যেকোন খবরের জন্য আমাদের সঙ্গে যোগাযোগের মাধ্যম : amaderbharatnews@gmail.com    এই বছরই দ্বিতীয় বার লালকেল্লায় জাতীয় পতাকা উত্তোলন করতে চলেছেন মোদী, জানেন কি কেন।    আদিবাসী শিশুদের নতুন জামাকাপড় দিল হিন্দু সংহতি।    ধুনুচি নাচ থেকে পেটপুরে ভুরিভোজ, পুজোয় মেতে উঠেছে আট থেকে আশি।    “লোকসভা নির্বাচনের আগে চালু হবে ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রো”: বাবুল সুপ্রিয়।    পুজো স্পেশাল শপিং অফার চালু করল স্টেট ব্যাংক অফ ইন্ডিয়া।    পুজোর মধ্যেও রাজনৈতিক সংঘর্ষ, গুড়াপে আক্রান্ত বিজেপি, বাড়ি ভাঙ্গচুর, আগুন।    ট্যাংরার গুদামে ভয়াবহ অাগুন, ঘটনাস্থলে দমকলের ৫টি ইঞ্জিন।    কল্যাণী হাইওয়েতে বেপরোয়া গতির বলি বাইক আরোহী।    ট্রেনে এবার ঝাঁকুনি ফ্রি সফর।    মেদিনীপুরে শিল্পের উন্নত পরিকাঠামো গড়তে মুখ্যমন্ত্রীর উদ্যোগ।    র‍্যাফটিং করতে গিয়ে তিস্তার জলে তলিয়ে মৃত্যু ভিন রাজ্যের মহিলার।    ভাড়াটিয়ার পরকীয়ায় বাধা দিয়ে সোনারপুরে খুন বাড়ির মালিক।    আজ আপনার কেমন যাবে জেনে নিন।    পুজোর মরসুমে বালুরঘাটে জমে উঠেছে রমরমা জুয়ার আসর।
BREAKING NEWS:
  • আজ মহানবমী।
  • সকাল থেকেই মন্ডপে মন্ডপে ভীড়।
{"effect":"slide-h","fontstyle":"normal","autoplay":"true","timer":4000}


অজানা জ্বরের মড়ক থেকে শিশুদের বাঁচাতে চাই সচেতনতা

আমাদের ভারত, পূর্ব মেদিনীপুর, ১০ আগস্ট : অজানা জ্বরে মৃত্যুর খবর মাঝে মাঝে শোনা যায়। সাধারণ রক্ত পরীক্ষায় কোনও জীবানু পাওয়া যায় না। ফলে সঠিক রোগ নির্ণয়ের অভাবে রোগীর মৃত্যু ঘটে। স্ক্রাব টাইফাস এরকমই একটি অজানা জ্বর। ডেঙ্গু, ম্যালেরিয়া বা এনকেফ্যালাইটিসের মত এই রোগের বহিঃপ্রকাশ জ্বর। এই জ্বর সাধারণ জ্বরের ওষুধে কমে গেলেও আবার ঘুরে ঘুরে আসে এবং সঠিক চিকিৎসা না হলে পেটে বুকে জল জমে শিশুর মৃত্যু পর্যন্ত ঘটতে পারে।
রক্তে ডেঙ্গু বা ম্যালেরিয়ার জীবানু না থাকা সত্বেও অনেকেই অজানা জ্বরে মারা যায়। স্ক্রাব টাইফাস একধরণের ছোট মাকড়সা বা ছারপোকার মত একধরনের পোকার কামড় থেকে সৃষ্টি। এই স্ক্রাব টাইফাস জ্বর সৃষ্টিকারি পোকামাকড় ইঁদুরের মাধ্যমে মানুষের দেহে সংক্রামিত হয়। বিশেষ করে শিশুদের। রক্ত পরীক্ষার মাধ্যমে এই স্ক্রাব টাইফাস রোগ ধরার মত কোনও ল্যাবরেটরি এখনো পশ্চিমবঙ্গে নেই।
সম্প্রতি কোলাঘাটের এক চিকিৎসক এই রোগে আক্রান্ত বেশ কয়েকজন শিশুকে সুস্থ করে তুলেছেন। শিশু রোগ বিশেষজ্ঞ ডাঃ প্রবীর ভৌমিক জানিয়েছেন, সম্প্রতি দীর্ঘদিন জ্বরে আক্রান্ত একটি শিশু কিছু লক্ষণ দেখে তাঁর সন্দেহ হওয়ায় তিনি ওই শিশুর রক্ত মুম্বই পাঠান। সেখানকার রিপোর্টে এই স্ক্রাব টাইফাস রোগের জীবানুর সন্ধান পাওয়া যায়। তারপর থেকে আরো বেশ কয়েকজন শিশু পূর্ব মেদিনীপুর জেলার বিভিন্ন জায়গা থেকে তার কাছে চিকিৎসা করিয়ে ভাল হয়েছে। এদের মধ্যে ১৫ জন শিশুর দেহে এই রোগের জীবানুর দেখা মিলেছে। এই মারণ রোগ যাতে মড়কের আকার না নেয় তাই ডাঃ ভৌমিক তার কাছে সেরে ওঠা শিশু ও তার পরিবারের লোকেদের একত্রিত করে এলাকার মানুষকে সচেতন করার অনুরোধ জানান।

এই স্ক্রাব টাইফাস রোগে আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসারত বা ভাল হয়ে যাওয়া শিশুর মায়েরা জানিয়েছেন, তাদের শিশু দীর্ঘদিন ধরে জ্বরে আক্রান্ত ছিল, ডাঃ ভৌমিকের চিকিৎসায় তাদের সন্তান ভাল হয়েছে।

এই স্ক্রাব টাইফাস রোগ সঠিকভাবে নির্নয় করে চিকিৎসা না হলে ক্রমাগত এটা মড়কের আকার ধারণ করতে পারে তাই চাই সচেতনতা। সঠিকভাবে চিকিৎসা করলে অজানা জ্বরে আর কোনও রোগীকে মরতে হবে না।

Leave a Reply

avatar
  Subscribe  
Notify of