দিঘা যাওয়ার পথে দুর্ঘটনায় মৃত খানাকুলের তৃণমূলের অঞ্চল সভাপতি সহ ৪, আহত ২

আমাদের ভারত, পূর্ব মেদিনীপুর, ৯ জানুয়ারি: গতকাল মধ্যরাতে তমলুক থানার রামতারকে ৪১নম্বর জাতীয় সড়কে মারুতি অলটো গাড়ির সঙ্গে মাছের গাড়ির সংঘর্ষে নিহত ৪ আহত, ২ জন। আহত ২ জনকে প্রথমে তমলুক জেলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে অবস্থার অবনতি ঘটায় কলকাতায় স্থানান্তরিত হয়েছে।

জানাগেছে, হুগলির খানাকুলের কিশোরপুর ১নং অঞ্চল থেকে ছোট গাড়িতে করে ৬জনের একটি দল দীঘা যাচ্ছিল। যাওয়ার পথে ভয়াবহ দুর্ঘটনাটি ঘটে। ৪১ নম্বর জাতীয় সড়কের তমলুক থানার রামতারকের কাছে দুর্ঘটনাটি ঘটে। আচমকা মাছের দশ চাকা লরিটি রাস্তায় উঠে এলে তীব্র গতিতে আসা অলটো গাড়িটি লরির পেছনে ধাক্কা মারে এবং লরির পেছনে আটকে যায়। গাড়ি টিকে টানতে টানতে অনেকদূর নিয়ে চলে যায় লরিটি। ঘটনাস্থলেই চারজনের মৃত্যু হয়।

তৃণমূলের অঞ্চল সভাপতি দীপঙ্কর বরের নিজের গাড়ি ছিল। তিনি নিজেই গাড়িটি চালাচ্ছিলেন। ঘন কুয়াশা এবং অতিরিক্ত দ্রুতগতির জন্যই সামনে থাকা মাছের গাড়িতে সজোরে ধাক্কা মারে অল্টো মারুতি গাড়িটি। আর তাতেই ছোটো গাড়িটির সামনের অংশটি পুরো দুমড়েমুচড়ে যায়। দুর্ঘটনায় প্রাণ গিয়েছে চারজনের।

মৃতরা হল দীপঙ্কর বর (তৃণমূলের কার্যকরী অঞ্চল সভাপতি), প্রসেনজিৎ দিগের, রাজকুমার পন্ডিত, দিলীপ সামন্তের ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয়। গুরুতর জখম অবস্থায় পিজিতে ভর্তি পঞ্চায়েত সদস্য শীতল মাঝি, সুপারভাইজার আশীষ সাঙ্কি। ঘটনাস্থলের এসে পৌঁছেছে পরিবারের লোকজন। শোকস্তব্ধ গোটা এলাকা।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here