দেশে ১৭০টি জেলা হটস্পট হিসেবে চিহ্নিত, রাজ্যের ৪টি, আরও ৭ টি জেলায় গন্ডিবদ্ধ সংক্রমণ

আমাদের ভারত, ১৫ এপ্রিল:
কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকের দেশের ১৭০টি জেলাকে করোনার হটস্পট হিসেবে শনাক্ত করেছে। এরমধ্যে রয়েছে পশ্চিমবঙ্গের চারটি জেলা। এছাড়াও ২০৭ টি জেলায় ভবিষ্যতে এই মারণ ভাইরাসের ভরকেন্দ্র হতে পারে বলেও জানিয়েছেন তারা। এগুলোকে নন হটস্পট তালিকায় রাখা হয়েছে। তারমধ্যে রয়েছে রাজ্যের সাতটি জেলা।

তবে ভারতে এখনও গোষ্ঠী সংক্রমণ শুরু হয়নি বলেই আশ্বস্ত করা হয়েছে কেন্দ্রের তরফে। রাজ্যের যে চারটি জেলাকে করোনা হটস্পট হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে সেগুলি হল কলকাতা, হাওড়া, পূর্ব মেদিনীপুর এবং উত্তর ২৪ পরগনা। সংক্রমনের চেইন ভাঙতে বাংলার এই চারটি জেলাসহ দেশের ১৭০ টি জেলায় লকডাউনের কড়াকড়ি বাড়ানো হবে বলে কেন্দ্র স্পষ্ট করে দিয়েছে। রাজ্যের যে সাতটি জেলায় গণ্ডিবদ্ধ সংক্রমণের তালিকায় রয়েছে সেগুলি হল দক্ষিণ ২৪ পরগনা, হুগলি, নদীয়া, জলপাইগুড়ি, পশ্চিম বর্ধমান, দার্জিলিং এবং পশ্চিম মেদিনীপুর।

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী তরফের রাজ্যের কাছে এই জেলার নামের তালিকা ইতিমধ্যে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। দিল্লিতে করোনা পরিস্থিতি নিয়ে সাংবাদিকদের করেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী যুগ্মসচিব লভ আগারওয়াল। তিনি বলেন আক্রান্তের সংখ্যা নিরিখে জেলা গুলিকে বিভিন্ন ক্যাটেগরিতে চিহ্নিত করার জন্য কেন্দ্রের তরফ থেকে রাজ্যগুলিকেনির্দিষ্ট কিছু নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল। যেসব জেলায় অধিক সংখ্যক করোনা আক্রান্ত হয়েছে সেগুলি হটস্পট। যেগুলিতে কমসংখ্যক রোগীর সন্ধান পাওয়া গেছিল সেগুলিকে নন হটস্পট এবং যে সমস্ত জেলায় এখনো কোনো করোনা সংক্রমণ ঘটেনি সেগুলিকে গ্রিনজোন হিসেবে চিহ্নিত করতে বলা হয়েছিল।

একইসঙ্গে সংক্রমণ আটকাতে লকডাউন চলাকালীন কি কি প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে হবে সেই সম্পর্কে সুনির্দিষ্ট নির্দেশিকা পাঠানো হয়েছে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী তরফে।

ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে সমস্ত রাজ্যের মুখ্যসচিব, পুলিশের ডিজি, স্বাস্থ্যসচিব, জেলাশাসক, জেলা পুলিশ সুপার, পুরো কমিশনার অধিকারিদের সঙ্গে বৈঠক করেন কেন্দ্রীয় ক্যাবিনেট সচিব। এই বৈঠকে হটস্পট জেলাগুলি নিয়ে আলোচনা হয়। একইসঙ্গে গণ্ডিবদ্ধ জেলাগুলির ক্ষেত্র নির্দেশিকা রয়েছে।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here