একজন করোনা আক্রান্তের খোঁঁজ মেলায় বনগাঁয় ২১ দিনের লকডাউন, প্রতিবাদে বিরোধীদের স্মারকলিপি

সুশান্ত ঘোষ, বনগাঁ, ১১ মে: কলকাতায় চিকিৎসা করাতে গিয়ে এক গৃহবধূর শরীরে করোনা সংক্রামন খোঁজ মেলে। তার জেরে উত্তর ২৪ পরগনার বনগাঁ পৌরসভার ছটি ওয়ার্ডকে কন্টেনমেন্ট জোনে রাখা হয়েছে। এছাড়া গোটা বনগাঁ জুড়ে ২১ দিন সম্পূর্ণ লকডাউন। এর প্রতিবাদে সোমবার বনগাঁ মহকুমা শাসকের কাছে ডেপুটিশন দিল বিজেপি, কংগ্রেস ও সিপিএএম।

অভিযোগ, বনগাঁর একটি ওয়ার্ডে করোনা ধরা পড়েছে। কিন্তু বনগাঁ প্রশাসন ছয়টি ওয়ার্ডকে কন্টেনমেন্ট জোন হিসেবে ঘোষণা করেছেন। ২১ দিনের জন্য বনগাঁ বাসীর সম্পূর্ণভাবে বাইরে বেরোনো বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। সকল দোকানপাট বন্ধ। এতে বনগাঁবাসীর মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়েছে। তাদের আরও দাবি এত বড় সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্য প্রশাসন কোনও সর্বদলীয় বৈঠক ডাকেননি। বিরোধী দলগুলিকে সম্পূর্ণ অন্ধকারে রেখে একটি বিশেষ রাজনৈতিক দল তাদের স্বার্থ চরিতার্থ করার জন্য এই কাজ করেছে।

বিজেপি নেতা দেবদাস মন্ডল বলেন, সর্বদলীয় বৈঠক না করে এই সিদ্ধান্ত কি করে নেয় বনগাঁর প্রশাসন? অবিলম্বে সর্বদলী বৈঠক ডেকে সিদ্ধান্ত নিতে হবে। আমরাও প্রশাসনের সঙ্গে সহযোগীতা করব।
তৃণমূলের দাবি, সবকিছুই প্রশাসনের নির্দেশে হচ্ছে। বনগাঁ পৌরসভা, প্রশাসনের নির্দেশ মত কাজ করছে। বিরোধীরা মানুষের পাশে না থেকে মিথ্যা অভিযোগ করছে। লোকজনের মধ্যে কোথাও তাদের খুঁজে পাওয়া যায়নি।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here