থাকলেন মহারাজ।    সমুদ্রে মাছ ধরতে গিয়ে নিখোঁজ তিনটি ট্রলার সহ ১৯ মৎস্যজীবী।    মা মাটি মানুষের সরকার সিন্ডিকেটের ইচ্ছাতেই চলছে : মোদী।    কৃষকদের উন্নতির জন্য বিজেপির অাগে কেউ এত ভাবেনি : মোদী।    মেটিয়াবুরুজে দুর্ঘটনায় মৃত বাবা-মেয়ে, প্রতিবাদে ১০টি গাড়িতে ভাঙচুর ক্ষুব্ধ জনতার।    তৃণমূলের জুলুম থেকে আর কয়েক মাসের মধ্যেই মিলবে মুক্তি : মোদী।     হাতজোড় করে স্বাগত জানালেন মমতা! ধন্যবাদ জানালেন মোদী।    মোদীর সভায় চাঁদোয়া ভেঙ্গে অাহত ৩০।    পুলিশের বাধায় প্রধানমন্ত্রীর সভায় যেতে পারলেন না অনেকে, খড়্গপুরে বিজেপি কর্মীদের হাতে আক্রান্ত পুলিশ।    বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে কিশোরীকে ধর্ষণ, গ্রেপ্তার সিভিক ভলান্টিয়ার।    বজবজে ভাইস চেয়ারম্যান অনুগামীদের বিরুদ্ধে বিজেপি কর্মীদের মারধর,বাড়ি ভাঙ্গচুরের অভিযোগ।    আপনার দিনটি কেমন যাবে জেনে নিন আমাদের দৈনিক রাশিফল থেকে।    চিৎপুরের যাত্রাপাড়ায় বিশেষ গিমিক টেলিভিশন সিরিয়ালের জুটি।    মস্তিষ্কের পুষ্টিতে সুপ অপরিহার্য, বলছেন খাদ্য বিশেষজ্ঞরা।
BREAKING NEWS:
  • ২০১৮ বিশ্বকাপ ফুটবলে জয়ী ফ্রান্স।
  • ফাইনালে ফ্রান্স-৪ ক্রোয়েশিয়া-২
  • তৃতীয় স্থানের খেলায় বেলজিয়াম জয়ী
{"effect":"slide-h","fontstyle":"normal","autoplay":"true","timer":4000}


২০১৯-র লোকসভা ভোটে বাজিমাত করতে সাইবার যুদ্ধে নামছে বিজেপি

আমাদের ভারত,কলকাতা, ১১ জুলাই: সামাজিক মাধ্যমে বিরোধীদের কোনও ছাড় নয়, ২০১৯এর লোকসভায় জম্মু-কাশ্মীর থেকে কন্যাকুমারী পর্যন্ত দলের সাইবার যোদ্ধাদের আগুনের মতো ছড়িয়ে পড়ার নির্দেশ দিয়েছেন বিজেপির কেন্দ্রীয় সভাপতি অমিত শাহ।

সম্প্রতি শুধু জনসভা বা রোড শো নয়, অনলাইনে বিভিন্ন সামজিক মাধ্যমকে নির্বাচনী প্রচারের প্রধান হাতিয়ার করার নির্দেশ দিয়েছেন অমিত শাহ। ফেসবুক, হোয়াটসআপ, টুইটার, সহ বিভিন্ন সামাজিক মাধ্যমে দলের কর্মরত সদস্যদের প্রতি তিনি আহ্বান জানিয়ে বলেছেন,‘স্বেচ্ছাসেবীরা তাঁদের সৃজনশীল মনোভাবকে কাজে লাগিয়ে বিরোধীদের পরাজিত করতে এবং বিজেপি ও প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বিরুদ্ধে’ মিথ্যা প্রচারের বিরুদ্ধে উপযুক্ত জবাব দিতে তৈরী হন।’

গেরুয়া শিবিরের এধরণের আগ্রাসী সামাজিক মাধ্যম নীতিতে এটা স্পষ্ট, ২০১৯ এর নির্বাচনে বিজেপি অনলাইনকে কাজে লাগিয়ে ব্যাপক ভাবে ভোটারদের নিজেদের দিকে টানতে প্রস্তুতি নিচ্ছে। এবিষয়ে তাদের প্রথম লক্ষ্য অবশ্যই তরুণ প্রজন্ম।এর জন্য দেশের বিভিন্ন রাজ্যে সফরে গিয়ে অমিত শাহ সামাজিক মাধ্যমে দলীয় প্রচারকেই বেশি গুরুত্ব দিচ্ছেন। বিরোধিদের প্রচারকে ঘায়েল করতে একটি আক্রমাণত্বক অনলাইন মিডিয়া কৌশলের পরিকল্পনা করা হয়েছে,এমনটাই বিজেপি সূত্রের খবর।

সম্প্রতি পুণেতে অমিত শাহ বিজেপির সাইবার যোদ্ধাদের সঙ্গে এক বৈঠকে বলেছেন,‘আমি এখনো বিশ্বাস করি না যে এটি বিজেপি এর সোনার যুগ। আমরা কেরালা, পশ্চিমবঙ্গ, তামিলনাড়ু ও তেলেঙ্গানা জয় করতে এখনও বাকি রয়েছে।’

সূত্রের খবর, বাংলায় সফরে এসে অমিত শাহ রাজ্য বিজেপির সাইবার সেলের সদস্যদের সঙ্গে বৈঠকে নির্দেশ দিয়েছেন, একটি ডাটা বেস তৈরি করে বিজেপির স্বচ্ছ দিকটা ভোটারদের কাছে তুলে ধরতে।এই বৈঠকে তিনি টার্গেট বেঁধে দিয়ে বলেছেন, ‘রাজ্যের ৭৫ শতাংশ মানুষের কাছে পৌঁছাতে। কেন্দ্রীয় সরকারের বিভিন্ন প্রকল্পগুলির কথা তুলে ধরতে হবে।’

বাংলায় লোকসভা নির্বাচনের প্রচারে সামাজিক মাধ্যমকেই হাতিয়ার করতে হবে একথাও স্পষ্ট জানিয়ে তিনি এও বলেছেন,‘৪২টি লোকসভা আসন ধরেই তৃণমূলতে হারাতে হাতিয়ার হবে সামাজিক মাধ্যম।’
অন্যদিকে, চুপ করে বসে নেই রাজ্যের শাসকদল তৃণমূল। বিজেপির সাইবার সেলের অনলাইনের ধাক্কা সামলাতে ইতিমধ্যেই রীতিমতো প্রশিক্ষণ দিয়ে সাইবার যোদ্ধা তৈরী করছে তৃণমূল এমনটাই সূত্রের খবর। আর এর জন্য দায়িত্ব পেয়েছেন বিজেপি থেকে আগত কর্নেল দীপ্তাংশু চৌধুরী ও সুর্পণ মৈত্রকে। যদিও এদের মাথার ওপর থাকছেন ডেরেক ও ব্রায়েন।
সূত্রের খবর, শুধু রাজ্যে নয়,লোকসভা নির্বাচনকে সামনে রেখে সর্বভারতীয় স্তরে দলের প্রচার করতে এই সেল সক্রিয় হচ্ছে। টার্গেট নেওয়া হয়েছে, আগামী অক্টোবরের মধ্যে ফেসবুক, হোয়াটসঅ্যাপ এবং টুইটারের মাধ্যমে প্রায় ২ কোটি মানুষের কাছে পৌঁছনোর লক্ষ্য স্থির করা হয়েছে। দলের প্রায় এক হাজার সদস্যকে এর সঙ্গে যুক্ত করা হবে।

loading...

Leave a Reply

Be the First to Comment!

avatar
  Subscribe  
Notify of