ফেসবুকে দলের প্রচার করায় কল্যাণীতে বিজেপির সক্রিয় কর্মীকে বেধড়ক মারধর

স্নেহাশীষ মুখার্জি, আমাদের ভারত, নদীয়া, ১৪ আগস্ট:
বিজেপির হয়ে প্রচার করায় এক বিজেপি কর্মীকে বেধড়ক মারধরের অভিযোগ উঠল। তাঁকে রাস্তায় ফেলে পেটানো হয় এবং সেখান থেকে তাকে অচৈতন্য অবস্থায় পুলিশ উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে।

জানা গেছে, কল্যাণী বি-ব্লকের বাসিন্দা প্রসেনজিৎ ঝা বিজেপির একজন সক্রিয় কর্মী। তিনি ফেসবুকে লাগাতার বিজেপির হয়ে প্রচার চালাতেন। সম্প্রতি ৯ তারিখে কয়েকজন দুষ্কৃতী তাঁকে হুমকি দিয়ে বলে, বিজেপির হয়ে প্রচার চালানো যাবে না। কিন্তু তিনি তা না শুনে প্রচার চালিয়ে যান। এরপর গত বুধবার তিনি যখন রাত দশটার সময় নৈহাটিতে তাঁর শ্বশুর বাড়ির উদ্দেশ্যে বেরিয়ে ছিলেন, তখন কল্যাণীর জেআইএস কলেজ মোড়ে তাঁকে ঘিরেধরে বেধড়ক মারধর করা হয়। তার গাড়ি সহ তাঁকে ঘিরে ধরে ৫/৬ জন। তাঁর মুখ লক্ষ্য করে এলোপাথাড়ি ঘুষি মারতে থাকে। ঘুষির আঘাতে তার মুখের ডান দিক ফেটে গুরুতর জখম হয়। এরপর তাঁকে অচৈতন্য অবস্থায় রাস্তায় ফেলে দেওয়া হয়। পরে ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ তাঁকে উদ্ধার করে কল্যাণী জেএনএম হাসপাতালে নিয়ে যায়। হাসপাতালে এখন ঐ বিজেপি কর্মী চিকিৎসাধীন।

বিজেপির কল্যাণী তিন নম্বর মন্ডল সভাপতি বিশ্বরূপ কুলভি বলেন, পশ্চিমবঙ্গের পরিস্থিতি অগণতান্ত্রিক। ফেসবুক একটা পাবলিক প্ল্যাটফর্ম। ভাষা যদি ঠিক হয় আমি তো আমার ভাষায় বলতেই পারি। আমি তো লিখতেই পারি। যেকোনো অন্যায়ের বিরুদ্ধে পোস্ট আমি তো করতেই পারি। পশ্চিমবঙ্গে গণতন্ত্র নেই। বারবার বাকরোধ করার চেষ্টা হচ্ছে। শুধু কল্যাণী নয় সারা পশ্চিমবঙ্গে এর বিরুদ্ধে আমরা সোচ্চার হচ্ছি। কারা করেছে ঠিকঠাক যদি পুলিশ কিনারা না করতে পারে বৃহত্তর আন্দোলনের পথে আমরা এগোবো।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here