আক্রান্ত এবং সুস্থতার নয়া রেকর্ড! রাজ্যে ২৪ ঘন্টায় রেকর্ড আক্রান্ত ২১৯৮, মৃত্যু ২৭, সুস্থ ১২৮৬

রাজেন রায়, কলকাতা, ১৮ জুলাই: রাজ্যে করোনা সংক্রমণ পেরিয়ে গেল দৈনিক ২০০০-এর গণ্ডিও। শনিবারের প্রকাশিত বুলেটিন অনুযায়ী, রাজ্যে রেকর্ড সংখ্যক ২১৯৮ জন সংক্রমণের ফলে পশ্চিমবঙ্গে মোট সংক্রমণ ৪০২০৯ জনের। একই সঙ্গে নজিরবিহীন ভাবে রাজ্যে ২৪ ঘন্টায় সুস্থ হয়েছেন রেকর্ড সংখ্যক ১২৮৬ জন। ফলে রাজ্যে মোট সুস্থ সংখ্যা ২৩৫৩৯ জন। ২৪ ঘন্টায় আরও ২৭ জনের মৃত্যুতে মোট মৃত্যু ১০৭৬ জনের। এর মধ্যে কলকাতায় রেকর্ড সংক্রমণ ৬৪৮ জন, উত্তর ২৪ পরগনায় রেকর্ড সংক্রমণ ৫৫৪ জন। এদিনও রাজ্যে মৃত্যু হয়েছে ২৭ জনের, যার মধ্যে ১২ জন কলকাতার, ৪ জন উত্তর ২৪ পরগনার।

এদিন অন্যান্য জেলার সঙ্গে কলকাতাতে এদিনও ২৫৩ জন, হাওড়ায় ২৪৪ জন, উত্তর ২৪ পরগনায় ২১১ জন, দক্ষিণ ২৪ পরগনায় ১৬৮ জন সুস্থ হয়েছেন। কিন্তু বিপুল সংক্রমণের পর সুস্থের সংখ্যা বাড়ায় হার অপরিবর্তিত রয়েছে ৫৮.৫৪ শতাংশে। এই মুহূর্তে রাজ্যে করোনা আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন ১৫৫৯৪ জন। তার মধ্যে এদিন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রোগীর সংখ্যা বেড়েছে ৮৮৫ জনের।

বুলেটিনে আরও জানানো হয়েছে, এদিন পর্যন্ত রাজ্যের ৫৪টি ল্যাবে মোট করোনা টেস্টের সংখ্যা ৬৮৯৮১৩ জনের। তার মধ্যে ২৪ ঘন্টায় রাজ্যে করোনা পরীক্ষা হয়েছে ১৩৪৬৫ জনের। রাজ্যের ৮১টি করোনা হাসপাতাল, ২৭টি সরকারি এবং ৫৪টি বেসরকারি হাসপাতালে মোট ১১২২৭টি বেড আছে, আইসিইউ পরিষেবা রয়েছে ৯৪৮ জনের। ভেন্টিলেটর রয়েছে
৩৯৫টি। তার ৩৪.১৭ শতাংশ রোগী ভর্তি আছেন।

সরকারি ৫৮২টি কোয়ারেন্টাইনে এখন রয়েছেন ৩৮০৬ জন। ছেড়ে দেওয়া হয়েছে ১০৩৩১৫ জনকে। হোম কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন ২৯৬০৩ জন। ছেড়ে দেওয়া হয়েছে ৩৪৩৫০২ জনকে। শ্রমিক স্পেশাল ট্রেন ফেরত পরিযায়ী শ্রমিকদের তথ্যে জানানো হয়েছে, ২২টি কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে ১৪০ জন শ্রমিককে কোয়ারেন্টাইন করে রাখা হয়েছে। করোনা পরীক্ষা করে সুস্থ দেখে ২৭৬১৩৪ জন শ্রমিককে কোয়ারেন্টাইন সেন্টার থেকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। রাজ্যে সেফ হোম ও তার বেড সংখ্যা এবং সেখানে রোগীদের সংখ্যা উল্লেখ করে বলা হয়েছে, রাজ্যের ১০৬টি সেফ হোমে ৬৯০৮টি বেড রয়েছে এবং তাতে ৫৫৮ জন রোগী রয়েছেন।

এছাড়া এদিনের বুলেটিনে জেলাওয়াড়ি তথ্যে জানানো হয়েছে, কলকাতায় এদিন রেকর্ড সংখ্যক ৬৪৮ আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ায় মোট সংক্রমণ ১২৬৮২ জনের। এদিন কলকাতায় আরও ১২ জনের মৃত্যু হওয়ায় কলকাতাতে মোট মৃত্যু ৫৬১ জনের। এছাড়া এদিন উত্তর ২৪ পরগনাতেও রেকর্ড ৫৫৪ জন সংক্রামিতের সংখ্যা বাড়ায় মোট আক্রান্ত সংখ্যা ৮০৮২ জন। এখানেও এদিন আরও ৪ জনের মৃত্যু হওয়ায় মোট মৃত্যু ২০৪ জন। এছাড়া হুগলিতে ৪ জন, পশ্চিম মেদিনীপুর ও দক্ষিণ ২৪ পরগনাতে ২ জন করে আর আলিপুরদুয়ার, দক্ষিণ দিনাজপুর এবং হাওড়াতে ১ জন করে আরও ১১ জন করোনা রোগীর মৃত্যু হয়েছে। এদিন অন্যান্য জেলার সঙ্গে হাওড়ায় ১৬০ জন, দক্ষিণ ২৪ পরগনায় ১৪২ জন, হুগলিতে ১০৭ জন, দক্ষিণ দিনাজপুরে ৯৪ জন, মালদায় ৮৫ জন, দার্জিলিংয়ে ৭০ জনের উল্লেখযোগ্য হারে সংক্রমণ বৃদ্ধি পেয়েছে। এদিন দক্ষিণবঙ্গের ঝাড়গ্রাম ছাড়া সংক্রমণ বেড়েছে রাজ্যের বাকি সমস্ত জেলাতেই।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here