বাড়ির সামনে মদ খাওয়ার প্রতিবাদ করায় বিজেপি সমর্থককে গাছে বেঁধে মারধরের অভিযোগ

আমাদের ভারত, ১১ মে: বাড়ির সামনে মদ খাওয়ার প্রতিবাদ করায় এক বিজেপি সমর্থককে গাছে বেঁধে মারধরের অভিযোগ উঠল তৃণমুল কংগ্রেসের বিরুদ্ধে। সোমবার সকালে দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার তপন থানার ভাড়িলা অভিরামপুর গ্রামের ঘটনা।

আজ সকালে স্থানীয় তৃণমূল কংগ্রেসের নেতৃত্বে একদল দুষ্কৃতি বুধু ওরাও নামে এক বিজেপি কর্মীর বাড়িতে চড়াও হয়ে হামলা চালায় বলে অভিযোগ। এরপর গাছে বেঁধে রেখে বেধড়ক মারধর করে। ঘটনায় গুরুতর জখম বুধু ওরাওকে বালুরঘাট হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

জানাযায়, রবিবার সন্ধ্যায় স্থানীয় তৃণমূলের কয়েকজন দুষ্কৃতি বুধু ওরাও এর বাড়ির সামনে মদ খাওয়া শুরু করে। দলের মাথা তৃণমূলের ওই কর্মীর নামও বুধু ওরাও। বিজেপির বুধু ওরাও তৃণমূলের ওই কর্মীদের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানায়। এরপর তারা বিজেপির বুধু ওরাওকে ধমক দিয়ে মদ খাওয়া চালিয়ে যায়। কিছুক্ষণ পরে তৃণমূলের ওই দুষ্কৃতিরা চলে যায়। আজ সকালে তারা দল বেধে এসে বিজেপির বুধু ওরাওকে ব্যাপক মারধর করে। গাছের সঙ্গে বেঁধে রেখে চলে অত্যাচার–অভিযোগ বিজেপির।

এব্যাপারে বালুরঘাটের বিজেপি সাংসদ সুকান্ত মজুমদার বলেন, “রাজ্যে প্রশাসন বলে কিছু নেই, আইন-শৃঙ্খলা শেষ। মুখ্যমন্ত্রী এবং তার ভাইপো ঘরে ঢুকে বসে রয়েছেন। রাজ্যের মানুষ যখন বাঁচার চেষ্টা করছেন তখন মুখ্যমন্ত্রী মদের দোকান খুলে দিয়েছেন, আর তাঁর চেলারা মদ খেয়ে মাতলামি করছে। একজন বিজেপি কর্মীকে গাছে বেঁধে মারধর করা হল, অথচ প্রশাসন কোনো ব্যবস্থা নিল না। এরপরেও কি বলতে হবে রাজ্যে আইন-শৃঙ্খলা বলে কিছু আছে?”

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here