মুর্শিদাবাদ জেলার দুই জায়গায় বাজ পড়ে মৃত ৬

আমাদের ভারত, মুর্শিদাবাদ, ২৭ জুন: মুর্শিদাবাদের সাগরদিঘি ও ভরতপুরে বজ্রাঘাতের ফলে এক মহিলা-সহ মোট ৬ জনের মৃত্যু হল। শনিবার বিকেলে প্রথম ঘটনাটি ঘটে সাগরদিঘির বিশ্বনাথপুরে। আর সন্ধ্যায় দ্বিতীয় ঘটনাটি ঘটে ভরতপুরে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, রাজুবালা মণ্ডল নামের এক কৃষকের বেগুন ক্ষেতে কাজ করতে যান সাতজন শ্রমিক৷ সেসময় হঠাৎ বৃষ্টি এলে বৃষ্টি থেকে বাঁচার জন্য মাঠেই একটি ডিপটিউবওয়েলের ঘরে আশ্রয় নেন জমির মালিক-সহ পাঁচজন। সেই সময় বাজ পড়ে মারা যান তাঁরা। পুলিশ জানিয়েছে মৃতদের নাম, সমর মণ্ডল (৩০), ভারতী মণ্ডল (৪০), শিবরাম মাহাতো (৪৫)। এছাড়া জখম হন জমির মালিক রাজুবালা মণ্ডল (৭০) এবং তেতত্রী মাহাতো। স্থানীয়রা তাঁদের সাগরদীঘি সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে নিয়ে গিয়ে ভর্তি করেন ৷ এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে শোকের ছায়া নেমেছে বিশ্বনাথপুর গ্রামে।

অন্যদিকে ভরতপুরে চাষের কাজ করে বাড়ি ফেরার পথে বজ্রাঘাতে মৃত্যু হয়েছে তিনজন গ্রামবাসীর। শনিবার সন্ধ্যায় মর্মান্তিক এই ঘটনাটি ঘটেছে জোড়গাছি গ্রামের মাঠ ও তালগ্রাম গ্রামের মাঠে। ঘটনার পর বাড়ির লোকেরা খোঁজখবর শুরু করলে মাঠ থেকে তিন জনকে উদ্ধার করা হয়। পরে ভরতপুর ব্লক হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে ডাক্তাররা তাঁদের মৃত ঘোষণা করেন। পুলিশ জানিয়েছে, মৃত তিনজনের নাম ইমতিয়াজ আলম (১৯), মতিচাঁদ আলি (৩৭)। এই দুজনের বাড়ি ভরতপুর থানার তালগ্রাম গ্রামে। অপর একজনের নাম সিফালি শেখ (৫৫)। বাড়ি ভরতপুর থানার জোড়গাছি গ্রামে। প্রাথমিক তদন্তের পর পুলিশ আরও জানিয়েছে, শনিবার সন্ধ্যায় প্রচণ্ড বৃষ্টি শুরু হয়। সঙ্গে সঙ্গে বাজ পড়তে থাকে। ওই তিনজন মাঠের কাজ শেষ করে বাড়ি ফিরছিলেন। বৃষ্টি শুরু হওয়ায় মাঠের একটি মিনিঘরে আশ্রয় নিয়েছিলেন। আচমকা বাজ পড়ে তিনজনেই মারা যান। পুলিশ মৃতদেহগুলি ময়নাতদন্তের জন্য কান্দি মহকুমা হাসপাতালে পাঠিয়েছে।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here