পেট কেটে মাথা থেঁতলে খুন, দেহ লোপাট করতে গিয়ে গ্রেফতার ৪

(ডানদিকে মূল অভিযুক্ত মোরতাজা, বাঁ দিকে খুন হওয়া যুবক নওসর)

সৌভিক বন্দ্যোপাধ্যায়, কলকাতা, ৬ ডিসেম্বর: টাকা ধার নিয়ে শোধ না দেওয়ার ফলে মর্মান্তিক ভাবে খুন হতে হল এক যুবককে। তলপেট খুর দিয়ে চিরে, ইট দিয়ে মাথা থেঁতলে যুবককে খুন করার পর গঙ্গায় তার দেহ ভাসিয়ে দেয়ার পরিকল্পনা ছিল অভিযুক্তদের। কিন্তু সেই সময় তখন টহলদারি পুলিশের নজরে পড়ে গিয়ে ধরা পড়ে গেলেন মূল অভিযুক্ত-সহ চারজন।

পুলিশ জানিয়েছে, মৃতের নাম নওসর। সে পেশায় ট্রান্সপোর্টের ব্যবসায়ী ছিল। সে কলকাতার পশ্চিম বন্দর থানা এলাকার সিগারেট কলের বাসিন্দা।

পুলিশ জানিয়েছে, ঘটনায় প্রধান অভিযুক্ত রাজ মোর্তাজা নওসরের মতোই ট্রান্সপোর্ট ব্যবসার সঙ্গে যুক্ত। তাকে অনেকে পুলিশের সোর্স বলে দাবি করলেও সেই দাবি মানতে চায়নি পুলিশ। বাকি তিনজন সানওয়াজ আহমেদ, আসগড় আলি, আলম সফি কাপড়ের ব্যবসায়ী।

জানা গিয়েছে, মূল অভিযুক্তের কাছ থেকে ৫০ লক্ষ টাকা ধার করে কিছুতেই তা শোধ দিচ্ছিল না। আর তাই তাকে খুনের পরিকল্পনা করা হয়। আর সেই পরিকল্পনা মাফিক খুন করার আগে তাঁকে প্রথমে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল নিউ মার্কেটের একটি হোটেলের পার্টিতে। তার টাকা শোধ করার ইচ্ছা আছে কি না তার শেষবার তাকে জিজ্ঞেস করে জেনে নেয় অভিযুক্তরা। মাঝরাতে আবার সেখান থেকে বেরিয়ে, গাড়ি করে নাদিয়াল থানার ‘বেঙ্গল বন্ড গ্রাউন্ড’-এর কাছে নদীর ধারে পৌঁছে সেখানেও চলে মদ্যপান। এর পরই সুযোগ বুঝে, ইট দিয়ে নওসেরের মাথায় বারবার আঘাত করা হয়। মৃত্যু নিশ্চিত করতে খুর দিয়ে কাটা হয় তার তলপেট। ক্ষতবিক্ষত করা হয় শরীরের বিভিন্ন অংশ। তারপর দেহটি নদীতে ফেলার চেষ্টা করেছিল। আর ঠিক তখনই তারা ধরা পড়ে যায়।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here