বাগদায় বাংলাদেশি কিশোরীকে গণধর্ষণ, গ্রেফতার আশ্রয়দাতা সহ ২

সুশান্ত ঘোষ, উত্তর ২৪ পরগনা, ১৬ অক্টোবর: কাজের সন্ধানে ভারতে আসা এক বাংলাদেশি কিশোরী গণধর্ষণের শিকার হল। এই ঘটনায় পুলিশ দুই অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করেছে। উত্তর ২৪ পরগনার বাগদা থানা এলাকার এই ঘটনায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, বাংলাদেশের সরিয়তপুর পুটিয়াকান্দি গ্রামের ১৭ বছরের এক কিশোরী কাজের সন্ধানে চোরাপথে ভারতে আসে। এব্যাপারে সে বাগদার হরিহরপুরের বাসিন্দা শরিফুল মল্লিকের সঙ্গে যোগাযোগ করে। শরিফুলের সঙ্গেই দিন কয়েক আগে বাগদা সীমান্ত দিয়ে চোরাপথে ভারতে আসে। হরিহরপাড়াতে সে শরিফুলের বাড়িতে আশ্রয় নেয়। ১৪ অক্টোবর, বৃহস্পতিবার গ্রামের বাসিন্দারা জানতে পারেন যে, শরিফুল এবং তার সঙ্গী মহসিন বিশ্বাস ওই কিশোরীকে ভয় দেখিয়ে ওই কয়েকদিন ধরে গণধর্ষণ করে। এরপর গ্রামের বাসিন্দাদের সহযোগিতায় ওই কিশোরী বাগদা থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করে। সেই অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ শুক্রবার ওই দুই অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করে। তাদের বিরুদ্ধে গণধর্ষণের মামলা রুজু করেছে পুলিশ।

ধৃত দুজনকে শনিবার বনগাঁ মহকুমা আদালতে তোলা হয়। বিচারক তাদের ৪ দিনের জন্য পুলিশ হেফাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন। তাকে নিজেদের হেফাজতে নিয়ে ঘটনার পুন:‌নির্মান করবে পুলিশ। পাশাপাশি, আক্রান্ত নাবালিকার ডাক্তারী পরীক্ষা করার জন্য বাগদা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। চোরাপথে সীমান্ত পেরিয়ে ভারতে প্রবেশের দায়ে ওই নাবালিকাকেও গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাকে বারাসতের চাইল্ড ওয়েলফেয়ার কমিটির হেফাজতে পাঠিয়েছে পুলিশ।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here