তেলিনিপাড়ার ঘটনায় হিন্দুদের পাশে থাকার জন্য গ্রেফতার ১০০ জন হিন্দু নেতা, বললেন দিলীপ ঘোষ

আমাদের ভারত, কলকাতা, ১৬ মে: তেলিনি পাড়ার মানুষের পাশে থাকার জন্য হিন্দুসমাজের নেতাদের গ্রেফতার করছে পুলিশ। শনিবার সল্টলেকে চন্দননগর পুলিশ কমিশনারেটের বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ তুললেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। তিনি বলেন, হুগলীর তেলিনি পাড়ায় হিন্দুরাই আক্রান্ত হয়েছেন। মন্দিরে অবাধে লুঠ হয়েছে। ঘরবাড়ি ভাঙ্গচুর হয়েছে সেখানকার হিন্দুদের। আর হিন্দুদের উপরে অত্যাচারের প্রতিবাদ করতেই ১২৯ জনকে গ্রেফতার হয়েছে তাদের মধ্যে ১০০ জন হিন্দুনেতা। উত্তর চচ্চিশ পরগনা জেলার ব্যারাকপুর থেকেও একজন হিন্দু জাগরণ মঞ্চের এক নেতাকে বিনা দোষে গ্রেফতার করা হয়েছে। পুলিশকে রাজনৈতিক স্বার্থে কাজে লাগিয়ে বার বার হিন্দু নেতাদের গ্রেফতার করছে রাজ্যের শাসক দল।

শুধু হিন্দু নেতারাই নয়, পুলিশ হুগলীর সাংসদ লকেট চ্যাটার্জি ও ব্যারাকপুরের সাংসদ অর্জুন সিংয়ের বিরুদ্ধে মামলা করেছে। জনপ্রতিনিধিদের মিধ্যে মামলায় ফাঁসানো শুরু হয়েছে। তবে বিজেপি এই মামলায় ভয় পাচ্ছে না। এর আগে বিজেপি সাংসদদের বিরুদ্ধে একাধিক মামলা করা হয়েছে। তারপরেও তারা সাধারণ মানুষের পাশে ছিল। উল্টে সাংসদদের বিরুদ্ধে মিথ্যে মামলা করে পুলিশ তাদের নিজেদের অযোগ্যতাকে সামনে আনলো বলে জানান বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। তবে হুগলী সহ রাজ্যের সব প্রান্তেই আক্রান্ত হিন্দু সমাজের পাশে বিজেপি রয়েছে বলে জানান তিনি।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here