কোথা থেকে কিভাবে করোনার সংক্রমণ ছড়ালো, তদন্তের দাবি ভারত সহ ৬১দেশের, হু-র ভূমিকা নিয়েও তদন্তের দাবি

আমাদের ভারত, ১৮ মে:চিনই প্রথম থেকেই কাঠগড়ায় দাঁড়িয়ে আছে করোনা সংক্রমণ ছড়ানোর জন্য। কারণ চিনের উহান থেকেই সংক্রমনের প্রথম খবর পাওয়া গিয়েছিল। আর এট নিয়ে আমেরিকা বারবার তদন্ত শুরু হয়েছে বলে দাবি করেছে। ট্রাম্প একাধিকবার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন। এমনকি চীনকে সমর্থন করার জন্য বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা হু-এর বিরুদ্ধেও সোচ্চার হয়েছেন মার্কিন রাষ্ট্রপতি। কিন্তু এবার আমেরিকার সঙ্গে আরও ৬১টি দেশ করনা সংক্রমণ নিয়ে তদন্তের দাবিতে সরব হলো। তাদের মধ্যে রয়েছে ভারতও। তদন্তের দাবি উঠল করোনা ভাইরাসের আঁতুড়ঘর কোথায়?

অস্ট্রেলিয়া এবং ইউরোপীয় ইউনিয়নগুলিকে এই তদন্ত করতে সমর্থন জানিয়েছে বিশ্বের ৬১টি দেশ। কোথা থেকে এ করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ছড়ালো তার নিরপেক্ষ তদন্তের দাবি জানিয়েছে ভারতও।

ইউরোপীয় ইউনিয়ন এবং অস্ট্রেলিয়া প্রথম থেকে নিরপেক্ষ তদন্তের দাবি করেছে। বিশ্বের বাকি করোনা আক্রান্ত দেশের সমর্থন জোগাড় করতে শুরু করে তারা। এই তদন্তের খসড়া প্রস্তাবে সমর্থন যারা দিয়েছে তারমধ্যে অন্যতম ভারত। তবে ভারণ ছাড়াও বড় দেশগুলির মধ্যে রয়েছে ব্রিটেন, নিউজিল্যান্ড, দক্ষিণ কোরিয়া, জাপান, ব্রাজিল, কানাডা।

তবে শুধু কিভাবে এই মারণ ভাইরাসের সংক্রমণ ছড়ালো এবং কোথা থেকে ছড়ালো এটাই নয়, এই মহামারী সম্পর্কে হু এর ভূমিকা নিয়েও স্বতন্ত্র তদন্তের আহ্বান জানানো হয়েছে। সোমবার থেকে শুরু হয়েছে ৭৩ তম ওয়ার্ল্ড হেলথ অ্যাসেম্বলি সভা। এই সভাতেও এই বিষয়ে আলোচনা হবে। এই বৈঠকে অংশগ্রহণ করবে ভারতও।

এ বিষয়ে যে খসড়া প্রস্তাব তৈরি হয়েছে তাতে করোনা ভাইরাস সংকটের নিরপেক্ষ স্বাধীন তদন্তের আহ্বান জানানো হয়েছে। প্রস্তাবে বলা হয়েছে উপযুক্ত সময় তদন্ত শুরু করা প্রয়োজন। দরকারে সদস্য দেশগুলির সঙ্গে পরামর্শ করা হোক। প্রস্তাবে এই ভাইরাসের কারণে গোটা বিশ্বে যে প্রভাব পড়েছে সেই অভিজ্ঞতা খতিয়ে দেখতে হবে বলেও বলা হয়েছে। এই প্রস্তাবে একইসঙ্গে ভাইরাস আটকাতে কতটা নিরপেক্ষ স্বতন্ত্র পদক্ষেপ করা হয়েছিল সে বিষয়ে তদন্ত প্রয়োজন বলে জানানো হয়েছে।

কিভাবে সংক্রমণ ছড়িয়েছে এপ্রিলে সর্বপ্রথম অস্ট্রেলিয়া নিরপেক্ষ ও স্বাধীন তদন্তের দাবি জানিয়েছিল। এক্ষেত্রে হুয়ের ওপর তারা ভরসা দেখায়নি। অস্ট্রেলিয়ার বিদেশমন্ত্রী জানিয়েছিলেন, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাকে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ নিয়ে তদন্ত করতে দেওয়া অনেকটা শিকারিকে শিকার বন্ধ করে জঙ্গলের দেখভালের দায়িত্ব দেওয়ার মতো। এই মহামারী আটকাতে হুয়ের তরফে আরো কার্যকরী প্রতিরোধ করা প্রয়োজন ছিল। দেশের নাগরিকদের সুরক্ষিত রাখতে আন্তর্জাতিকভাবে একটি তদন্ত প্রয়োজন এবং তার জন্য সহযোগিতাও প্রয়োজন।” তবে এই তদন্তে সংক্রমণ ছড়ানোর ক্ষেত্রে চিন কাঠগড়ায় থাকলেও তদন্তের প্রস্তাবে চিন বা উহানের নামের উল্লেখ নেই। কিন্তু এটা সবাই জানে চিনের উহান থেকেই করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ শুরু হয় এবং ধীরে ধীরে তা সারা বিশ্বে ছড়িয়ে পড়ে মহামারীর আকার নিয়েছে।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here