ফের হাসপাতালে সর্বোচ্চ রোগীবৃদ্ধি! রাজ্যে ২৪ ঘন্টায় আক্রান্ত আরও ৩২৮১, মৃত ৫৯, সুস্থ ২৯৫৪

রাজেন রায়, কলকাতা, ৩০ সেপ্টেম্বর: ফের ধীরে ধীরে বাজি পালটাতে শুরু করেছে করোনা ভাইরাস। সুস্থতার হার ন্যূনতম বৃদ্ধির সঙ্গে ফের চূড়ান্ত মাত্রায় বাড়তে শুরু করেছে সংক্রমণ। মঙ্গলবারের তুলনায় সুস্থদের সংখ্যা কমেছে ৭ জন আর সংক্রমণ বেড়েছে ৯৩ জনের। হয়েছে হাসপাতালে সাম্প্রতিক সময়ের মধ্যে সর্বোচ্চ রোগীবৃদ্ধিও।

ফের রাজ্যে ২৪ ঘন্টায় নতুন সংক্রমণের হদিশ ৩২৮১ জনের, মৃত্যু ৫৯ জনের এবং সুস্থ হয়েছেন ২৯৫৪ জন। সুস্থতার হার খুব সামান্য বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৮৭.৮৩ শতাংশে। বুধবারের বুলেটিন অনুযায়ী, ২৪ ঘন্টায় ৩২৮১ জন নতুন আক্রান্তে রাজ্যে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ২৫৭০৪৯ জন। এদিন আরও ৫৯ জনের মৃত্যু হওয়ায় রাজ্যে সরকারি হিসেবে মোট করোনায় মৃত্যু ৪৯৫৮ জনের। ২৪ ঘন্টায় আরও ২৯৫৪ জন সুস্থের হিসেব ধরলে মোট সুস্থ হলেন ২২৫৭৫৯ জন।

এদিনও অন্যান্য জেলার সঙ্গে কলকাতায় ৫৩১ জন, উত্তর ২৪ পরগনাতে ৫০৫ জন, দক্ষিণ ২৪ পরগনায় ২১৭ জন, হুগলিতে ১৯৫ জন, হাওড়ায় ১৫১ জন, পশ্চিম মেদিনীপুরে ১৪০ জন, পূর্ব মেদিনীপুরে ১৩১ জন, দার্জিলিংয়ে ১০৯ জন, নদীয়ায় ১০৬ জন, পশ্চিম বর্ধমানে ১০৫ জন সুস্থ হয়েছেন। এই মুহূর্তে রাজ্যে করোনা আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন ২৬৩৩২ জন। এ দিন হাসপাতালে রোগীর সংখ্যা বেড়ে গিয়েছে ২৬৮ জন, যা সাম্প্রতিককালের সর্বোচ্চ।

বুলেটিনে আরও জানানো হয়েছে, এদিন পর্যন্ত রাজ্যের ৮২ টি ল্যাবে মোট করোনা টেস্ট করা হল ৩২২৭৪৬২ জনের। যার মধ্যে ২৪ ঘন্টায় রাজ্যে করোনা পরীক্ষা হয়েছে ৪৩৭৬৫ জনের। রাজ্যের ৯২টি কোভিড ডেডিকেটেড হাসপাতাল, ৩৭টি সরকারি এবং ৫৫টি বেসরকারি হাসপাতালে মোট ১২৭১৫টি বেড আছে, আইসিইউ পরিষেবা রয়েছে ১২৪৩ জনের। ভেন্টিলেটর রয়েছে ৭৯০টি। তার মধ্যে মাত্র ৩৫.৩৪ শতাংশ রোগী ভর্তি আছেন।

সরকারি ৫৮২টি কোয়ারেন্টাইনে এখন রয়েছেন ২৪৪২ জন। ছেড়ে দেওয়া হয়েছে ১০৭৭২১ জনকে। হোম কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন ৭৮৪১৭ জন। ছেড়ে দেওয়া হয়েছে ৬২২৯৩৬ জনকে। রাজ্যের ২০০টি সেফ হোমে ১১৫০৭টি বেড রয়েছে এবং তাতে ১৩৩৮ জন রোগী রয়েছেন।

এছাড়া এদিনের মৃত্যু হিসেবে বুলেটিনে জেলাওয়াড়ি তথ্যে জানানো হয়েছে, এদিন রাজ্যে মৃত্যু হয়েছে ৫৯ জনের। এ দিন উত্তর ২৪ পরগনায় ১৮ জন, কলকাতায় ১১ জন, ও হাওড়ায় ৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া দার্জিলিং, পশ্চিম বর্ধমান ও দক্ষিণ ২৪ পরগনায় ৪ জন করে, নদীয়া ও হুগলিতে ৩ জন করে এবং আলিপুরদুয়ার, কোচবিহার, জলপাইগুড়ি, ঝাড়গ্রাম ও পশ্চিম মেদিনীপুরে ১ জন করে মোট আরও ২৩ জন করোনা রোগীর মৃত্যু হয়েছে।

এছাড়া এদিন অন্যান্য জেলার সঙ্গে কলকাতায় ৬৭২ জন, উত্তর ২৪ পরগনায় ৬৬১ জন, দক্ষিণ ২৪ পরগনায় ২৭২ জন, হাওড়ায় ১৯৮ জন, হুগলিতে ১৬০ জন, পশ্চিম মেদিনীপুরে ১২০ জন, পূর্ব মেদিনীপুরে ও নদিয়ায় ১১৬ জন করে, কোচবিহার ও জলপাইগুড়িতে ৮৭ জন করে উল্লেখযোগ্য হারে সংক্রমণ বৃদ্ধি পেয়েছে। এদিনও সংক্রমণ বেড়েছে রাজ্যের সব জেলাতেই।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here