এটিএম ও কেওয়াইসি’র নাম করে কোটি কোটি টাকার প্রতারণা, হুগলীতে গ্রেপ্তার সাত

আমাদের ভারত, হুগলী, ২ অক্টোবর: এটিএম ও কেওয়াইসি’র নাম করে কোটি কোটি টাকার প্রতারণা। ঘটনায় সাত জন। গত কয়েক মাস ধরে চন্দননগর, ভদ্রেশর, হুগলী, চুঁচুড়া এলাকার বিভিন্ন এলাকার ব্যাঙ্কের গ্রাহকদের অ্যাকাউন্ট থেকে টাকা তুলে নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। এরকম বেশ কিছু অভিযোগ বিভিন্ন থানাতেও জমা পড়েছে। এইসব অভিযোগের ভিত্তিতে গত কয়েক মাস ধরে চন্দননগর পুলিশ কমিশনারেটের এডিসিপি পলাশ ঢালির নেতৃত্বে চন্দননগর থানার আইসি শুভেন্দু মুখোপাধ্যায় হুগলী জেলার বিভিন্ন থানা এলাকায় ব্যাঙ্ক প্রতারণার তদন্তে নামেন। অভিযান চালিয়ে প্রথমে তিনজন ও আরও চার জনকে আটক করে চন্দননগর থানার পুলিশ। এদের মধ্যে তিনজনকে গতকাল চন্দননগর আদালতে হাজির করানো হলে বিচারক অভিযুক্তদের পাঁচদিনের পুলিশের হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছেন।

পুলিশের সূত্রে জানাগেছে, এরা বিভিন্ন গরিব মানুষের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টের কেওয়াইসি আপডেট করে দেওয়ার অছিলায় তাদের অ্যাকাউন্ট থেকে টাকা তুলে নিত। গ্রাহকরা সর্বশান্ত হওয়ার পর পুলিশের কাছে অভিযোগ জানাতে আসেন। তদন্তে নেমে পুলিশ খেয়াল করে গত কয়েক মাস ধরে চন্দননগর, ভদ্রেশ্বর, চুঁচুড়ার বিভিন্ন ব্যাঙ্কে প্রচুর টাকার লেনদেন হচ্ছে। এরপরই ব্যঙ্কের পক্ষ থেকে বিষয়টি চন্দননগর থানার পুলিশের কাছেও জানানো হয়। পুলিশের মতে এক এক দিনে প্রায় কয়েক লক্ষ টাকার লেনদেনের হদিস মিলেছে এক একটি অ্যাকাউন্ট থেকে। এরকম প্রায় দেড়শো অ্যাকাউন্টের হদিস মিলেছে তদন্তে। ঘটনায় আরোও তথ্য উঠে আসবে বলে দাবি চন্দননগর পুলিশ কমিশনারেটের।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here