স্কুলে “ডাউট ক্লিয়ার” করতে গিয়ে ২৭ জন ছাত্র-ছাত্রী করোনায় আক্রান্ত

আমাদের ভারত, ৭ অক্টোবর: ডাউট ক্লিয়ার করতে স্কুলে গিয়েছিল নবম ও দশম শ্রেণীর কিছু ছাত্রছাত্রী। সম্ভবত সেখান থেকেই একসাথে ২৭ জন পড়ুয়া করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। ঘটনা অন্ধ্রপ্রদেশের এক সরকারি স্কুলের।

আক্রান্ত পড়ুয়ারা প্রত্যেকেই উপসর্গহীন হলেও আতঙ্ক ছড়িয়েছে অভিভাবকদের মধ্যে। স্কুল থেকে এরা সংক্রমিত হয়েছে নাকি অন্য কোথাও থেকে সংক্রমিত হয়েছে তা নিয়েও শুরু হয়েছে বিতর্ক। আগামী ২ নভেম্বর থেকে অন্ধ্রপ্রদেশের স্কুল খুলছে। কিন্তু তার আগে কিভাবে ওই পড়ুয়ারা স্কুলে গেলো? তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে।

জানা গেছে বিজয়নগরম জেলার পরিষদের হাই স্কুলের নবম ও দশম শ্রেণীর ওইসব পড়ুয়ারা ডাউট ক্লিয়ার করার জন্য স্কুলে যেতো। তবে স্কুল কর্তৃপক্ষের দাবি করোনা সংক্রমণ এড়াতে স্কুল কর্তৃপক্ষ উপযুক্ত সব ব্যবস্থা নিয়েছিলো। তাদের অনুমান এই পড়ুয়ারা অন্য কোন জায়গা থেকে সংক্রমিত হতে পারে। যেসব পড়ুয়ারা করোনায় সংক্রমিত হয়েছেন তারা বিভিন্ন গ্রামের।

ফলে এরা সংক্রমিত হয়ে পড়তেই এলাকায় জরুরী ভিত্তিতে স্বাস্থ্য পরীক্ষা শুরু হয়েছে। এই পরিস্থিতিতে স্কুল আপাতত খুলতে নিষেধ করেছে সেখানকার জেলা প্রশাসন।

সেখানকার জেলা প্রশাসনের তরফে জানানো হয়েছে বিজয়নগরমের একটি গ্রামে ১০৮ জন করোনা সংক্রমিত হয়েছেন। তাদের মধ্যে ৯ জন ছাত্র এবং ৯ ছাত্রী। বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে দেখছে রাজ্যের স্বাস্থ্য দপ্তর বলে জানিয়েছেন রাজ্যের স্বাস্থ্যমন্ত্রী। সংবাদ মাধ্যমকে তিনি জানিয়েছে বিজয়নগরমের যেসব পড়ুয়া করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন তাদের অভিভাবকদের করোনা টেস্ট হবে। প্রত্যেক পড়ুয়া আপাতত হোম আইসোলেশনে থাকবে। তাদের প্রয়োজনীয় ওষুধ সরবরাহ করা হবে।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য বিজয়নগরম জেলায় এখনো পর্যন্ত প্রায় ৩৬ হাজার মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এদের মধ্যে ৩৩ হাজার আবার সুস্থও হয়েছেন। মৃত্যু হয়েছে ২২০ জনের।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here