ফের মহারাষ্ট্রে নৃশংস ভাবে খুন হলেন ২ সাধু, গ্রেফতার ১

আমাদের ভারত, ২৪ মে :পালঘরের সাধু হত্যার ঘটনা এখনো ফিকে হয়নি। তার মধ্যেই আবারও দুই সাধুর অস্বাভাবিক মৃত্যুর খবর এর মহারাষ্ট্র থেকে। পালঘর এরপর এবার নানাদেদ জেলার দুই সাধুকে তাদের আশ্রমেই খুন করে গেল দুষ্কৃতীরা। খুন হয়ে যাওয়া দুই সাধু হলেন, বাল ব্রহ্মচারী শিবাচার্য ও তার সঙ্গী ভগবান শিন্ডে। ঘটনায় এক অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। নানদেদের এস পি জানিয়েছেন ধৃতের বিরুদ্ধে বছর দশেক আগের আরও একটি খুনের মামলা ও শ্লীলতাহানির মামলা আছে।

শনিবার রাতে নানদেদের উমর তালুকে খুন হন এই দুই সাধু। আশ্রমের বাথরুমের কাছে তাদের মৃতদেহ উদ্ধার হয়। নানদেদের পুলিশের প্রাথমিক অনুমান চুরি করতে আশ্রম ঢুকেছিল দুষ্কৃতীরা। কারণ নগদ ৬৯ হাজার টাকা, একটি ল্যাপটপ সহ বেশ কিছু মূল্যবান জিনিস আশ্রম থেকে হাপিস। চুরি যাওয়া জিনিস পত্রের মূল্য সব মিলিয়ে দেড় লাখ টাকা।

পুলিশের প্রাথমিক সন্দেহ দুষ্কৃতীদের সঙ্গে ধস্তাধস্তি হয়েছিল সাধু শিবাচার্যের। কিন্তু তারা পেরে ওঠেননি। শেষ পর্যন্ত তাকে ও তার সাথী ভগবান শিন্ডেকে চার্জারের তার গলায় পেঁচিয়ে শ্বাসরোধ করে খুন করেন তারা।

যাওয়ার সময় শিবাচার্যের গাড়ির চাবিও নিয়ে পালানোর চেষ্টা করেছিলেন। কিন্তু গাড়িটি ধাক্কা দেয় আশ্রমের গেটে। ফলে আওয়াজ পেয়ে জেগে উঠেন আশ্রমের অনেকই। তখনই বেগতিক বুঝে একটি বাইকে চম্পট ঊ দুষ্কৃতীরা।

নানদাদের এসপি বিজয় কুমার মাগার জানিয়েছেন, ইতিমধ্যেই পুলিশের পাঁচটি দল তদন্ত শুরু করেছে। একজনকে গ্রেফতার ও করেছে তারা। ধৃতের বিরুদ্ধে বছর দশেক আগের আরও একটি খুনের মামলা ও শ্লীলতাহানির মামলা আছে।

তবে মাসখানেক আগেই পালঘরের এক সাধু ও তার সঙ্গীকে পিটিয়ে মেরেছিল উন্মত্ত গ্রামবাসী। সেই ঘটনায় উত্তাল হয়েছিল রাজ্য- রাজনীতি। সেই সময় কোনোক্রমে সেই ঘটনা সামাল দিয়েছিলেন মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী। কিন্তু এক মাস কাটতে না কাটতেই আবার তার রাজ্যে দুই সাধু খুন হলেন।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here