রাজ্যে ২৪ ঘন্টায় ফের রেকর্ড সংক্রমণ ৯৮৬, কলকাতাতেই ৩৬৬! মৃত ২৩, সুস্থ ৫০১

রাজেন রায়, কলকাতা, ৮ জুলাই: সমস্ত রেকর্ড ছাপিয়ে রাজ্যে ২৪ ঘন্টায় প্রায় ১০০০ ছুঁইছুঁই সংক্রমণ! রাজ্যে করোনা পরিস্থিতি যে ক্রমশ উদ্বেগজনক পরিস্থিতিতে পৌঁছে যাচ্ছে, তা মেনে নিচ্ছেন স্বাস্থ্যকর্তারাও। তবে এদিন সামান্য কমল মৃত্যুর সংখ্যা।

বুধবার প্রকাশিত বুলেটিন অনুযায়ী, ফের ২৪ ঘন্টায় নতুন আক্রান্তের সংখ্যা ৯৮৬ জন, মৃত্যু হয়েছে ২৩ জনের, সুস্থ হয়েছেন ৫০১ জন। এর মধ্যে কলকাতাতেই রেকর্ড সংক্রমণ ৩৬৬ জনের, মৃত্যু হয়েছে ৬ জনের। মৃত ৮২৭ জনের মধ্যে ৪৪৪ জন কলকাতারই।

বুলেটিন অনুযায়ী, ফের ২৪ ঘন্টায় ৯৮৬ জন করোনা পজিটিভে রাজ্যে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ২৪৮২৩ জনে। আরও ২৩ জনের মৃত্যু হওয়ায় রাজ্যে সরকারি হিসেবে মোট করোনায় মৃত্যু ৮২৭ জনের। এদিকে আরও ৫০১ জন সুস্থের হিসেব ধরলে মোট সুস্থ হলেন ১৬২৯১ জন।

এদিন অন্যান্য জেলার সঙ্গে কলকাতাতে এদিনও ৯৮ জন, উত্তর ২৪ পরগনায় ৯০ জন এবং হাওড়ায় ৭৪ জন, মালদায় ৬৯ সুস্থ হয়েছেন। কিন্তু বিপুল সংক্রমণের জেরে সুস্থতার হার কমে দাঁড়িয়েছে ৬৬.২৭ শতাংশে। এই মুহূর্তে রাজ্যে করোনা আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন ৭৭০৫ জন। তার মধ্যে এদিন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রোগীর সংখ্যা বেড়েছে ৪৬২ জন।

বুলেটিনে আরও জানানো হয়েছে, এদিন পর্যন্ত রাজ্যের ৫২টি ল্যাবে মোট করোনা টেস্টের সংখ্যা ৫৭২৫২৩ জনের। তার মধ্যে ২৪ ঘন্টায় রাজ্যে করোনা পরীক্ষা হয়েছে ১০৩৮৬ জনের। রাজ্যের ৮০টি করোনা হাসপাতাল, ২৬টি সরকারি এবং ৫৪টি বেসরকারি হাসপাতালে মোট ১০৬৫৭টি বেড আছে, আইসিইউ পরিষেবা রয়েছে ৯৪৮ জনের। ভেন্টিলেটর রয়েছে ৩৯৫ টি। তার ২৭.২৯ শতাংশ রোগী ভর্তি আছেন।

সরকারি ৫৮২টি কোয়ারেন্টাইনে এখন রয়েছেন ৫১৫২ জন। ছেড়ে দেওয়া হয়েছে ৯৯৬৩৪ জনকে। হোম কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন ৩৬৮২৪ জন। ছেড়ে দেওয়া হয়েছে ৩০৪৭১৯ জনকে। শ্রমিক স্পেশাল ট্রেন ফেরত পরিযায়ী শ্রমিকদের তথ্যে জানানো হয়েছে, ২৩২৬টি কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে ১০৬১৮ জন শ্রমিককে কোয়ারেন্টাইন করে রাখা হয়েছে। করোনা পরীক্ষা করে সুস্থ দেখে ২৬১৬৭৮ জন শ্রমিককে কোয়ারেন্টাইন সেন্টার থেকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। রাজ্যে সেফ হোম ও তার বেড সংখ্যা এবং সেখানে রোগীদের সংখ্যা উল্লেখ করে বলা হয়েছে, রাজ্যের ১০৬টি সেফ হোমে ৬৯০৮টি বেড রয়েছে এবং তাতে ৩০১ জন রোগী রয়েছেন।

এছাড়া এদিনের বুলেটিনে জেলাওয়াড়ি তথ্যে জানানো হয়েছে, কলকাতায় এদিন ৩৬৬ আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ায় মোট সংক্রমণ ৮০৪৬ জনের। এদিন কলকাতায় আরও ৬ জনের মৃত্যু হওয়ায় কলকাতাতে মোট মৃত্যু ৪৪৪ জনের। এছাড়া এদিন উত্তর ২৪ পরগনায় ৬ জন এবং হাওড়ায় ৫ জন, মালদায় ২ জন করোনা রোগীর মৃত্যু হয়েছে। জলপাইগুড়ি, পূর্ব মেদিনীপুর, হুগলি ও দক্ষিণ ২৪ পরগনায় ১ জন করে করোনা রোগীর মৃত্যু হয়েছে। এদিন অন্যান্য জেলার সঙ্গে উত্তর ২৪ পরগনায় ২২৩ জন, হাওড়ায় ১০৬ জন, দক্ষিণ ২৪ পরগনায় ১০৩ জন, মালদায় ৪৫ জনের উল্লেখযোগ্য হারে সংক্রমণ বৃদ্ধি পেয়েছে। উত্তরবঙ্গের কালিম্পং, দক্ষিণ দিনাজপুর এবং দক্ষিণবঙ্গের ঝাড়গ্রাম ছাড়া এদিন সংক্রমণ বেড়েছে রাজ্যের বাকি সমস্ত জেলাতেই।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here