কলকাতাতেই ১০ হাজার সংক্রমণ, মৃত্যু ৫০৯! রাজ্যে ২৪ ঘন্টায় আক্রান্ত ১৪৩৫, মৃত্যু ২৬, সুস্থ ৬৩২

রাজেন রায়, কলকাতা, ১৩ জুলাই: বিপুল সংক্রমণের ধারা বজায় থাকলেও কিছুটা কম সংক্রমণ ধরা পড়ল সোমবারের বুলেটিনে। ফলে বহুদিন বাদে দৈনিক রেকর্ড ভাঙ্গা থেকে বিরত থাকল রাজ্য। এ দিনের প্রকাশিত বুলেটিন অনুযায়ী, রাজ্যে ২৪ ঘন্টায় নতুন সংক্রমণের হদিশ মিলেছে ১৪৩৫ জনের। এদিনও রাজ্যে মৃত্যু হয়েছে ২৪ জনের, যার মধ্যে ১০ জন কলকাতারই। সুস্থ হয়েছেন ৬৩২ জন।

২৪ ঘন্টায় ১৪৩৫ জন করোনা পজিটিভে রাজ্যে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ৩১৪৪৮ জনে। আরও ২৪ জনের মৃত্যু হওয়ায় রাজ্যে সরকারি হিসেবে মোট করোনায় মৃত্যু ৯৫৬ জনের। এদিকে ২৪ ঘন্টায় আরও ৬৩২ জন সুস্থের হিসেব ধরলে মোট সুস্থ হলেন ১৯২১৩ জন। এর মধ্যে কলকাতাতেই সংক্রমণ ৪১৮ জনের, মৃত্যু হয়েছে ১০ জনের। এদিন সংক্রমণের নিরিখে একাই ১০০০০ পার করল কলকাতা। মোট মৃত ৯৫৬ জনের মধ্যে ৫০৯ জন কলকাতারই। এদিনও ৩৬৩ জন সংক্রমণ ও ৮ জনের মৃত্যুতে বিপজ্জনক পরিস্থিতিতে উত্তর ২৪ পরগনাও। সংক্রমণের নিরিখে ৬০০০ ছুঁইছুঁই এই জেলাও।

এদিন অন্যান্য জেলার সঙ্গে কলকাতাতে এদিনও ১৮১ জন, উত্তর ২৪ পরগনায় ১৩০ জন, দক্ষিণ ২৪ পরগনায় ৮১ জন, হাওড়ায় ৬৫ জন সুস্থ হয়েছেন। কিন্তু বিপুল সংক্রমণের জেরে সুস্থতার হার অনেকটা কমে দাঁড়িয়েছে ৬১.০৯ শতাংশে। এই মুহূর্তে রাজ্যে করোনা আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন ১১২৭৯ জন। তার মধ্যে এদিন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রোগীর সংখ্যা বেড়েছে ৭৭৯ জন।

বুলেটিনে আরও জানানো হয়েছে, এদিন পর্যন্ত রাজ্যের ৫৪টি ল্যাবে মোট করোনা টেস্টের সংখ্যা ৬২৭৪৩৮ জনের। তার মধ্যে ২৪ ঘন্টায় রাজ্যে করোনা পরীক্ষা হয়েছে ১০৩৫৯ জনের। রাজ্যের ৮০টি করোনা হাসপাতাল, ২৬টি সরকারি এবং ৫৪টি বেসরকারি হাসপাতালে মোট ১০৮৬২টি বেড আছে, আইসিইউ পরিষেবা রয়েছে ৯৪৮ জনের। ভেন্টিলেটর রয়েছে
৩৯৫টি। তার ২৮.৪৮ শতাংশ রোগী ভর্তি আছেন।

সরকারি ৫৮২টি কোয়ারেন্টাইনে এখন রয়েছেন ৪৫১২ জন। ছেড়ে দেওয়া হয়েছে ১০১১৬৭ জনকে। হোম কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন ২৮৪৩০ জন। ছেড়ে দেওয়া হয়েছে ৩৩১৩৯৫ জনকে। শ্রমিক স্পেশাল ট্রেন ফেরত পরিযায়ী শ্রমিকদের তথ্যে জানানো হয়েছে, ১৫৩৬টি কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে ৮৪৮৬ জন শ্রমিককে কোয়ারেন্টাইন করে রাখা হয়েছে। করোনা পরীক্ষা করে সুস্থ দেখে ২৬৭২৩৬ জন শ্রমিককে কোয়ারেন্টাইন সেন্টার থেকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। রাজ্যে সেফ হোম ও তার বেড সংখ্যা এবং সেখানে রোগীদের সংখ্যা উল্লেখ করে বলা হয়েছে, রাজ্যের ১০৬টি সেফ হোমে ৬৯০৮টি বেড রয়েছে এবং তাতে ২৭৭ জন রোগী রয়েছেন।

এছাড়া এদিনের বুলেটিনে জেলাওয়াড়ি তথ্যে জানানো হয়েছে, কলকাতায় এদিন ৪১৮ আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ায় মোট সংক্রমণ ১০০২৬ জনের। এদিন কলকাতায় আরও ১০ জনের মৃত্যু হওয়ায় কলকাতাতে মোট মৃত্যু ৫০৯ জনের। এছাড়া এদিন উত্তর ২৪ পরগনাতেও রেকর্ড ৩৬৩ জন সংক্রামিতের সংখ্যা বাড়ায় মোট আক্রান্ত সংখ্যা ৫৯৯২ জন। এখানেও এদিন আরও ৮ জনের মৃত্যু হওয়ায় মোট মৃত্যু ১৭২ জন। এছাড়া হাওড়া, হুগলিতে ২ জন করে এবং পশ্চিম বর্ধমান ও দক্ষিণ ২৪ পরগনায় ১ জন করে করোনা রোগীর মৃত্যু হয়েছে। এদিন অন্যান্য জেলার সঙ্গে হাওড়ায় ১৬৮ জন, দক্ষিণ ২৪ পরগনায় ৯৫ জন, দার্জিলিংয়ে ৭৩ জন, পূর্ব বর্ধমানে ৪৯ জন এবং মালদায় ৫৬ জন উল্লেখযোগ্য হারে সংক্রমণ বৃদ্ধি পেয়েছে। এদিন উত্তরবঙ্গে আলিপুরদুয়ার, কালিম্পং এবং দক্ষিণবঙ্গের ঝাড়গ্রাম ছাড়া সংক্রমণ বেড়েছে রাজ্যের বাকি সমস্ত জেলাতেই।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here