১৩ শিশুর মৃত্যুর কারণ মোবাইল ফোন।    কাশ্মীরের মুখ‍্যমন্ত্রীকে জেহাদি বললেন কাঠুয়াকান্ডে অভিযুক্তদের আইনজীবী।    ১৪ মে বাংলায় পঞ্চায়েত নির্বাচন, ১৭ মে গণনা! অবশেষে দিন ঘোষণা নির্বাচন কমিশনের।    টিকিট দেয়নি দল, তৃণমূল ছেড়ে কংগ্রেসে যোগ দুবারের বিজয়ী লড়াকু প্রার্থীর।    ‘গণতন্ত্রকে বলি দিয়ে, সংবিধানকে কচু কাটা করে কী প্রয়োজন এই ভোটের?’ প্রশ্ন তুললেন প্রাক্তন বিচারপতি অশোক গঙ্গোপাধ্যায়।    পঞ্চায়েত ভোটে ‘বিজেপির জয়ের কলঙ্ক’ থেকে পশ্চিমবঙ্গকে মুক্ত রাখার ডাক বুদ্ধের।    চার্জ দেওয়া অবস্থায় মোবাইল ফোনে কথা বলতে গিয়ে মৃত্যু কিশোরের।     পঞ্চায়েত নির্বাচনের দিন ঘোষনা হওয়ার খুশি মুখ্যমন্ত্রী।    একদফা ভোট নিয়ে বিজেপির কোনও আপত্তি নেই।    অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনের দাবিতে অবস্থানে বসবে বামেরা : বিমান বসু।    নারকেলডাঙার রাজাবাজারে মিলল ২০ হাজার কেজি ভাগাড়ের মাংস, শহর জুড়ে তল্লাশি।    আপনার এ সপ্তাহ কেমন যাবে জেনে নিন আমাদের সাপ্তাহিক রাশিফল থেকে।
BREAKING NEWS:
  • ভোটের দিন ঘোষনা হল।
  • সারা রাজ্যে 14 মে একদফায় ভোট।
  • ভোটে নিরাপত্তা নিয়ে প্রশ্ন বিরোধীদের।
  • পঞ্চায়েত ভোট গননা 17 মে।
{"effect":"slide-h","fontstyle":"normal","autoplay":"true","timer":4000}


সমাধি থেকে তুলে মৃতের মাথা কাটার অভিযোগ

আমাদের ভারত, সিউড়ি, ১২ জানুয়ারি:  বীরভূমের পাঁড়ুই থানার বল্লভপুর গ্রামে সমাধি থেকে এক মহিলার মৃতদেহের মাথা কাটার ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়াল । পরিবারের দাবি তন্ত্রসাধনার জন্যই দুষ্কৃতীরা সমাধি থেকে মৃতদেহ তুলে মাথা কেটে নেওয়া হয়েছে। তবে কাটা মাথা কিছুটা দূরে ফেলে পালিয়ে যায় দুষ্কৃতীরা।
জানা গিয়েছে, পাঁড়ুই থানার রাধাকৃষ্ণপুর গ্রামের বাসিন্দা অশ্বিনী সর্দার (৭৫) মারা যান বুধবার রাতে। পরদিন সকালে ওই আদিবাসী বৃদ্ধার মৃতদেহ গ্রাম সংলগ্ন বল্লভপুর গ্রামের কাছে কোপাই নদীর ধারে নির্দিষ্ট স্থানে সমাধি দেন ছেলেমেয়েরা। এদিন ওই মহিলার মৃত্যুতে ক্ষৌরকর্ম ছিল পরিবারের। সেই জন্য বাজার থেকে সমস্ত জিনিসপত্র কিনে বাড়ি ফিরে যাতে পারেন অশ্বিনীদেবীর কাটা মাথা একটি ব্রিজের নিজে পড়ে রয়েছে। শুক্রবার সকালে এলাকার মানুষ ব্রিজের নিচে মহিলার কাঁটা মাথা পড়ে থাকতে দেখেন। পাশেই রয়েছে লোহার ধারালো অস্ত্র।

ছেলে অসুর সর্দার বলেন, “মা দীর্ঘদিন থেকে অসুস্থ ছিলেন। আমরা সাত ভাই বোন মায়ের দেখাশোনা করতাম। দিন সাতেক থেকে খাওয়াদাওয়া বন্ধ করে দিয়েছিলেন। বুধবার রাতে মায়ের মৃত্যু হয়। আমরা দিনমজুর করে সংসার চালায়। ফলে কাছেই সমাধি দিয়ে চলে আসি। এদিন সকালে বাজার থেকে ফেরার পথে পুলিশ এবং গ্রামের বাসিন্দাদের কাছ থেকে মায়ের কাট মাথা পড়ে থাকার খবর পায়। আমার মনে হচ্ছে কেউ তন্ত্রসাধনার জন্য মৃতদেহ সমাধি থেকে তুলে মাথা কেটে নেয়। কিন্তু কোন কারণে তারা মাথা নিয়ে যেতে পারেনি”। তবে এনিয়ে মুখ খুলতে চায়নি পুলিশ”।

loading...

Leave a Reply

Be the First to Comment!

avatar
  Subscribe  
Notify of