রায়গঞ্জে লরিতে আগুন লেগে মালদার চালকের মর্মান্তিক পরিণতি

আমাদের ভারত, উত্তর দিনাজপুর, ২ অক্টোবর: লরির ভেতরে আগুনে পুড়ে মৃত্যু হল চালকের। ঘটনাটি ঘটেছে রায়গঞ্জ থানার শিলিগুড়ি মোড় এলাকার ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়কে। এই ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পরে।

জানাগেছে, মৃত ওই চালকের নাম সবিকুল ইসলাম ( ৪০), বাড়ি মালদা জেলার গাজলের হালাল গ্রাম পঞ্চায়েতের সুরমনি গ্রামে। ঘটনার পর থেকে নিখোঁজ খালাসি, তাকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। কিভাবে লরির ভেতরে আগুন লেগে মৃত্যু হল তা তদন্ত শুরু করেছে রায়গঞ্জ থানার পুলিশ।

পরিবারসূত্রে জানা গিয়েছে, লরি চালক সবিকুল ইসলাম মালদা জেলার গাজলের হালাল গ্রাম পঞ্চায়েতের সুরমনি গ্রামের বাসিন্দা। গতকাল রাতে শিলিগুড়িতে লোহার রড খালি করে বাড়ি ফিরছিল।
রায়গঞ্জ থানার শিলিগুড়ি মোড় এলাকার ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়কে আসলে আচমকাই লরিতে আগুন লেগে যায় বলে জানা গেছে। আগুনে মৃত্যু হয় চালক সবিকুল ইসলামের। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে আসছে রায়গঞ্জ থানার পুলিশ ও দমকল বাহিনী। দমকল বাহিনী এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার পর পুলিশ লরির ভেতর থেকে সবিকুল ইসলামের মৃতদেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য রায়গঞ্জ জেলা হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

সবিকুল ইসলামের পরিবারের সদস্য মনিরুল জামালের অভিযোগ, সবিকুল ইসলামকে মেরে লরিতে আগুন লাগিয়ে দিয়েছে। গতকাল সবিকুল লরি নিয়ে শিলিগুড়ি থেকে লোহার রড খালি করে ফিরছিল। ফেরার পথে লরির মালিকের সাথেও কথা হয় সবিকুলের। পরের দিকে ফোন আসে যে লরিতে আগুন লেগেছে আর চালক আগুনে পুড়ে মারা গিয়েছে। তাদের ধারণা সবিকুলকে মেরে যা টাকাপয়সা ছিল তা নিয়ে পালিয়ে যাওয়ার সময় লরিতে আগুন লাগিয়ে দেয়। বলে অভিযোগ করেন মনিরুল জামাল। এই ঘটনাটি যারা ঘটিয়েছে তাদের উপযুক্ত শান্তির দাবি করছে সবিকুলের পরিবারের সদস্যরা।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here