যেকোন রকম বিজ্ঞাপনের জন্য আমাদের সঙ্গে যোগাযোগের মাধ্যম : amaderbharatdesk@gmail.com    ৩ হাজারের বেশি অ্যান্টি ট্যাংক মিসাইল কিনতে পারে ভারত ফ্রান্স থেকে।     কংগ্রেসের ইস্তেহারে রামমন্দির যুক্ত হলে আমরা তাদের সমর্থনের কথা ভাবতে পারি : ভিএইচপি।    বিজেপির বিরুদ্ধে কংগ্রেসের প্রার্থী হতে পারেন করিনা কাপুর।    মমতা নয় রাহুলকেই নেতা দেখতে চান তারা, ব্রিগেডের পরেই জানালেন তেজস্বী, স্টালিনরা।     একসময় কাগজ কুড়াতেন আজ চণ্ডীগড়ের মেয়র এই বিজেপি নেতা।    ব্রিগেডে খরচের উসুল তুলতে ব্যর্থ তৃণমূল, সোশ্যাল মিডিয়ায় মোদিকে হারিয়েই সন্তুষ্ট।    মালদায় অমিত শাহ-যোগীর সভা সফল করার জন্য বিজেপির তিন প্ল্যান।    ব্রিগেডের সভার বদলে আসানসোলে সভা করবে প্রধানমন্ত্রী, জানালেন দিলীপ ঘোষ।    জম্মু-কাশ্মীরে একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাবে বিজেপি , দাবি রাম মাধবের।    জয়নগরে অমিত শাহের সভার আগেই রাস্তাঘাট তৃণমূলের দখলে।    লোকসভা নির্বাচনকে মাথায় রেখে সফরে জিটিএর প্রতি মুক্তহস্ত মমতা।    ডুয়ার্সে চিতাবাঘের চামড়া সহ আটক পাঁচ চোরাচালানকারী।    আজ আপনার কেমন যাবে জেনে নিন।    বিজেপি নেতার মাতৃবিয়োগে সমবেদনা জানাতে দুর্গাপুরে রাজ্যপাল।


তৃণমূল-বিজেপি সংঘর্ষে অবরুদ্ধ সেন্ট্রাল অ্যাভিনিউ, কলঙ্কিত বিবেকানন্দের জন্মদিন

আমাদের ভারত, কলকাতা, ১২ কলকাতা: তৃণমূল-বিজেপি সংঘর্ষে রণক্ষেত্রের চেহারা নিল উত্তর কলকাতার জোড়াবাগান এলাকা৷ ঘটনার জেরে অবরুদ্ধ হয়ে পড়ল গোটা সেন্ট্রাল অ্যাভিনিউ। এই ঘটনায় চার বিজেপি কর্মী গুরুতর আহত হয়েছেন৷ ঘটনাস্থলে গিয়েছেন স্থানীয় বিধায়ক শশী পাঁজা৷ মণীষীর জন্মদিনে রাজনৈতিক অশান্তি রাজ্যেরই মুখই কলঙ্কিত করল বলে মনে করছেন অনেকে।

ঘটনার সূত্রপাত, বিজেপির প্রতিরোধ সংকল্প অভিযান ঘিরে৷ বিজেপির অভিযোগ, শুক্রবার সকালে পাথুরিয়াঘাটা স্ট্রিটে যখন দলীয় কর্মীরা মিছিলে যোগ দেওয়ার জন্য জড়ো হচ্ছিলেন, ঠিক সেই সময়, যুব মোর্চা কর্মী-সমর্থকদের উপর হামলা চালায় একদল তৃণমূল কর্মী। এমনকি স্থানীয় বিনানী গেস্ট হাউসের ভিতর তাদের আটকে রাখা হয় বলেও অভিযোগ৷ পুলিশের সামনে স্থানীয় তৃণমূল নেতার উপস্থিতিতেই এই হামলা চালানো হয়েছে বলে বিজেপির পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়েছে৷
বিজেপির অভিযোগ অস্বীকার করেছে তৃণমূল৷ তাদের পাল্টা অভিযোগ, বিজেপি কর্মীরা মত্ত অবস্থায় পথচলতি মহিলাদের কটূক্তি করছিল। তার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানিয়েছে তৃণমূল। দুপক্ষই থানায় অভিযোগ দায়ের করেছে৷
সংঘর্ষের কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই এদিন ঘটনাস্থলে আসেন স্থানীয় বিধায়ক শশী পাঁজা৷ সংবাদমাধ্যমকে তিনি বলেন, বিজেপি বাইক করতেই পারে৷ কিন্তু তার জন্য লাঠি নিয়ে আসার কী প্রয়োজন হল বুঝতে পারছি না৷ আমাদের ২৪ নম্বর ওয়ার্ডের এক কর্মীকে ওরা মেরেছে৷ কোন উদ্দেশ্যে ওরা এটা করল জানি না৷
এদিকে, আহত চার বিজেপি কর্মীকে আর জি কর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে প্রাথমিক চিকিৎসার পর ছেড়ে দেওয়া হয়৷ ঘটনার পর গোটা সেন্ট্রাল অ্যাভিনিউ জুড়ে বিক্ষোভ দেখাচ্ছে বিজেপি কর্মী-সমর্থকরা৷

Leave a Reply

avatar
  Subscribe  
Notify of