বিজ্ঞাপনের জন্য আমাদের সঙ্গে যোগাযোগের মাধ্যম : amaderbharatdesk@gmail.com    “ওদেরকে শাস্তি দেওয়ার সময় এসে গেছে” কংগ্রেসকে তোপ যোগগুরু রামদেব বাবার।    রাত পোহালেই রাজ্যে দ্বিতীয় দফায় নির্বাচন।     দার্জিলিং, জলপাইগুড়ি ও রায়গঞ্জ লোকসভা কেন্দ্রে হবে ভোটগ্রহণ।    “টাকার থলি নিয়ে রাস্তায় রাস্তায় ঘুরছে আরএসএসের দালালরা” অভিযোগ মমতার।    সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেলে ছয় মাসের মধ্যেই বিধানসভা ভোট করাব বললেন আলুয়ালিয়া।    ঝাঁটা হাতে কেন্দ্রীয় বাহিনীকে এলাকা ছাড়া করার নিদান রাজ্যের মন্ত্রীর।    কান্দিতে অধীর গড়ে দাঁড়িয়ে কংগ্রেস ও বিজেপিকে তোপ মমতার।    নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার জন্য “ইউনিক কালার কোডিং” ব্যবস্থা।    আরও কড়া হল কমিশন, দুবের মাথায় বসল নতুন পর্যবেক্ষক।    অমিত, যোগীর জোড়া ফলায় মমতাকে ঘায়েলের চেষ্টা বিজেপির।    জয়ের প্রচারে আমতায় রাজনাথ সিং।    ঘাটালে একা কুম্ভ ভারতী।    আজ আপনার কেমন যাবে জেনে নিন।    ভোটের দিনগুলোয় কেন্দ্রীয় নেতাদের এনে কিস্তিমাত করতে কৌশল বিজেপির।


হাঁটু গেড়ে বসে কেন প্রেম প্রস্তাব দেওয়া হয়?

আমাদের ভারত ডেস্ক, ১০ ফেব্রুয়ারি: আমাদের সংস্কৃতিতে না হলেও, পশ্চিমা সংস্কৃতিতে বিয়ের ঐতিহ্যবাহী প্রস্তাব হিসেবে নারীর সামনে পুরুষ হাঁটু গেড়ে বসে বিয়ের প্রস্তাব দিয়ে থাকেন। এ সময় উপহার হিসেবে থাকে আংটি। কিন্তু কেন এক হাঁটু গেড়ে বসে বিয়ের প্রস্তাব দেওয়া হয়? দুর্ভাগ্যক্রমে, এই রোমান্টিক অঙ্গভঙ্গির ইতিহাস বা উৎপত্তি সম্পর্কে কেউই একমত নন।

কিন্তু কয়েকটি তত্ত্ব থেকে এই ভঙ্গির বিষয়ে প্রতিশ্রুতির ধারণা পাওয়া যায়। মধ্যযুগে, তখনো সৌজন্যতা ছিল। আধুনিক বিয়ের প্রস্তাবের ভঙ্গিকে মধ্যযুগীয় শ্রদ্ধার রীতির সংস্করণ বলা যেতে পারে। সেসময় অনেক আনুষ্ঠানিক ধর্মানুষ্ঠান এবং শেষকৃত্য অনুষ্ঠানে হাঁটু গেড়ে বসার রীতি ছিল।

মধ্যযুগীয় অনেক শিল্পকর্ম এবং সাহিত্যে দেখা যায়, শ্রেষ্ঠ যোদ্ধা হিসেবে পরিচিত নাইটরা শাসকের প্রতি এভাবে শ্রদ্ধা ও সম্মানের নিদর্শন প্রকাশ করতো অথবা অভিজাত নারীর সামনেও এভাবে হাঁটু গেড়ে বসে শাশ্বত বশ্যতা ও শ্রদ্ধা প্রকাশ হিসেবে ‘ভদ্র ভালোবাসা’ প্রকাশ করতো।

বিভিন্ন ধর্মে স্রষ্টার প্রতি আনুগত্য প্রকাশ এবং অনন্ত শ্রদ্ধা প্রদর্শনের জন্য হাঁটু গেড়ে বসে প্রার্থনার নিদর্শন রয়েছে। তাই যখন আপনার প্রিয়জন আপনার সম্মুখে এক হাঁটু গেড়ে বসে আংটি দিয়ে প্রপোজ করে, সেখানে শুধু সে আপনার ‘হ্যাঁ’ বলার প্রত্যাশাটুকুই করে না। বরং এভাবে বসে সে আপনাকে আরো জানায় যে, আপনি যোগ্য সম্মানের অধিকারী, শ্রদ্ধা এবং এই ভালোবাসা অনন্তকালের।

Leave a Reply

avatar
  Subscribe  
Notify of