যেকোন খবরের জন্য আমাদের সঙ্গে যোগাযোগের মাধ্যম : amaderbharatnews@gmail.com    এই বছরই দ্বিতীয় বার লালকেল্লায় জাতীয় পতাকা উত্তোলন করতে চলেছেন মোদী, জানেন কি কেন।    আদিবাসী শিশুদের নতুন জামাকাপড় দিল হিন্দু সংহতি।    ধুনুচি নাচ থেকে পেটপুরে ভুরিভোজ, পুজোয় মেতে উঠেছে আট থেকে আশি।    “লোকসভা নির্বাচনের আগে চালু হবে ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রো”: বাবুল সুপ্রিয়।    পুজো স্পেশাল শপিং অফার চালু করল স্টেট ব্যাংক অফ ইন্ডিয়া।    পুজোর মধ্যেও রাজনৈতিক সংঘর্ষ, গুড়াপে আক্রান্ত বিজেপি, বাড়ি ভাঙ্গচুর, আগুন।    ট্যাংরার গুদামে ভয়াবহ অাগুন, ঘটনাস্থলে দমকলের ৫টি ইঞ্জিন।    কল্যাণী হাইওয়েতে বেপরোয়া গতির বলি বাইক আরোহী।    ট্রেনে এবার ঝাঁকুনি ফ্রি সফর।    মেদিনীপুরে শিল্পের উন্নত পরিকাঠামো গড়তে মুখ্যমন্ত্রীর উদ্যোগ।    র‍্যাফটিং করতে গিয়ে তিস্তার জলে তলিয়ে মৃত্যু ভিন রাজ্যের মহিলার।    ভাড়াটিয়ার পরকীয়ায় বাধা দিয়ে সোনারপুরে খুন বাড়ির মালিক।    আজ আপনার কেমন যাবে জেনে নিন।    পুজোর মরসুমে বালুরঘাটে জমে উঠেছে রমরমা জুয়ার আসর।
BREAKING NEWS:
  • আজ মহানবমী।
  • সকাল থেকেই মন্ডপে মন্ডপে ভীড়।
{"effect":"slide-h","fontstyle":"normal","autoplay":"true","timer":4000}


ফের ধাক্কা বিরোধীদের, নয়া সমীকরণেই রাজ‍্যসভায় কেল্লা ফতে মোদী- শাহের

শ্রীরূপা চক্রবর্তী, আমাদের ভারত,৯ আগস্ট: দেশের আঞ্চলিক দলগুলি একত্রিত হয়ে বিজেপিকে ক্ষমতাচ্যুত করার স্বপ্ন দেখছেন। অথচ দ-ুদুটি আঞ্চলিক দলের মদতেই কেল্লা ফতে করল বিজেপি। ডেপুটি চেয়ারম্যান নির্বাচনে জয় অবশ্যই মোদী-অমিতকে বাড়তি অক্সিজেন সরবরাহ করল লোকসভা নির্বাচনের আগে। আর এই জয় এর টি এস আর ও বিজেডির মত আঞ্চলিক দলগুলির হাত ধরে।

আজকের সংসদে ডেপুটি চেয়ারম্যানের নির্বাচনে
এনডিএ প্রার্থী হরিবংশ নারায়ণ জয়লাভ করেছেন। আস্থা ভোটের পর বিরোধীদের আর একবার ধাক্কা দিল বিজেপি। সংসদের উচ্চকক্ষে শরিক নিয়ে বিজেপির সংখ্যা ছিল ৮৯ অথচ ম‍্যাজিক ফিগার ১১৮। অন‍্যদিকে ইউপিএর ছিল ৬৬। সেখানে আঞ্চলিক দলগুলির হাতে ছিল ৮৩। ফলে তারাই ফ‍্যাক্টর ছিল এই নির্বাচনে। কিন্তু ফলাফলে দেখা গেল এনডিএ প্রার্থী পেল ১২৫ ও বিরোধী প্রার্থী পেল ১০৫। অর্থাৎ এনডিএ প্রার্থীকে সমর্থন করেছেন একটা ভালো অংশের আঞ্চলিক দল।

কেন্দ্রে অবিজেপি সরকার গঠনের লক্ষ্যে মমতা, মায়াবতী,অখিলেশ‌,স্টলিন,চন্দ্র বাবু নাইডুর আঞ্চলিক দল একজোট হয়ে ময়দানে নামার চেষ্টা করেছেন। সেখানে বেশ কয়েকবার বিজেপিকে নিজের শরিক দলের হুঁশিয়ারির মুখে পড়তে হয়েছে। কিন্তু যতই হুঁশিয়ারি দিক তারা যে বিজেপির সঙ্গ ত্যাগ করেনি তা আস্থা ভোটেই প্রমাণিত। শিবসেনা সেদিন ভোটদানে বিরত ছিল। রাজনীতিতে নিরপেক্ষতাকে শাসকদলের প্রতি সম্মতির লক্ষণ হিসেবেই দেখা হয়। আর ডেপুটি চেয়ারম্যান নির্বাচনে তো বিজেপি একপ্রকার বাজিমাত করে দিল। টিএস আর ও বিজেডির মত আঞ্চলিক দলগুলির সমর্থনে এই জয় ছিনিয়ে নিল বিজেপি। ধাক্কা খেল ফেডারেল ফ্রন্ট।

নবান্নে গিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে টিএসআর প্রধান কথা বলে এসেছিলেন। ধারণা হয়েছিল টিএসআর ফেডারেল ফ্রন্টে যোগ দিতে চলেছেন। কিন্তু না সেই আশায় জল পড়ে যায় যখন মোদীর সঙ্গে টিএসআর প্রধানের বৈঠক হয়। বৈঠকের নির্যাস লোকসভা নির্বাচনের পর টিএসআর বিজেপিকে সমর্থন দেবে। আর এভাবেই ফেডারেল ফ্রন্টের একটা সৈনিককে মোদী ছিনিয়ে নিতে সক্ষম হলেন। আর মোদীর এই সফলতা প্রমাণ হয়ে গেল সংসদে ডেপুটি চেয়ারম্যান নির্বাচনেই।

লোকসভা নির্বাচনে দামামা বাজলেও সময় এখনো বাকি। তারমধ্যে উল্টে পাল্টে যেতে পারে আপাত দৃষ্টিতে দেখা রাজনীতির হিসেব নিকেষ। ইতিমধ্যেই দুটি অবিজেপি আঞ্চলিক দল বিরোধীদের ফ্রন্টে ঢুকব ঢুকব করে চলে এলেন এনডিএতে। এতে অবশ্যই মোদী ম‍্যাজিকটাই যে কাজ করেছে তারা বলার অপেক্ষা রাখে না।

মোদীর সঙ্গে বৈঠকের পরেই টিএসআরের বিজেপিকে নির্বাচনের পর সমর্থনের আশ্বাস। আর ডেপুটি চেয়ারম্যান নির্বাচনের জন‍্য বিজেডি অধিনায়ক নবীন পটনায়েককে মোদীর করা ফোনের পরেই তাদের এনডিএ প্রার্থীকে সমর্থন।

রাজনৈতিক মহলের মতে,সমীকরণ বদলাচ্ছে। অন‍্যদিকে
আঞ্চলিক দলগুলোর চরিত্র পরিবর্তন সময় সুযোগে উপর নির্ভরশীল। আর সেটাকে বিজেপি কাজে লাগাতে ইতিমধ্যেই আসরে নেমে পড়েছে। আজকের নির্বাচনের ফলাফল বলেছে এনডিএর জন‍্য বিজেপির নতুন শরিক খোঁজার কাজ ঠিক পথেই এগোচ্ছে।

Leave a Reply

avatar
  Subscribe  
Notify of