জনধন অ্যাকাউন্ট খোলার জন্য টাকা নেওয়ার অভিযোগ দায়ের চাকদহ থানায়

স্নেহাশীষ মুখার্জী, আমাদের ভারত , নদীয়া, ৬ জুলাই:
ভারত সরকার যখন জনধন অ্যাকাউন্টে গরিব, দুঃস্থ মানুষদের টাকা দিচ্ছে, তখন নদীয়ার মদনপুরের এক ফ্রাঞ্চাইজির বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠল নতুন জনধন অ্যাকাউন্ট খোলার জন্য টাকা নেওয়ার। গত শনিবার চাকদহ থানায় ঐ ফ্র্যাঞ্চাইজির বিরুদ্ধে অভিযোগ জমা পড়ে।

জনধন অ্যাকাউন্টে সরকার টাকা দিচ্ছে। সেই কারণে বহু গরিব মানুষ এখন নতুন করে অ্যাকাউন্ট খুলছে। অভিযোগ, নদীয়ার মদন পুরের জঙ্গল গ্রামে শরিফ মন্ডলের ফ্র্যাঞ্চাইজিতে এজন্য টাকা নেওয়া হচ্ছে। এর আগেও তাঁর বিরুদ্ধে বন্ধ অ্যাকাউন্ট চালু করার জন্য টাকা নেওয়ার অভিযোগ উঠেছিল। কারণ অনেকেই অ্যাকাউন্ট করেছিলেন কিন্তু সেই অ্যাকাউন্টে টাকা-পয়সার লেনদেন করেননি। সেই জন্য তাদের অ্যাকাউন্ট বন্ধ হয়ে গেছিল। সেই বন্ধ অ্যাকাউন্ট খোলার জন্য এর আগেও জঙ্গল গ্রামের সরিফ মন্ডলের ফ্র্যাঞ্চাইজির বিরুদ্ধে দেড়শো টাকা করে নেওয়ার অভিযোগ উঠেছিল। এবার নতুন অ্যাকাউন্ট করার জন্যও তাঁর বিরুদ্ধে টাকা নেওয়ার অভিযোগ উঠল। জঙ্গল গ্রামেরই রমেশ মন্ডল নামে এক বাসিন্দা শরিফ মন্ডলের ফ্র্যাঞ্চাইজির বিরুদ্ধে চাকদাহ থানায় প্রতারণার অভিযোগ দায়ের করেন। রমেশবাবুর অভিযোগ, গত দু’মাস আগে ঐ ফ্র্যাঞ্চাইজিতে একটা জিরো ব্যালান্সের তিনি অ্যাকাউন্ট করতে দিয়েছিলেন। অ্যাকাউন্ট করবার জন্য তাঁর কাছ থেকে ওই ফ্র্যাঞ্চাইজিস আড়াইশো টাকা নিয়েছিল। টাকা নেওয়ার সময় তাঁকে বলেছিলেন এই টাকা তাঁর অ্যাকাউন্ট খোলার জন্য নেওয়া হচ্ছে, পরবর্তীতে ওই টাকা তাঁর অ্যাকাউন্টেই জমা পড়বে। কিন্তু গত দুমাসে ওই টাকা তাঁর অ্যাকাউন্টে জমা পড়েনি।

ছবি: অভিযোগকারী রমেশ মন্ডল।

সাতদিন ধরে তিনি ওই ফ্র্যাঞ্চাইজির অফিসে যাচ্ছেন টাকা ফেরতের আশায়। কিন্তু কোনও সুরাহা হয়নি। যখন তিনি বুঝতে পারলেন যে তিনি প্রতারিত হয়েছেন তখন তিনি প্রশাসনের দ্বারস্থ হন।

অভিযুক্ত শরিফ মন্ডল জানান, এই অভিযোগ সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন। আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র চলছে। আমি কারুর কাছ থেকে টাকা নিইনি। গ্রাহক তার নিজের অ্যাকাউন্ট খোলার জন্য টাকা দিচ্ছে। পরে ওই টাকা তাদের অ্যাকাউন্টেই জমা পড়ছে।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here