দুশ্চিন্তায় কলকাতা, স্বস্তি বাঁকুড়ায়! রাজ্যে ২৪ ঘন্টায় নতুন আক্রান্ত ৬১১, মৃত ১৫, সুস্থ ৩৯৮

রাজেন রায়, কলকাতা, ১ জুলাই: ফের ২৪ ঘন্টায় নতুন আক্রান্তের সংখ্যা ৬১১ জন, মৃত্যু হয়েছে ১৫ জনের, সুস্থ হয়েছেন ৩৯৮ জন। বুধবার প্রকাশিত বুলেটিন এমন তথ্যই প্রকাশ্যে এসেছে। তবে তার মধ্যে কলকাতাতেই রেকর্ড সংক্রমণ ২৩৮ জনের, মৃত্যু হয়েছে ৭ জনের। তবে এদিন একেবারে সংক্রমণহীন থেকে উল্টে দুজনকে সুস্থ ঘোষণা করে রেকর্ড গড়েছে বাঁকুড়া জেলা।

বুলেটিন অনুযায়ী, ফের ২৪ ঘন্টায় ৬১১ জন করোনা পজিটিভে রাজ্যে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ১৯১৭০ জনে। আরও ১৫ জনের মৃত্যু হওয়ায় রাজ্যে সরকারি হিসেবে মোট করোনায় মৃত্যু ৬৮৩ জনের। এদিকে আরও ৪১১ জন সুস্থের হিসেব ধরলে মোট সুস্থ হলেন ১২৫২৮ জন।

এদিন অন্যান্য জেলার সঙ্গে কলকাতাতে এদিনও ১২৫ জন, উত্তর ২৪ পরগনায় ৭৪ জন এবং হাওড়ায় ৪৫ জন সুস্থ হয়েছেন। সুস্থতার হার অপরিবর্তিত রয়েছে ৬৫.৩৫ শতাংশে। এই মুহূর্তে রাজ্যে করোনা আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন ৫৯৫৯ জন। তার মধ্যে এদিন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রোগীর সংখ্যা বেড়েছে ১৯৮ জনের।

বুলেটিনে আরও জানানো হয়েছে, এদিন পর্যন্ত রাজ্যের ৫১ টি ল্যাবে মোট করোনা টেস্টের সংখ্যা ৪৯৭৫৯৬ জনের। তার মধ্যে ২৪ ঘন্টায় রাজ্যে করোনা পরীক্ষা হয়েছে ৯৫৫৮ জনের। রাজ্যের ৭৮টি করোনা হাসপাতাল, ২৫ টি সরকারি এবং ৫৩টি বেসরকারি হাসপাতালে মোট ১০৪৭৯টি বেড আছে, আইসিইউ পরিষেবা রয়েছে ৯৪৮ জনের। ভেন্টিলেটর রয়েছে ৩৯৫টি। তার ২৩.১১ শতাংশ রোগী ভর্তি আছেন।

সরকারি ৫৮২টি কোয়ারেন্টাইনে এখন রয়েছেন ৬৬৬৮ জন। ছেড়ে দেওয়া হয়েছে ৯৬৭০২ জনকে। হোম কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন ৫৯৬৫৮ জন। ছেড়ে দেওয়া হয়েছে ২৫৬৩৭৪ জনকে। শ্রমিক স্পেশাল ট্রেন ফেরত পরিযায়ী শ্রমিকদের তথ্যে জানানো হয়েছে, ৩৩৭০টি কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে ১৭৭২৮ জন শ্রমিককে কোয়ারেন্টাইন করে রাখা হয়েছে। করোনা পরীক্ষা করে সুস্থ দেখে ২৪৮২৮৮ জন শ্রমিককে কোয়ারেন্টাইন সেন্টার থেকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। রাজ্যে সেফ হোম ও তার বেড সংখ্যা এবং সেখানে রোগীদের সংখ্যা উল্লেখ করে বলা হয়েছে, রাজ্যের ১০৬টি সেফ হোমে ৬৯০৮টি বেড রয়েছে এবং তাতে ৩৭৭ জন রোগী রয়েছেন।

এছাড়া এদিনের বুলেটিনে জেলাওয়াড়ি তথ্যে জানানো হয়েছে, কলকাতায় এদিন রেকর্ড ২৩৮ আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ায় মোট সংক্রমণ ৬২২২ জনের। এদিন কলকাতায় আরও মাত্র ৭ জনের মৃত্যু হওয়ায় কলকাতাতে মোট মৃত্যু ৩৮৬ জনের। এছাড়া এদিন উত্তর ২৪ পরগনায় ৪ জন, হাওড়ায় ২ জন এবং জলপাইগুড়ি ও দক্ষিণ ২৪ পরগনায় ১ জন করোনা রোগীর মৃত্যু হওয়ায় আরও ৮ জন রোগীর মৃত্যু হয়েছে। এদিন অন্যান্য জেলার সঙ্গে উত্তর ২৪ পরগনায় ১৫৩ জন, হাওড়ায় ৭৮ জনের সংক্রমণ উল্লেখযোগ্য হারে সংক্রমণ বৃদ্ধি পেয়েছে। এদিনও উত্তরবঙ্গের দক্ষিণ দিনাজপুর এবং দক্ষিণবঙ্গের বীরভূম, বাঁকুড়া ও ঝাড়গ্রাম ছাড়া সংক্রমণ বেড়েছে রাজ্যের বাকি সমস্ত জেলাতেই।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here