করোনা ভ্যাক্সিনের জন্য ৫০ হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ করে রেখেছে সরকার

আমাদের ভারত, ২৩ অক্টোবর: করোনার ভ্যাক্সিন বাজারে এলেই তা দ্রুততার সঙ্গে তার সব ভারতীয় কাছে পৌঁছানোর জন্য সরকারের প্রস্তুতি প্রায় সারা হয়ে গেছে। স্বাধীনতা দিবসে লালকেল্লা থেকে বক্তব্য রাখার সময় দেশবাসীকে প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদী আশ্বস্ত করেছিলেন করোনার ভ্যাক্সিন পৌঁছে যাবে দেশের প্রতিটি মানুষের কাছে। দেশের প্রতিটি মানুষের কাছে করোনার টিকা পৌঁছে দেওয়ার খরচ ধরা হয়েছে জনপ্রতি ৪৫০ থেকে ৫০০ টাকা। ১৩০ কোটি মানুষের দেশে কোভিড টিকা দেওয়ার জন্য ৫০ হাজার কোটি টাকার ব্যবস্থা করেছে মোদী সরকার

জানা গেছে চলতি অর্থবছরের জন্যেই এই টাকার সংস্থান রাখা হয়েছে। তবে ভ্যাক্সিন উৎপাদক সংস্থা সেরাম ইনস্টিটিউটের আশঙ্কা এই ৫০ হাজার কোটি টাকাও কম পড়ে যেতে পারে। তাদের দাবি কমপক্ষে ৮০ হাজার কোটি টাকা খরচ হবে। কারণ শুধু ভ্যাক্সিন উৎপাদনের খরচ নয় সেই ভ্যাক্সিন দেশের প্রত্যন্ত এলাকাতেও পৌঁছেও দিতে হবে। সেই খরচ ও কিছু কম নয়।

হিমালয়ের দুর্গম এলাকা হোক বা আন্দামান নিকোবার। দেশের সব প্রান্তে পৌঁছাতে হবে এই ভ্যাক্সিন। তবে এটা স্পষ্ট হয়ে গেছে সবাই একসাথে এই ভ্যাক্সিন পাবে না। অগ্রাধিকারের ভিত্তিতেই দেওয়া হবে এই টিকা।

ভ্যাক্সিনের দুটি ইনজেকশন একবার দিতে মাথাপিছু খরচ হতে পারে ২ মার্কিন ডলার বা দেড়শ টাকা মত। আরো দেড়শ থেকে দুইশো টাকা পরিকাঠামোগত খরচ যোগ হবে।যদিও এই খরচের বিষয়ে এখনো পর্যন্ত কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী কোনো প্রতিক্রিয়া দেয়নি।

তবে মঙ্গলবার প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদী আশ্বস্ত করেছেন ভ্যাক্সিন আসামাত্রই যত তাড়াতাড়ি সম্ভব তা দেশবাসীর কাছে পৌঁছে দেওয়া হবে। আর তার জন্য তার সরকারের পরিকল্পনা প্রায় সারা হয়ে গেছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here