বিজ্ঞাপনের জন্য আমাদের সঙ্গে যোগাযোগের মাধ্যম : amaderbharatdesk@gmail.com    ১৯শেই সাফ তৃণমূল : মোদী।    চিটফান্ড কেলেঙ্কারিতে জেলে যাবেন পার্থ : কৈলাশ বিজয়বর্গীয়    আমি বিজেপির ভয়ানক বিরোধী, কিন্তু এটা উকিলের চোখে ধরা পড়ছে মূর্তি টিএমসিপি ভেঙেছে : অরুণাভ ঘোষ।    মুখ্যমন্ত্রীর প্ররোচনায় নরসংহার শুরু করতে পারে তৃণমূল, রাজ্যে কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েনের দাবি বিজেপির।    তৃণমূল বিদ্যাসাগরের মূর্তি যে ভেঙ্গেছে সেখানে পঞ্চ ধাতুর মূর্তি বানিয়ে দেব : ঘোষণা মোদীর।    সারদা নরদা নিয়ে বড় বড় কথা আর চিটফান্ডের মালিকের মাঠে সভা করছে প্রধানমন্ত্রী : মমতা।    কমিশনের নির্দেশ অমান্য ! স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকে গরহাজির রাজীব কুমার।    এবার লালবাজারে ডাকা হতে পারেন অমিত শাহকে!    ক্ষুব্ধ ঝাড়গ্রামের নীরব অপেক্ষা ফলাফলের জন্য।    “নারী শিক্ষার দিশারীকে ভূ-লুন্ঠিত হতে হল বাঙালীদের হাতে, এর থেকে লজ্জা কি আছে?”: ক্ষোভ বীরসিংহবাসীর।    রানাঘাটের মত নিশ্চিত আসনেও সিঁদুরে মেঘ দেখছে তৃণমূল।    মহামিছিল করে ভাটপাড়ায় প্রচার শেষ করতে চান মদন।    আজ আপনার কেমন যাবে জেনে নিন।    নির্বাচনের আগে ভোট পরিস্থিতি খতিয়ে দেখলেন বিশেষ পুলিশ পর্যবেক্ষক বিবেক দুবে।


ট্রেনে প্রেম নিবেদন করে মাদক খাইয়ে লুঠের চেষ্টা, গ্রেপ্তার যুবতী রূপা খাতুন

আমাদের ভারত, হুগলী ১২ এপ্রিল: ট্রেনে ঝাড়খন্ড থেকে বর্ধমান আসার পথে মাদক খাইয়ে অজ্ঞান করে লুঠের চেষ্টা। পরে ঘটনার খবর পেয়ে তদন্তে নামে কামারকুন্ডু জিআরপি। বর্ধমান স্টেশন থেকে গ্ৰেফতার করা হয় এক মহিলাকে। জিআরপি সূত্রে জানা গেছে মহিলার নাম রূপা খাতুন (২০)। তাকে আজ চন্দন নগর মহকুমা আদালতে তোলা হবে।

আলিউল শেখ ও লালন শেখ দুজনে লরির ড্রাইভার ও খালাসি। ঝাড়খন্ড থেকে বর্ধমানে কাজে আসছিলেন তারা। ট্রেন রামপুরহাট পার হবার পর এক যুবতী এসে তাদের সাথে ভাব জমায়। আলাপ এক সময় জমে ওঠে আলিউল সেখের সঙ্গে। এক সময় তাদের চা, বিস্কুটও খাওয়ায় ওই মহিলা। লরি চালক আলিউল শেখ চা, বিস্কুট খেয়েই অজ্ঞান হয়ে পড়ে। সন্দেহ হওয়ায় খালাসি লালান শেখ মহিলার দেওয়া চা বিস্কুট না খায়ে সেখান থেকে সরে যায়। সে বুঝতে পারে মহিলাটি তাদের সাথে প্রতারনা করছে। ড্রাইভারের অসুস্থতার কারনে বর্ধমানে নামতে পারেনি তারা। কিন্তু সে ভয়ে পাশের যাত্রীদেরও কিছু জানায়নি।পরে গুড়াপে ট্রেনটি দাঁড়ালে লালান শেখ তার ড্রাইভারকে অজ্ঞান অবস্থায় জোর করে নামিয়ে জিআরপির সাহায‍্য চান।

কামারকুন্ডু জিআরপি ড্রাইভারকে ধনিয়াখালি হাসপাতালে ভর্তি করে। ঘটনার তদন্ত শুরু করে তারা। পরে তাদের বয়ান অনুযায়ী বর্ধমান থেকে ওই মহিলাকে গ্ৰেফতার করে কামারকুন্ডু জি আর পি। এই ঘটনার সাথে আর কারা যুক্ত আছে, কতদিন ধরে তারা এই সব করত তা তদন্ত করে দেখছে জি আর পি।

Leave a Reply

avatar
  Subscribe  
Notify of